Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ১৬ অক্টোবর ২০১৯, ০১ কার্তিক ১৪২৬, ১৬ সফর ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

চীনে স্টেম সেল থেকে তৈরি হলো ইঁদুরের শুক্রাণু

প্রকাশের সময় : ২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬, ১২:০০ এএম

ইনকিলাব ডেস্ক : চীনা বিজ্ঞানীরা ইঁদুরের ভ্রƒণসংশ্লিষ্ট স্টেম সেল থেকে সক্রিয় শুক্রাণু তৈরি করতে সক্ষম হয়েছে। পরে এই শুক্রাণু নারী ইঁদুরের ডিম্বকোষে প্রতিস্থাপন করার পর দেখা গেছে তা স্বাভাবিক প্রক্রিয়ায় বিকশিত হচ্ছে এবং শিশু ইঁদুর জন্মের উপযোগী হয়ে উর্বরতা লাভ করছে। চীনা বিজ্ঞানীদের এই সাফল্যের পর বিশেষজ্ঞরা সতর্কতা আরোপ করে বলেছেন, স্টেম সেল থেকে শুক্রাণু তৈরির এই প্রক্রিয়া মানবদেহে প্রয়োগ করার জন্য এখনো অনেক পথ পাড়ি দিতে হবে। একই সাথে তারা আশাবাদ ব্যক্ত করে বলেন, স্টেম সেল নিয়ে ভ্রƒণ তৈরির এই গবেষণা একদিন নিঃসন্তান পুরুষদের চিকিৎসায় বড় ধরনের অবদান রাখবে।
প্রাথমিক পর্যায়ে ইঁদুরের ত্বক থেকে নেয়া স্টেম সেল ব্যবহার করে ডিম্বাণু সৃষ্টি করেন বিজ্ঞানীরা। গবেষণাগারে তৈরি ডিম্বাণুকে পুরুষ ইঁদুরের শুক্রাণু প্রয়োগ করে নিষিক্ত করা হয়। পরিপক্ক হবার পর তা জন্ম দেয় সুস্থ-সবল ইঁদুর ছানার। আর বড় হবার পর সাধারণ ইঁদুরের মতোই বংশবৃদ্ধি করে বিজ্ঞানীদের চমকে দেয় স্টেম সেল থেকে জন্ম নেয়া ইঁদুরগুলো। একই প্রযুক্তি ব্যবহার করে সন্তান জন্মদানে অক্ষম দম্পতিরা সন্তান পেতে পারেন বলে দাবি করেছেন গবেষকরা। তবে এই প্রযুক্তি মানব শরীরে ব্যবহারের আগে পেরিয়ে আসতে হবে বৈজ্ঞানিক এবং নৈতিক প্রতিবন্ধকতা। স্টেম সেল থেকে তৈরি প্রাথমিক পর্যায়ের ইঁদুরের ডিম্বানুগুলোর চারপাশে বিজ্ঞানীরা তৈরি করেন একটি ডিম্বাশয়। তারপর একটি মেয়ে ইঁদুরের শরীরে প্রতিস্থাপন করা হয় ডিম্বাশয়টি। এরপর পুরুষ ইঁদুরের শুক্রাণু প্রয়োগ করা হয় ডিমগুলোতে। এরপর ওই ডিমগুলো আবার প্রতিস্থাপন করা হয় মা ইঁদুরের শরীরে।
কিয়োটো ইউনিভার্সিটির বিজ্ঞানী ড. কাতসুহিকো হায়াশি বলেন, স্টেম সেল থেকে তৈরি ওই ডিমগুলো পরিণত হয় সুস্থ-সবল ইঁদুর ছানায়। মজার ব্যাপার হচ্ছে, সাধারণ ইঁদুরের মতোই বংশবৃদ্ধি করে ওই ইঁদুরগুলো। সে দৃষ্টিকোণ থেকে স্টেম সেলগুলোকে ইঁদুর ছানাগুলোর দাদু বললেও ভুল হবে না। বিজ্ঞানীদের এই গবেষণার চূড়ান্ত লক্ষ্য হচ্ছে, সন্তানহীন দম্পতিদের সাহায্য করা। তবে ইঁদুরের শরীরে যে প্রযুক্তি ব্যবহার করা সম্ভব হয়েছে, মানুষের শরীরে যে হুবহু একই প্রযুক্তি হয়তো ব্যবহার করা সম্ভব হবে না। মানব শরীরের প্রজনন ব্যবস্থার অনেককিছুই এখনও বিজ্ঞানীদের অজানাই রয়ে গেছে। তাই স্টেম সেলের প্রযুক্তি ব্যবহার করে মানবশিশু জন্মদানে বিজ্ঞানীদের পেরিয়ে আসতে হবে অনেকটা পথ। এছাড়া ধর্মীয় প্রতিবন্ধকতাও পেরোতে হবে। এএফপি, বিবিসি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ