Inqilab Logo

ঢাকা সোমবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৬ আশ্বিন ১৪২৭, ০৩ সফর ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

বোলিংয়ে ভারত ঘায়েলের লক্ষ্য পাকিস্তানের

প্রকাশের সময় : ২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬, ১২:০০ এএম

বিশেষ সংবাদদাতা : এশিয়া কাপে ভারত-পাকিস্তানের লড়াই এখনো টাই, ১১টি মুখোমুখি লড়াইয়ে ৫-৫ এ সমতা। এশিয়া কাপে ঢাকায় পাক-ভারতের লড়াইও ড্র, ২-২ এ। তবে ম্যাচটি যখন টুয়েন্টি-২০, তখন হেড টু হেডে কিন্তু এগিয়ে ভারত। সংক্ষিপ্ত ভার্সনের ক্রিকেটে দু’দলের মুখোমুখি লড়াইয়ের ফল ৪-১! তবে অতীত রেকর্ডস ভাবাচ্ছে না পাকিস্তান অধিনায়ক শহীদ আফ্রিদিকেÑ‘অতীতে ভারতের বিরুদ্ধে কি করেছি সেটা নিয়ে আমি চিন্তা করছি না। কারণ আমি অতীত আঁকড়ে থাকি না। দলের পরিকল্পনা অনুসারেই আমরা খেলতে চাই।’
এশিয়া কাপকে সামনে রেখে পাকিস্তানের সব ক্রিকেটার জড়ো হয়ে প্রথম অনুশীলন করেছে গতকাল। তবে সম্প্রতি দুবাইয়ে অনুষ্ঠিত পাকিস্তান সুপার লীগ ( পিএসএল) এশিয়া কাপ টি-২০’র আদর্শ অনুশীলনের উপায় করে দিয়েছে পাকিস্তান ক্রিকেটারদের। এশিয়া কাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে চিরপ্রতিদ্ব›দ্বীকে হারানোর টনিক পাচ্ছেন আফ্রিদিÑ‘পিএসএলে আমরা ভিন্ন ভিন্ন ফ্র্যাঞ্চাইজির হয়ে খেলেছি, সেটা বড় কোনো সমস্যা হবে। কারণ সবাই একসঙ্গেই ছিল এবং সব সময় সবার সঙ্গেই থাকে। আমরা এই দিনটির সদ্ব্যবহার করতে চাই, কারণ আগামীকাল (আজ) অনেক বড় ম্যাচ আছে।’
টুয়েন্টি-২০ ক্রিকেটে ভারতের প্রধান শক্তি ব্যাটিং। তার সঙ্গে দ্বিমত পোষণ করছেন না আফ্রিদি। তবে আমির, ইরফান, ওয়াহাব রিয়াজদের মতো পেস অস্ত্র মজুদ যাদের, সেই অস্ত্র দিয়েই ভারতকে ঘায়েলের ছক আঁকছে পাকিস্তান। সে পরিকল্পনার কথাই জানিয়েছেন আফ্রিদিÑ‘ ভারত ব্যাটসম্যানরা সাধারণত স্পিনারদের ভাল খেলে। তাছাড়া তাদের বেশ কিছু খেলোয়াড় এখন দারুণ ফর্মে। তবে আমাদের পেস বোলাররাও এখন বেশ ভাল অবস্থায় আছে, আমির, ইরফান বা ওয়াহাব যে কারো দিন হতে পারে। আমি জানি তাদের ব্যাটিং শক্তিশালী, কিন্তু আমাদেরও দুর্দান্ত বোলিং আক্রমণ আছে। আমি আশা করছি ফলাফল আমাদের জন্য বেশ ভালই হবে।’
প্রথম ৬ ওভারে ভারত টপ অর্ডাররা বিপজ্জনক। সেখানেই ধাক্কা দিতে চান আফ্রিদিÑ‘এ ধরনের কন্ডিশনে পেস বোলাররা অবশ্যই বড় ভূমিকা রাখে। আমরা চারজন পেসার পেয়েছি দলে এবং তারা উইকেট শিকারের বিবেচনায় ভাল ক্রিকেটার। আমাদের ফাস্ট বোলাররা শুরুর ৬ ওভারের সদ্ব্যবহার করতে চেষ্টা করবে এবং চেষ্টা করবে ব্যাটসম্যানদের ফেরত পাঠাতে।’
পিএসএল খেলে ব্যাটিংটা মেরামত করে ফেলেছে পাকিস্তান ব্যাটসম্যানরা। ব্যাটিংয়ের মৌলিক দিকগুলো ঠিক রেখে খেলার বার্তা দিয়েছেন তিনি টিমমেটদেরÑ ‘তারা খুব ভাল স্কোর করতে চাইবে এবং আমাদেরও ব্যাটিংয়ে শক্ত দিক আছে। কারণ তারা সবাই পিএসএল খেলে ভাল অবস্থায় আছে। আমি শুধু আশা করব যেন আমরা নিজেদের ভুলগুলোর পুনরাবৃত্তি না করি এবং নিজেদের মৌলিক বিষয়গুলো ধরে রাখতে পারি।’
এশিয়া কাপ থেকে পাকিস্তান যে দু’বার ট্রফি জিতেছে, সেই দু’বারই কিন্তু ঢাকা থেকেÑ২০০০ এবং ২০১২ সালে। ঢাকায় অনুষ্ঠিত এশিয়া কাপের সর্বশেষ তিন আসরের তিনটিতেই ফাইনালিস্ট পাকিস্তান। বাংলাদেশের মাটি থেকে অতীতের সাফল্য থেকে টনিক নিতে চান আফ্রিদিÑ‘বাংলাদেশে খেলা সবসময়ই আমার জন্য অনেক বড় একটি ব্যাপার। আশা করছি এবারও এখানে ক্রিকেট উপভোগ করব। আমি এখানে থাকাটা এবং স্থানীয়দের আতিথেয়তা উপভোগ করেছি।’
টেস্ট,ওয়ানডে থেকে নিয়েছেন অবসর। টুয়েন্টি-২০ আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে স্বেচ্ছা অবসরের অপেক্ষায় এখন তিনি। ক্যারিয়ারের সায়াহ্নে দাঁড়িয়ে তাই দারুন সমাপ্তির লক্ষ্য বুম বুম খ্যাত আফ্রিদিরÑ‘সব সময়ই চেষ্টা করি সেটা করার এবং নিজের পারফর্মেন্সের দিকে মনোযাগী থাকি। কারণ আমি জানি এটা আমার দলের জন্য কতটা জরুরী। আমার মূল শক্তি বোলিং। কিন্তু আমি জানি যেখানে আমি ব্যাট করি সেখান থেকেও দলের জন্য কিছু অবদান রাখতে পারি। দলের জন্য ২০-৩০ রান করতে পারলে সেটাও হবে আমার জন্য জরুরী। অবসর নেয়ার বিষয়টির চেয়েও এই এশিয়া কাপ ও বিশ্বকাপটা অনেক জরুরী বলে আমার জন্য। এখন আমি এ দুটি টুর্নামেন্টের ওপরই বেশি মনোযোগী।’
রাজনীতির মারপ্যাচে পাক-ভারতের দ্বি-পাক্ষিক সিরিজ এখন অনিশ্চয়তার আবর্তে। সেখান থেকে বেরিয়ে আসার আহŸান আফ্রিদিরÑ‘ক্রীড়া সবসময়ই দেশসমূহের মধ্যে ভাল সম্পর্ক গড়ে তোলে। পাকিস্তানের মানুষ ভারতের ক্রিকেটারদের পাকিস্তানে দেখতে চায় এবং একইভাবে ভারতীয়রাও পাকিস্তান ক্রিকেট দলকে তাদের ওখানে খেলতে দেখতে চায়। খেলাতে রাজনৈতিক রং ছড়ানো উচিত নয় কারো। মানুষের চাহিদা বিবেচনা করা উচিত। সবসময়ই এ বার্তা দিতেই চেষ্টা করি। আমাদের সরকার সবসময় এ ব্যাপারে প্রথম পদক্ষেপটা নিয়ে থাকে।’
নিরপেক্ষ ভেন্যু মিরপুর শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামে পাক-ভারতের ক্রিকেট যুদ্ধকে সামনে রেখে সম্প্রীতির বার্তাও দিয়ে গেলেন আফ্রিদি।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: বোলিংয়ে ভারত ঘায়েলের লক্ষ্য পাকিস্তানের
আরও পড়ুন