Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০১৯, ০১ শ্রাবণ ১৪২৬, ১২ যিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী।

পরিবহন ধর্মঘটে অচল খুলনা বিভাগের ১০ জেলা

খুলনা ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭, ১০:৫০ এএম

পরিবহন ধর্মঘটে অচল হয়ে পড়েছে খুলনা বিভাগের ১০ জেলার সড়ক যোগাযোগ।
মানিকগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনায় মিশুক মুনীর ও তারেক মাসুদসহ ৫ জন নিহতের মামলায় বাসচালকের যাবজ্জীবন কারাদণ্ডাদেশের প্রতিবাদে রোববার (২৬ ফেব্রুয়ারি) ভোর থেকে খুলনা বিভাগের কোনো রুটে পরিবহন চলাচল করছে না।
টার্মিনাল ও স্টপেজগুলোতে বাস-ট্রাকসহ অন্য যানবাহন ঠায় দাঁড়িয়ে রয়েছে। ফলে থমকে গেছে জনজীবন। সীমাহীন দুর্ভোগে পড়েছেন সাধারণ মানুষ।
ধর্মঘটের দ্বিতীয় দিন সোমবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) খুলনার সোনাডাঙ্গা বাস টার্মিনাল থেকে কোন বাস ছাড়েনি। এছাড়া ট্রাক টার্মিনালসহ সকল ব্যবসায়ী এলাকার মালামাল পরিবহনও বন্ধ রয়েছে। মংলা, বেনাপোল ও ভোমরা বন্দর অচল হয়ে পড়েছে। সরবরাহ না থাকায় কাঁচাবাজার, জ্বালানি তেল, গ্যাস, নিত্যপণ্যসহ অন্যান্য জিনিসপত্রে বাড়তে শুরু করেছে দাম। ট্রাকে আটকরা পরা কাঁচামালে পচন ধরায় মাথায় হাত পড়েছে কৃষকসহ সহ শ্রেণীর ব্যবসায়ীদের।
মহানগরীর খালিশপুর তেল ডিপো থেকে জ্বালানি তেল সংগ্রহ করতে আসা সব ট্যাঙ্কলরি এই ধর্মঘটে অংশ নিয়েছে। যে কারণে বিভাগে জ্বালানি তেল সংকট দেখা দিয়েছে।
এদিকে সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশন খুলনা বিভাগীয় আঞ্চলিক কমিটির ডাকা অনির্দিষ্টকালের এ ধর্মঘটের বিরুদ্ধে ক্ষিপ্ত হয়ে উঠেছেন সাধারণ মানুষ।
তারা বলছেন, আদালত রায় দিয়েছে তার খেসারত জনগণকে কেন ভোগ করতে হবে। তারা দ্রুত পরিবহন ধর্মঘটের অবসান চান।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন