Inqilab Logo

সোমবার, ০২ আগস্ট ২০২১, ১৮ শ্রাবণ ১৪২৮, ২২ যিলহজ ১৪৪২ হিজরী

মাদক, সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে বক্তব্য না রাখলে ওয়াজ মাহফিল বন্ধ করে দেয়া হবে-খুলনা রেঞ্জ ডিআইজি

| প্রকাশের সময় : ১১ মার্চ, ২০১৭, ১২:০০ এএম

আক্তারুজ্জামান বাচ্চু, সাতক্ষীরা থেকে : ওয়াজ মাহফিলে বাধ্যতামূলক মাদক, সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে বক্তব্য রাখতে হবে, না হলে ওইসমস্ত সভা-সমাবেশ বন্ধ করে দেয়া হবে। স্কুল-কলেজ, মসজিদ-মাদরাসাসহ পাড়া-মহল্লায় সবখানে এসবের বিরুদ্ধে আলোচনা করতে হবে। মাদক বিক্রেতা ও সেবনকারীদের চিহ্নিত করে তাদের ভালো পথে আনার চেষ্টা করতে হবে।
 ‘মাদক ও জঙ্গিবাদের প্রতিকার, বাংলাদেশ পুলিশের অঙ্গীকার’ এই সেøাগান নিয়ে শুক্রবার বিকেলে  অনুষ্ঠিত হলো র‌্যালি, আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। শহীদ আব্দুর রাজ্জাক পার্কে অুনষ্ঠিত আলোচনা সভায় জেলা পুলিশ সুপার আলতাফ হোসেন পিপিএম বার-এর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন খুলনা রেঞ্জ ডিআইজি এস এম মনির উজ-জামান বিপিএম। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন সাবেক জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মুনছুর আহমেদ, বর্তমান জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম, জেলা প্রশাসক আবুল কাশেম মো. মহিউদ্দিন, পৌর মেয়র তাজকিন আহমেদ চিশতী, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান বাবু, সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি অধ্যক্ষ আবু আহমেদ, প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক আবদুুল বারী প্রমুখ। এ ছাড়া সংরক্ষিত মহিলা এমপি রিফাত আমিন, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও সমাজসেবক ডা: আবুল কালাম বাবলা, পুলিশের অন্যান্য কর্মকর্তাসহ  গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি খুলনা রেঞ্জ ডিআইজি এস এম মনির উজ-জামান বিপিএম বলেন, মাদক, সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদমুক্ত  রাষ্ট্র গঠনে নিজ নিজ পরিবার থেকেই আন্দোলন শুরু করতে হবে। ঐক্যবদ্ধ আন্দোলনের মাধ্যমে সমাজ থেকে, দেশ থেকে মাদক ও জঙ্গিবাদ নির্মূল করতে হবে। তিনি আরো বলেন, দেশ যখন বিশ্বে মাথা উঁচু করে দাঁড়িয়েছে, তখন এদেশের শত্রæরা তা বাধাগ্রস্ত করতে দেশে মাদক, সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদের সৃষ্টি করছে। এদের কঠোর হাতে দমন করার জন্য পুলিশকে সহযোগিতা করতে সকলকে এগিয়ে আসতে হবে। সকলের সহযোগিতায় এসব মুক্ত করা সম্ভব বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।
সাতক্ষীরা থানা পুলিশের আয়োজনে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি আগামী ১০ দিনের মধ্যে সাতক্ষীরার মাদকসেবী ও বিক্রেতাদের পুলিশের কাছে আত্মসমর্পণ করে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসার আহŸান জানান। এ বিষয়ে জেলা প্রশাসক ও পুলিশ প্রশাসন তাদেরকে সার্বিক সহযোগিতা করবেন বলেও ঘোষণা দেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন