Inqilab Logo

শনিবার, ০২ জুলাই ২০২২, ১৮ আষাঢ় ১৪২৯, ০২ যিলহজ ১৪৪৩ হিজরী

পথভ্রষ্ট যুবকরা ফিরে এসেছে আলোর পথে

| প্রকাশের সময় : ১৪ জানুয়ারি, ২০১৭, ১২:০০ এএম

কাগতিয়া আলীয়া দরবার শরীফের পীর সাহেব আল্লামা অধ্যক্ষ শায়খ ছৈয়্যদ মুহাম্মদ মুনির উল্লাহ্ আহমদী বলেছেন, এ দরবারের প্রতিষ্ঠাতা কালজয়ী মনীষী হযরত শায়খ ছৈয়্যদ গাউছুল আজম (রা.) এর কাছে যুবকেরা পেয়েছে নবীপ্রেমে ও আদর্শে জীবনগড়ার অনুপ্রেরণা। যাঁর ঐকান্তিক আধ্যাত্মিক প্রচেষ্ঠায় দ্রæততম সময়ে অগণিত পথভ্রষ্ট যুবক পরিণত হয়েছে সোনার মানুষে, ফিরে এসেছে অন্ধকার থেকে আলোর পথে। যেসব যুবক নামাজ-রোজা পালন করত না, তারা এ মহান মনীষীর সান্নিধ্যে এসে হয়েছে পাঁচ ওয়াক্ত নামজি, শেষরাতে ওঠে তাহাজ্জুদ আদায়কারী ও রোজাদার।
তিনি গতকাল শুক্রবার পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (দ.) ও ফাতেহা-ই-এয়াজদাহম উদ্যাপন উপলক্ষে হযরত শায়খ ছৈয়্যদ স্মরণে মুনিরীয়া যুব তবলীগ কমিটি বাংলাদেশ ৬ নম্বর বড়ঠাকুরপাড়া শাখার উদ্যোগে বড়ঠাকুরপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও পূর্বগুজরা উচ্চবিদ্যালয় ময়দানে আয়োজিত এশায়াত মাহফিলে উপস্থিত হাজার হাজার নবীপ্রেমিক মুসলমানের উদ্দেশে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখছিলেন।
তিনি আরো বলেন, হযরত শায়খ ছৈয়্যদ প্রতিষ্ঠিত অরাজনৈতিক আধ্যাত্মিক সংগঠন মুনিরীয়া যুব তবলীগ কমিটি বিশ্বব্যাপী প্রচার করছে এহসান তথা অন্তর্দৃষ্টি উম্মিলনের শিক্ষা, সব ধরনের অশ্লীলতা ও অনৈতিক কমকাÐ থেকে যুবসমাজকে মুক্ত করে তাদেরকে কুরআন-সুন্নাহ্র দিকে ধাবিত করতে দেশ-বিদেশে আয়োজন করছে নানান আধ্যাত্মিক কর্মসূচি।
পূর্বগুজরা উচ্চবিদ্যালয়ের সাবেক প্রধান শিক্ষক আলহাজ মুহাম্মদ রমজান আলীর সভাপতিত্বে মাহফিলে আরো উপস্থিত ছিলেন আলহাজ আল্লামা আহমদ করিম, উপাধ্যক্ষ মাওলানা অবদুুল মাবুদ, অধ্যাপক মুহাম্মদ তসলিম উদ্দীন, অধ্যাপক মুহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম, মাস্টার মুহাম্মদ সোলায়মান, আল্লামা আবু মুহাম্মদ আজমী, মাওলানা মাহবুবুর রহমান, মাওলানা বেলাল উদ্দীন, মাওলানা তাজুল ইসলাম।
প্রধান আলোচক ছিলেন সংগঠনের মহাসচিব অধ্যাপক মুহাম্মদ ফোরকান মিয়া। এতে অন্যান্যের মধ্যে আরো বক্তব্য রাখেন মুনিরীয়া তবলীগ কমিটি ওলামা পরিষদের সভাপতি আল্লামা মুফতি মুহাম্মদ ইব্রাহিম হানফী, কাগতিয়া এশাতুল উলুম কামিল এম এ মাদরাসার মুহাদ্দিস আল্লামা মুহাম্মদ আশেকুর রহমান, আল্লামা মুহাম্মদ সেকান্দর আলী, মাওলানা মুহাম্মদ সাইফুর রহমান প্রমুখ।
মিলাদ ও কিয়াম শেষে হুজুর ক্বেবলা দেশ, জাতি এবং বিশ্ব মুসলিম উম্মাহর সুখ, শান্তি ও সমৃদ্ধি এবং হযরত গাউছুল আজম রাদ্বিয়াল্লাহু আনহুর নূরানী ফুয়ুজাত কামনা করে বিশেষ মুনাজাত পরিচালনা করেন। -বিজ্ঞপ্তি



 

Show all comments
  • ১৫ জানুয়ারি, ২০১৭, ৭:৩০ এএম says : 0
    আমিন
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: পথভ্রষ্ট
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ