Inqilab Logo

রোববার, ১৬ জানুয়ারী ২০২২, ০২ মাঘ ১৪২৮, ১২ জামাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরী

বিনিয়োগকারীদের প্রতি ডিএসই’র পরামর্শ পুঁজিবাজার ঝুঁকিপূর্ণ, ধারদেনা করে বিনিয়োগ নয়

| প্রকাশের সময় : ২০ জানুয়ারি, ২০১৭, ১২:০০ এএম

অর্থনৈতিক রিপোর্টার : পুঁজিবাজারে বিনিয়োগ সবসময় ঝুঁকিপূর্ণ। তাই বাজারে বিনিয়োগের আগে কোম্পানির মৌলভিত্তি দেখেই বিনিয়োগ করতে হবে। ধার-দেনা করে, পরিবারের মানুয়ের গয়না বেচে, বাড়ির গরু বেচে বিনিয়োগের দরকার নেই। খরচের অতিরিক্ত টাকা পুঁজিবাজারে বিনিয়োগের কথা বলেছেন ডিএসই। গতকাল বৃহস্পতিবার ডিএসইতে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে বিনিয়োগকারীদের প্রতি এই আহ্বান জানানো হয়।
ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) পরিচালক রকিবুর রহমান, বিগত ৫ বছর দেশের অর্থনীতি যে পরিমাণে এগিয়েছে, পুঁজিবাজার সেই গতিতে নিচের দিকে নেমেছে। কিন্তু এই সময়ে পুঁজিবাজারের উন্নয়নে ব্যাপক সংস্কার হয়েছে। যার ফলে দেশি বিদেশি বিনিয়োগকারীদের মধ্যে আস্থা ফিরেছে। তিনি বলেন, পুঁজিবাজারে সূচক ও লেনদেন যেভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে বা পাচ্ছে তাতে ভয়ের কোনো কারণ নেই। তবে মনে রাখতে হবে, পুঁজিবাজারে বিনিয়োগ সবসময় ঝুঁকিপূর্ণ। তাই কোম্পানি সম্পর্কে জেনে বুঝে বিনিয়োগ করতে হবে।
এক প্রশ্নের জবাবে ডিএসই পরিচালক বলেন, সরকারের উচ্চপর্যায় থেকে মনে করছে, দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নের জন্য পুঁজিবাজার বড় অবদান রাখতে পারে। যার ফলে বাজারের প্রতি তাদের ইতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গি তৈরি হয়েছে। সূচক ও লেনদেন বাড়ার কারণ হিসেবে তিনি বলেন, প্রতিদিনই বিনিয়োগকারীরা শেয়ার হাত-বদল করছেন। যার ফলে বাজারের লেনদেন ও সূচক উভয়ই বৃদ্ধি পাচ্ছে।
ডিএসই’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক কেএএম মাজেদুর রহমান জানান, পুঁজিবাজার গতিশীল হয়েছে ও বিনিয়োগকারীদের আস্থা ফিরে এসেছে। একইসঙ্গে দেশি ও বিদেশি নতুন নতুন বিনিয়োগকারীর অংশগ্রহণ বহুগুণে বেড়েছে। পুঁজিবাজারে স্থিতিশীলতার জন্য বিনিয়োগকারীদের সচেতনতার কোনো বিকল্প নেই। এই সচেতনতা বাজারের উন্নয়নের পূর্বশর্ত। এক্ষেত্রে কোনো কোম্পানিতে বিনিয়োগের আগে ওই প্রতিষ্ঠানের শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস), শেয়ারপ্রতি সম্পদ (এনএভিপিএস), মূল্য-আয় অনুপাত (পিই) ও উদ্যোক্তাদের সম্পর্কে খোঁজ  নেওয়া দরকার। পুঁজিবাজার উন্নয়নে বহুজাতিক ও সরকারি কোম্পানি তালিকাভুক্ত করার চেষ্টা করা হচ্ছে বলে জানান মাজেদুর রহমান। আর আগামী সপ্তাহে তালিকাভুক্ত কোম্পানিগুলোর কমপ্লায়েন্স অফিসারদের জন্য প্রশিক্ষণ কর্মসূচি করা হবে। যেখানে বিভিন্ন নিয়ম-কানুন সম্পর্কে অবহিত করা হবে।
সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের পক্ষ থেকে বেশ কিছু সংস্কারমূলক পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে। এছাড়া পুঁজিবাজারের বৈচিত্রতা আনতে বেশ কিছু নতুন প্রোডাক্ট চালু করার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। বিশেষ করে বিনিয়োগকারীদের স্বার্থ রক্ষায় ডিএসই’র পক্ষ থেকে সকল স্টেকহোল্ডারদের বিদ্যমান আইন-কানুন সঠিকভাবে পরিপালনে নির্দেশ দেয়া হয়। সেই সুবাদে বিনিয়োগকারীদের মধ্যে বাজার সম্পর্কে আস্থা ও ইতিবাচক ধারণার সৃষ্টি হয়েছিল। পুঁজিবাজারে প্রতিদিনই পুরাতন বিনিয়োগকারীদের পাশাপাশি নতুন নতুন দেশী-বিদেশী বিনিয়োগকারীদের অংশগ্রহণ বাড়ছে। অর্থনীতিতে পুঁজিবাজারের অবদানের কথা তুলে ধরে জানানা হয়, আমাদের পার্শ্ববর্তী দেশ ভারতের অর্থনীতিতে সেদেশের পুঁজিবাজারের অবদান ৭০ শতাংশ, থাইল্যান্ডে ৪০০ শতাংশ, আর আমাদের দেশে সেটি মাত্র ১৯ শতাংশ। আমাদের অর্থনীতি বড় হচ্ছে।
আর এই বড় অর্থনীতিতে পুঁজিবাজার ভূমিকা রাখতে পারবে বলে বিশ্বাস করি। বহির্বিশ্বের তুলনায় আমাদের বাজার এখনো পিছিয়ে রয়েছে। অর্থনীতিকে এগিয়ে নিতে হলে আমাদের পুঁজিবাজারকেও এগিয়ে নিতে হবে। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন ডিএসইর চেয়ারম্যান বিচারপতি সিদ্দিকুর রহমান মিয়া, স্বতন্ত্র পরিচালক রুহুল আমিন প্রমুখ। এদিকে গতকাল দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে বুধবারের তুলনায় প্রায় ২৯ শতাংশ আর্থিক লেনদেন কমেছে। ডিএসইর সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে। ডিএসইতে ১ হাজার ৪০৮ কোটি ৭৪ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। যার পরিমাণ বুধবার ছিল ১ হাজার ৯৮৯ কোটি ৩৩ লাখ টাকা। এ হিসেবে লেনদেন কমেছে ৫৮০ কোটি ৫৯ লাখ টাকার বা ২৯ দশমিক ১৯ শতাংশ। বৃহস্পতিবার ডিএসইর প্রধান মূল্যসূচক ডিএসইএক্স ০.৫৭ পয়েন্ট বেড়ে ৫৫৩৪.০৭ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। যা আগের দিন ৪১ দশমিক ৯৮ পয়েন্ট কমেছিল।
ডিএসইতে ৩২৮টি কোম্পানির শেয়ার ও ইউনিটের লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে ৯৩টি বা ২৮ শতাংশ কোম্পানির শেয়ার ও ইউনিটের দর বেড়েছে। আর ২০৫টি বা ৬৩ শতাংশ কোম্পানির দর কমেছে এবং ৩০টি বা ৯ শতাংশ কোম্পানির দর অপরিবর্তিত রয়েছে। টাকার অঙ্কে ডিএসইতে সবচেয়ে বেশি লেনদেন হয়েছে বেক্সিমকো’র শেয়ার। এদিন কোম্পানির ৫৬ কোটি ৬ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। লেনদেনে দ্বিতীয় স্থানে থাকা ইফাদ অটোসের ৫২ কোটি ২৯ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। ৪৪ কোটি ৫১ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেনে তৃতীয় স্থানে রয়েছে বারাকা পাওয়ার। লেনদেনে এরপর রয়েছে- আরএকে সিরামিকস, বাংলাদেশ বিল্ডিং সিস্টেমস, সিটি ব্যাংক, লংকাবাংলা ফাইন্যান্স, একমি ল্যাবরেটরিজ, ন্যাশনাল ব্যাংক ও ন্যাশনাল পলিমার।
অন্যদিকে বৃহস্পতিবার অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সিএসসিএক্স সূচক ৬ দশমিক ৯৭ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ১০২৮১ দশমিক ১৩ পয়েন্টে। সিএসইতে ৮৪ কোটি ৭০ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। সিএসইতে লেনদেন হওয়া ২৬৬টি ইস্যুর মধ্যে দর বেড়েছে ৭৬টি’র, কমেছে ১৭০টি’র এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২০টি’র।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: পুঁজিবাজার

২১ ডিসেম্বর, ২০২১
১৪ ডিসেম্বর, ২০২১
১৩ ডিসেম্বর, ২০২১
১০ ডিসেম্বর, ২০২১
৯ ডিসেম্বর, ২০২১

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ