Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ২১ অক্টোবর ২০১৭, ০৬ কার্তিক ১৪২৪, ৩০ মুহাররম ১৪৩৯ হিজরী

সুস্থ থাকতে নিয়মিত সবুজ সবজি খান

| প্রকাশের সময় : ৮ মার্চ, ২০১৭, ১২:০০ এএম

বর্তমানে মহিলারা নিজের স্বাস্থ্য সম্পর্কে যথেষ্ট সচেতন। সারা দিন কাজে ব্যস্ত থাকার পরও নিজের স্বাস্থ্য নিয়ে কোন ঝুঁকি নিতে নারাজ আজকের মহিলারা। কিন্তু সম্প্রতি এক সমীক্ষায় প্রকাশ, বর্তমানে মহিলারা কর্মরতই হোক বা গৃহিণীই হোক, খাওয়া-দাওয়ার প্রতি মোটেও নজর দেন না। কিন্তু এর অর্থ এই নয় যে তারা খাবার খান না। খান, তবে হাতের সামনে যা পান তা খান। যার ফলে মেদবহুলতা ও এর সঙ্গে যুক্ত নানা সমস্যা বাসা বাঁধে তাদের শরীরে। এই সমস্যা থেকে রেহাই পেতে সবচেয়ে সহজ উপায় হিসেবে মহিলারা ডায়েটিং শুরু করে দেন বা হেলথ ক্লাবে যোগ দেন। কিন্তু সঠিক জ্ঞানের অভাবে এতে অনেক সময় হিতে বিপরীত হতে দেখা যায়। মনে রাখবেন, ডায়েটিং এই সমস্যার সমাধান নয়। বরং যা খাচ্ছেন তার ওপর নজর দিন। তাই গ্রিন ডায়েটের ওপর গুরুত্ব দিন। ডাক্তারদের মতেও সবুজ শাকসবজি যদি বিভিন্ন প্রকারে খাওয়া যায়, তবে স্বাদ তো বাড়েই, পাশাপাশি এর থেকে শক্তি ও পুষ্টিও পাওয়া যায় যথেষ্ট। সব মহিলাই সুন্দর থাকতে চান। এজন্যই একাংশ মহিলা অতিরিক্ত ওজন কমাতে প্রথমেই ডায়েটিং শুরু করে দেন। তবে মনে রাখবেন বাহ্যিক সৌন্দর্য ক্ষণস্থায়ী। তাই আপনাকে সুন্দর হতে হবে ভেতর থেকেও। অর্থাৎ সুন্দরের পাশাপাশি সুস্থ থাকাও অতি জরুরি। তাই যত পারবেন সবুজ শাকসবজি খান। পালং, মেথি, সরষে, শালগম, লেটুস পাতা, বাঁধাকপি ইত্যাদি। সবুজ শাকসবজিতে করোটিনোটটসি পাওয়া যায়। যা অ্যান্টি অক্সিডেন্ট। অ্যান্টি অক্সিডেন্ট আমাদের শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। গ্রিন ডায়েটের আরেকটি ইতিবাচক দিক হল, এর ফলে শরীরে স্বতঃর্স্ফূততা বজায় থাকে। সবুজ শাকসবজি খেলে ত্বকের জেল্লা বাড়ে। ফলে মহিলাদের আকর্ষণীয় দেখায়। আর সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ কথাটি হল, গ্রিন ডায়েটে মোটেই ফ্যাটস থাকে না। ফলে মেদ বহুলতা নিয়ন্ত্রণে থাকে। এর ফলে হৃদরোগের ঝুঁকিও যথেষ্ট কম হয়। সবুজ শাকসবজি রোজ খেলে মহিলাদের শরীরের ক্যালসিয়ামের অভাব হয় না। ফলে হাড় ফ্র্যাকচারের সম্ভাবনাও কমে। স্যালাডের মতোই ব্যবহার করুন সবজিকেও। এরমধ্যে ব্রকোলি, পালং, টমেটো, পেঁয়াজ, পেঁয়াজকলি, বাঁধাকপি, ধনে পাতা, ক্যাপসিকাম ইত্যাদি ব্যবহার করুন। সালাডে স্বাদের জন্য অলিভ অয়েল, মাস্টার্ডসস বা ক্রিম ব্যবহার করতে পারেন। ফাইবার শরীরের জন্য অতি জরুরি।
প্রতিদিন অন্তত ১০ থেকে ১৫ গ্রাম ফাইবার শরীরে প্রয়োজন হয়। ফাইবারের সঠিক মাত্রা এমন-কি ক্যানসার রোগও প্রতিরোধ করতে পারে। এছাড়াও সবুজ শাকসবজিতে ফোলিক অ্যাসিড পাওয়া যায় যা ডিপ্রেশনের মতো মারাত্মক রোগ থেকে বাঁচায়। শাকসবজি কাঁচা খেতে হয়। শাকসবজি সিদ্ধ করলে তার পুষ্টি চলে যায়। তাই খাবার আগে শাকসবজি ভালোমতো ধুয়ে পরিষ্কার করে নিন যাতে তা ব্যাকটেরিয়া মুক্ত হতে পারে। মনে রাখবেন গ্রিন ভেজিটেবল শুধু আপনাকে ফিট রাখতেই মদত করে না, এর ফলে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাও বাড়ে। রোজ স্যালাড খান। স্যালাড বানাতে হলে পরিষ্কার করে ধুয়ে নেওয়া পাতাযুক্ত সবজি ব্যবহার করুন। স্যালাডে অলিভ অয়েল ও তাজা লেবুর রস ব্যবহার করুন। সকালে ব্রেকফাস্ট করার সময়ও সবজির জুস খেতে পারেন। যেমন টমেটো, গাজর, শশা ইত্যাদি। স্বাদের জন্য জোসে নুন, গোলমরিচ অথবা জোয়ান ব্যবহার করুন। দুপুরের খাবারের সঙ্গে সুপ খান। যেমন পালং, কর্ন, টমেটো বা মিক্সড ভেজিটেবল সুপ খেতে পারেন। এতে শরীরের ওজন কমবে। চাল, ময়দা ও চিনি জাতীয় সামগ্রী কম খাবেন। এছাড়া রোজই জীবনে কিছু নতুন পরিবর্তন আনুন। রোজ অন্তত ঘণ্টা খানেক হাঁটুন। জাংক ফুড থেকে তো একেবারেই দূর থাকুন। সপ্তাহে একদিন শুধু ফলমূল খেয়ে থাকুন। দু-তিন মাস পরই পরিবর্তন আপনি নিজেই দেখতে পাবেন।
আফতাব চৌধুরী
সাংবাদিক- কলামিস্ট

 


দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।