Inqilab Logo

শনিবার, ০২ জুলাই ২০২২, ১৮ আষাঢ় ১৪২৯, ০২ যিলহজ ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

৯৫ ভাগ মুসলমানের দেশের শিক্ষায় আল্লাহ দ্রোহিদের নাক গলানোর অধিকার নেই -ইসলামী যুব আন্দোলন

| প্রকাশের সময় : ১৪ জানুয়ারি, ২০১৭, ১২:০০ এএম

স্টাফ রিপোর্টার : ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর সিনিয়র নায়েবে আমীর মুফতী সৈয়দ মুহাম্মাদ ফয়জুল করীম শিক্ষাব্যবস্থাকে আল্লাহ দ্রোহী নাস্তিক্যবাদী বানানোর ষড়যন্ত্রে লিপ্ত বুদ্ধিজীবীদের কঠোর সমালোচনা করেছেন। তিনি বলেন, এদেশের শতকরা ৯৫ ভাগ মুসলমানের চিন্তা-চেতনা অনুযায়ী তাদের সন্তানরা শিক্ষা অর্জন করবে এটাই স¦াভাবিক। ৫ ভাগ সংখ্যালঘু মানুষের জন্য পৃথক পৃথক সিলেবাস হতে পারে, কিন্তু তাদের চিন্তা-চেতনার ও হিন্দুত্ববাদী মুসলমানের সন্তানদের পড়ানো চলবে না। তিনি বলেন, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের ভেতরে নাস্তিক্যবাদী একটি চক্র প্রবেশ করে স্কুলের পাঠ্যপুস্তকে হিন্দুত্ববাদী ও নাস্তিক্যবাদী গল্প কবিতা সংযোজন করেছিল। এদেশের ইসলামপ্রিয় জনতা এর বিরুদ্ধে রাজপথে তীব্র আন্দোলন গড়ে তোলায় এবছরের পাঠ্যপুস্তকে বেশকিছু আপত্তিকর গল্প কবিতা বাদ দেয়া হয় আরো কিছু হয়ে গেছে। কিন্তু সম্প্রতি বিভিন্ন বক্তৃতা ও টেলিভিশনের টকশোতে একশ্রেণীর তথাকথিত বুদ্ধিজীবী এই পরিবর্তনের বিরুদ্ধে কথা বলছে, এমনকি ইসলাম ও মুসলমানদের বিরুদ্ধে নানারকম ধর্মীয় উস্কানি দিচ্ছে। তিনি এসব বুদ্ধিজীবীদের সতর্ক করে দিয়ে বলেন, বাংলাদেশে বসে আমেরিকা ও ভারতের চিন্তাচেতনায় যারা কথা বলেন, তাদের এদেশে থাকার প্রয়োজন নেই। তিনি সরকারের উদ্দেশ্যে বলেন, পাঠ্যসূচির আংশিক পরিবর্তনকে দেশের সংখ্যাগরিষ্ঠ মুসলমানরা স্বাগত জানিয়েছে, তাই গুটিকয়েক ব্যক্তির কথা না শুনে সংখ্যাগরিষ্ঠ মানুষের পক্ষেই থাকুন। তিনি যুব আন্দোলনের দায়িত্বশীলদের দেশ ও জনগণের কল্যাণার্থে এবং অধঃপতিত যুবসমাজকে ইসলামের আলোকে জীবন গড়ার কাজে সম্পৃক্ত করার আহŸান জানান।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ৯৫

১৭ জানুয়ারি, ২০২১

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ