Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার ১৬ জুন ২০১৯, ২ আষাঢ় ১৪২৬, ১২ শাওয়াল ১৪৪০ হিজরী।

সঞ্চয়পত্র বিক্রির ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতা অব্যাহত

| প্রকাশের সময় : ১১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭, ১২:০০ এএম

কর্পোরেট রিপোর্টার : সঞ্চয়পত্র বিক্রির ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতা অব্যাহত রয়েছে। ছয় মাসেই লক্ষ্যমাত্রার ১২০ শতাংশ সঞ্চয়পত্র বিক্রি হয়েছে। জাতীয় সঞ্চয়পত্র অধিদফতরের হালনাগাদ প্রতিবেদনে দেখা যায়, চলতি অর্থবছরের ছয় মাসে সরকারের প্রকৃত সঞ্চয়পত্র বিক্রির পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ২৩ হাজার ৪৭৩ কোটি ৫৬ লাখ টাকা। যা আগের অর্থবছরের একই সময়ে ছিল ১৩ হাজার ৩০৫ কোটি ৫৯ লাখ টাকা। সে হিসেবে চলতি অর্থবছরের প্রথম ছয় মাসে সঞ্চয়পত্র বিক্রি বেড়েছে ৭৬ দশমিক ৪১ শতাংশ। প্রতিবেদনে আরও দেখা যায়, সরকার চলতি ২০১৬-১৭ অর্থবছরে ১৯ হাজার ৬১০ কোটি টাকার সঞ্চয়পত্র বিক্রির লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছে। অর্থাৎ ছয় মাসেই লক্ষ্যমাত্রার ১২০ শতাংশ অর্জিত হয়েছে। অর্থনীতি বিশ্লেষকদের মতে, বর্তমানে ব্যাংকগুলো আমানতে ৫-৭ শতাংশ সুদহার নির্ধারণ করেছে। এ পরিস্থিতিতে তুলনামূলক সুদহার সঞ্চয়পত্রে বেশি রয়েছে।
বর্তমানে পরিবার সঞ্চয়পত্রে (পাঁচ বছর মেয়াদি) ১১ দশমিক ৫২ শতাংশ, পেনশনার সঞ্চয়পত্রে (পাঁচ বছর মেয়াদি) ১১ দশমিক ৭৬ শতাংশ, ডাকঘর সঞ্চয়পত্র (তিন বছর মেয়াদি) ১১ দশমিক ২৮ শতাংশ। ব্যাংকের আমানতে সুদহার কম ও বিনিয়োগের কাক্সিক্ষত পরিবেশ না থাকায় সঞ্চয়পত্র বিক্রির ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতা অব্যাহত রয়েছে। দেশের ক্ষুদ্র উদ্যোক্তারা এখন আর সাহস নিয়ে কোনো বিনিয়োগে যাচ্ছেন না। এতে পুরো অর্থবছরের লক্ষ্যমাত্রা ছয় মাসেই অতিক্রম করেছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: সঞ্চয়পত্র


আরও
আরও পড়ুন