Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১০ আশ্বিন ১৪২৫, ১৪ মুহাররাম ১৪৪০ হিজরী‌

কোহলির সাফল্যের মুকুটে আরেকটি পালক

মুশফিকুরের অটোগ্রাফ নিলেন অশ্বিন

| প্রকাশের সময় : ১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭, ১২:০০ এএম

বিশেষ সংবাদদাতা হায়দারাবাদ (ভারত) থেকে : এক মৌসুমে হোমে টেসেট সর্বাধিক রানের বিশ্বরেকর্ডটি গড়েছেন ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলী। ২০০৪-৫ মৌসুমে শেবাগের ১১০৫ রানের রেকর্ডকে ছাড়িয়ে ৯ টেস্টে ১২০৬ রানে করে ফেলেছেন বিশ্বরেকর্ড। শুধু তাই নয়, সিরিজ প্রতি নামতা গুনে একটি করে ডাবল সেঞ্চুরির সংখ্যাটি ৪ এ উন্নীত করেছেন কোহলী হায়দারাবাদ টেস্টে এসে। রাহানের সঙ্গে ২২২ রানের জুটিতে নেতৃত্ব দিয়ে শচীন-সৌরভের ৩টি ডাবল সেঞ্চুরির পার্টনারশিপের রেকর্ডও করেছেন স্পর্শ। হায়দারাবাদ টেস্ট জিতে টানা ১৯ টেস্টে অপরাজেয় থাকার রেকর্ডেও ইতিহাস হয়ে গেলে ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলীর। ১৯৮২-৮৪ এই সময়ের মধ্যে সর্বাধিক ২৭ টেস্টে অপরাজিত থেকে বিশ্বরেকর্ড এখনো ওয়েস্ট ইন্ডিজের। তবে ২০১৫ সালে নেতৃত্ব পেয়ে ২ বছরের মধ্যে টানা ১৯ টেস্টে কোহলীর নেতৃত্বাধীন ভারত টেস্ট দল অপারাজেয়, যে রেকর্ডে সুনীল গাভাস্কার, কপিল দেবকে ছাড়িয়ে গেছেন কোহলী। ১৯৭৬-৮০, এই ৪ বছরে ১৮টি টেস্ট অপরাজিত থেকে ইতঃপূর্বে ভারতের সেরা সফল টেস্ট অধিনায়কের রেকর্ডটা গতকাল ভেঙ্গেছেন কোহলি।

এত্তো এত্তো অর্জন যার ঝুলিতে সেই কোহলিও বাংলাদেশকে হারিয়ে তৃপ্তির ঢেঁকুড় তোলার রআগে প্রশংসাবানে ভাসিয়েছেন মুশফিকদের। অবশ্য সস্তা প্রশংসায় বাংলাদেশকে না ভাসিয়ে, অতি বাস্তবতাটাই তুলে ধরলেন ভারত অধিনায়ক। দ্বিতীয় ইনিংসের কথা বলতে গিয়ে ভারত অধিনায়ক বলেন, ‘আমি আগেও বলেছি যে এটা ছিল দরুণ একটি উইকেট। যদি আপনি এখানে ব্যাসিক ক্রিকেট খেলতে পারেন, তাহলে স্কোর করা সম্ভব। আমি আশা করিনি- তারা ২০০ কিংবা ২৫০ রানের মধ্যে আউট হয়ে যাবে।’
২৫০ রানে বাংলাদেশ অলআউট হওয়ার কারণে কোহলি কিছুটা বিস্মিতও হয়েছেন বলতে গেলে। কারণ তিনি জানেন বাংলাদেশ দলে বেশ কিছু ভালো ব্যাটসম্যান রয়েছে। নিউজিল্যান্ডে বাংলাদেশের পারফরম্যান্সের ফিরিস্তিও টানেন তিনি। কোহলি বলেন, ‘তাদের বেশ কিছু ভালো ব্যাটসম্যান রয়েছে। নিউজিল্যান্ডে ৫৮০’র ওপর রান করেছে। সুতরাং আপনি যখন জানেন, এটা ব্যাট করার জন্য একটা ভালো উইকেট, তখন অবশ্যই তাদের মধ্যে কিছু আত্মবিশ্বাস থাকা উচিত ছিল। যদিও তারা সেটা দেখানোর চেষ্টা করেছে।’ প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশ ভালো ব্যাট করেছে বলে বিশ্বাস করেন কোহলি। তিনি বলেন, ‘প্রথম ইনিংসে ভালো ব্যাট করেছে বাংলাদেশ। এই ম্যাচে প্রথম ইনিংসেই তারা যা লড়াইটা দেখাতে পেরেছিল। এরপর নয়।’
টেস্ট শুরুর আগের দিনই বাংলাদেশের বেশি বেশি টেস্ট খেলার পক্ষে সাফাই গেয়েছিলেন কোহলি। একই সঙ্গে জানিয়ে রেখেছিলেন, ভারতে বাংলাদেশকে আরও স্বাগত জানাতে পারলে তারই ভালো লাগতো। কোহলির এই কথার জেরেই এখন ভবিষ্যতে ভারতের মাটিতে আরো টেস্ট আশা করতেই পারে বাংলাদেশ।
কোহলির রেকর্ডময় ম্যাচে বিশ্বরেকর্ড করেছেন ভারতের অফ স্পিনার অশ্বিনও। ৪৫ টেস্টে আড়াইশ’ টেস্ট উইকেটে অস্ট্রেলিয়ার ডেনিস লিলির রেকর্ড ভেঙে আড়াইশ’ উইকেট ক্লাবে দ্রæততম এখন অশ্বিন। বিশ্বরেকর্ডের বলটি সযতেœ রেখে দিয়েছেন অশ্বিন। আড়াইশ’তম উইকেটটি তার মুশফিকুর রহিমের। সে কারণেই গতকাল পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান শেষে ঐতিহাসিক ওই বলের উপর মুশফিকুর রহিমের অটোগ্রাফ নিয়েছেন অশ্বিন।

 

হায়দারাবাদ টেস্টে বাংলাদেশ

ব্যাটিং ইনিংস রান সর্বোচ্চ গড় স্ট্রাইক ১০০/৫০
মুশফিক ২ ১৫০ ১২৭ ৭৫.০০ ৪৯.০১ ১/০
সাকিব ২ ১০৪ ৮২ ৫২.০০ ৬৭.৯৭ ০/১
রিয়াদ ২ ৯২ ৬৪ ৪৬.০০ ৪৪.৬৬ ০/১
মিরাজ ২ ৭৪ ৫১ ৩৭.০০ ৪৪.০৪ ০/১
সৌম্য ২ ৫৭ ৪২ ২৮.৫০ ৫৮.৭৬ ০/০
মুমিনুল ২ ৩৯ ২৭ ১৯.৫০ ৫৮.৭৬ ০/০
সাব্বির ২ ৩৮ ২২ ১৯.০০ ৩৯.৫৮ ০/০
তামীম ২ ২৭ ২৪ ১৩.৫০ ৪২.১৮ ০/০
তাইজুল ২ ১৬ ১০ ৮.০০ ২৫.৮০ ০/০
তাসকিন ২ ৯ ৮ ৪.৫০ ২১.৪২ ০/০
রাব্বি ২ ৩ ৩* - ৩.৭৫ ০/০

বোলিং ইনিংস উইকেট ইনি.সেরা ম্যাচসেরা গড় ইকো.
তাসকিন ২ ৩ ২/৪৩ ৩/১৭০ ৫৬.৬৬ ৫.৩১
তাইজুল ২ ৩ ৩/১৫৬ ৩/১৮৫ ৬১.৬৬ ৩.৪৯
সাকিব ২ ২ ২/৫০ ২/১৫৪ ৭৭.০০ ৪.৬৬
মিরাজ ২ ২ ২/১৬৫ ২/১৯৭ ৯৮.৫০ ৪.২০
*কমপক্ষে একটি উইকেট পাওয়া বোলার



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর