Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৮ আশ্বিন ১৪২৫, ১২ মুহাররাম ১৪৪০ হিজরী‌

আরেক ধাপ বেতন বাড়াতে অর্থমন্ত্রীর বৈঠক আজ

| প্রকাশের সময় : ১২ মার্চ, ২০১৭, ১২:০০ এএম

অর্থনৈতিক রিপোর্টার : সরকারি চাকরিজীবীদের বেতন-ভাতা আরেক ধাপ বাড়ানোর প্রক্রিয়া শুরু করেছে সরকার। ২০১৫ সালের ১ জুলাই থেকে বেতন আর ২০১৬ সালের ১ জুলাই থেকে ভাতা প্রায় দ্বিগুণ বাড়ানোর পর এই উদ্যোগ নিতে যাচ্ছে অর্থ মন্ত্রণালয়।
এ বিষয়ে আজ রোববার বৈঠক ডেকেছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। অষ্টম বেতন কমিশনের ঘোষণা ছিল, মূল্যস্ফীতির চাপ আমলে নিয়ে প্রতি বছর যৌক্তিক পরিমাণ বেতন বাড়ানো হবে। সেই ঘোষণা অনুযায়ী, আগামী জুনের মধ্যে সরকারি চাকরিজীবীদের বেতন-ভাতা কিছুটা বাড়বে। এ ক্ষেত্রে বার্ষিক ইনক্রিমেন্ট চলমান ৫ শতাংশ থেকে বাড়িয়ে ৮ শতাংশ করার আভাস দিয়েছে অর্থবিভাগ।
অর্থ মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, রোববার (আজ) এ সংক্রান্ত কমিটির বৈঠক ডেকেছেন অর্থমন্ত্রী। বৈঠকে এ বিষয়ে প্রাথমিক আলোচনা হবে। সে ক্ষেত্রে আসছে বাজেটের বরাদ্দ বাড়ানোর মতো বিষয়ও থাকবে। এ জন্য জুনে নতুন বাজেট ঘোষণার আগেই এ ব্যাপারে কিছু সিদ্ধান্তে পৌঁছাতে চায় সরকার। এর আগে ২০১৫ সালের ৭ সেপ্টেম্বর সর্বোচ্চ ৭৮ হাজার এবং সর্বনিম্ন ৮ হাজার ২৫০ টাকা মূল ধরে সরকারি কর্মকতা-কর্মচারীদের জন্য অষ্টম বেতন কাঠামো অনুমোদন করে সরকার, যাতে বেতন বাড়ে গ্রেড ভেদে ৯১ থেকে ১০১ শতাংশ। ওই কাঠামোতে বিসিএস পরীক্ষা দিয়ে প্রথম শ্রেণির কর্মকর্তা পদে যোগ দেয়া একজন চাকরিজীবীর মূল বেতন হয় মাসে প্রায় ২২ হাজার টাকা, যা আগের কাঠামোতে ১১ হাজার টাকা ছিল। এর সঙ্গে যুক্ত হয় এলাকা অনুযায়ী বাড়িভাড়া এবং গ্রেড অনুযায়ী চিকিৎসা ও অন্যান্য ভাতা।
২১ লাখ সরকারি চাকরিজীবী এই হারে মূল বেতন পাচ্ছেন ২০১৫ সালের ১ জুলাই থেকে। আর ২০১৬ সালের ১ জুলাই থেকে ভাতা কার্যকর হয়েছে।
অষ্টম বেতন কাঠামোতে সর্বোচ্চ স্কেলের মূল বেতন ৭৮ হাজার টাকা প্রস্তাব করা হলেও মন্ত্রিপরিষদ সচিব ও প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিবের মূল বেতন ৮৬ হাজার টাকা এবং জ্যেষ্ঠ সচিবদের ক্ষেত্রে ৮২ হাজার টাকা। সপ্তম বেতন কাঠামোতে তাদের মূল বেতন ছিল যথাক্রমে ৪৫ হাজার ও ৪২ হাজার টাকা।
সরকারি বেতন কাঠামো অনুযায়ী, এই গ্রেডের কর্মকর্তাদের মূল বেতন নির্ধারিত, অর্থাৎ প্রতি বছর তাদের বেতন আর বাড়ে না বা ‘ইনক্রিমেন্ট’ যোগ হয় না। তবে তারাও নিয়ম অনুযায়ী বাসা ভাড়াসহ অন্যান্য ভাতা পান।
এর আগে সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বেতন বাড়িয়ে সপ্তম বেতন কাঠামো ঘোষণা করা হয়েছিল ২০০৯ সালের ১ জুলাই।  সে অনুযায়ী এতদিন সরকারি চাকরিজীবীরা সর্বনিম্ন ৪ হাজার ১০০ টাকা ও সর্বোচ্চ ৪০ হাজার টাকা ‘বেসিক’ ধরে বেতন পেতেন।



 

Show all comments
  • Mukes Biswas ১২ মার্চ, ২০১৭, ২:৫৮ এএম says : 0
    valo kotha......
    Total Reply(0) Reply
  • Afm Jakaria ১২ মার্চ, ২০১৭, ১২:১০ পিএম says : 0
    বেতন বাড়ানো মানে জনগনের কাঁধে জোয়াল ধরিয়ে দেওয়া
    Total Reply(0) Reply
  • Md. Ismail Uddin Murad ১২ মার্চ, ২০১৭, ১২:০৯ পিএম says : 0
    Plzzzzzzz, no more salary increase for government employees... We r the private service holder suffering from the highly exerything... Plz do something for private sector...
    Total Reply(0) Reply
  • মোঃ মিলন হাওলাদার ১২ মার্চ, ২০১৭, ১২:১১ পিএম says : 0
    শুধু সরকারি চাকোর দের কথা ভাববেন না সাধারোন মানুষের কথাও একটু ভাববেন কারন বোজাটা সাধারন মানুষই বইবে
    Total Reply(0) Reply
  • Tonmoy Paul ১২ মার্চ, ২০১৭, ১২:১১ পিএম says : 1
    বেতন না বারিয়ে চাকুরির বয়স বারান।
    Total Reply(0) Reply
  • ahmad mostafa ১২ মার্চ, ২০১৭, ৫:০৩ পিএম says : 1
    শুধু সরকারি চাকোর দের কথা ভাববেন না সাধারোন মানুষের কথাও একটু ভাববেন কারন বোজাটা সাধারন মানুষই বইবে
    Total Reply(0) Reply
  • ahmad mostafa ১২ মার্চ, ২০১৭, ৫:৪১ পিএম says : 0
    MUNTI SAHEB K BOLCI JPDI APNAR BABAR TAKA DIYE BETON DEN TOBE JOTO ECCA BARAN . JONOGNER TAKA DIYE HLE ATTI TAKA O BETON BARABEN NA . APNARA MUNTI AMPI APNADER GENAN BESHI . KINTU AMI BOLI SADARON GAN DARA SADARON MANUSHER KOTA CINTA KRE KAJ KRUON .
    Total Reply(0) Reply
  • amirul haque ১৩ মার্চ, ২০১৭, ৫:১৪ পিএম says : 0
    aponara salary scale increase korar por o to ghush khachchhe ...........
    Total Reply(0) Reply
  • আবিদা সুলতানা ১২ মার্চ, ২০১৭, ১১:২৮ পিএম says : 0
    পেস্কেল ২০১৫ এ ৯ম এর নীচের কমচারী/কমকতা দেরকে বঞ্চিত করা হয়েছে। ২০০৯ পেস্কেল অনুযায়ী ৯ম গ্রেডের কমকতারা ০৪ বছর পর ১টি সিলেকশন গ্রেড পেত অথাৎ ৭ম গ্রেডে যেত কিন্তু ৯ম এর নীচের কমচারীরা উদাহরন সরূপ ১০ গ্রেডের কমকতারা ১টি সিলেকশন গ্রেড ও ২ টি টাইম স্কেল মিলে ১২ বছর পর ৭ম গ্রেডে যেত। পেস্কেল ২০১৫ এ ৯ম এর কমকতারা এখন ৬ষ্ঠ গ্রেডে যাবে কিন্তু ১০ গ্রেডের কমকতারা এখন ৮ম গ্রেডে যাবেন। অথাৎ শুধু ১০ নয় ১১,১২---২০ নং গ্রেডের সকল কমকতা/কমচারীরা এখন বঞ্চিত হচ্ছে। অথাৎ আগের ১ম শ্রেণির কমকতাদের বতমানে ১ ধাপ উপরে যাচ্ছে আর ২য়-৪থ শ্রেণির কমচারী/কমকতারা আগের চেয়ে ১ ধাপ নিচে নেমে গেছে। কেন ১ম শ্রেণির কমকতাদের আগের চেয়ে এক ধাপ অধিক সুবিধা বেশি দিয়ে নিচের শ্রেণির কমকতা/কমচারীদের আগের চেয়ে এক ধাপ নীচে নামিয়ে দেয়া হলো। এটা কি ধরনের বৈষম্য।
    Total Reply(0) Reply
  • sats1971 ১৪ মার্চ, ২০১৭, ১১:৩৭ এএম says : 0
    This salary range is better than previous salary range if increased salary in every year it is better for Bangladesh people and it understood that we are going to developing day by day, economic development of service holder is required.
    Total Reply(1) Reply
    • Mizan ১৭ মার্চ, ২০১৭, ১০:০৮ এএম says : 0
      U think that if the little number government employees salary increase,the nations will be developed.full you rStill most of the peoples are not getting government salary.
  • Abdul Khaled, Bangabandhu Hall, Rajshahi University, Bangladesh. ১৫ মার্চ, ২০১৭, ১১:০৬ এএম says : 1
    Thanks for 8% / 10% Annual increment The Ministry of Finance. We hope that immediately necessary action of this proposal for the all employees of Bangladesh.
    Total Reply(0) Reply
  • ataur ১৮ মার্চ, ২০১৭, ১০:১০ এএম says : 0
    Non mpo der mpo den plz
    Total Reply(0) Reply
  • prabal ১৮ মার্চ, ২০১৭, ২:৪০ এএম says : 0
    Good initiative, because country is going ahead. if it not possible to control daily necessary market in control, good initiative will be turned in to vain.
    Total Reply(0) Reply
  • সুলাইমান ১৮ মার্চ, ২০১৭, ৫:১৭ পিএম says : 0
    বেতন না বাড়িয়ে বেকারত্ব কমানোর উদ্যোগ নিন। নতুন শিল্প প্রতিষ্ঠান গড়ে অধিক কর্মক্ষেত্র তৈরি করুন।
    Total Reply(0) Reply
  • অাপাতত বেতন বাড়ানোর কোন প্রকার যুক্তি আছে বলে আমি মনে করি না, কারণ ২১ লক্ষ সরকারি চাকুরীজীবি জন্য ১৬ কোটি লোকের গাড়ে এই চাপ পড়বে। আর চাকুরীজীবি ব্যক্তিগন তো বেতন ভাড়ানো জন্য আন্দোলন করছেনা।
    Total Reply(0) Reply
  • amran ২৭ জুলাই, ২০১৭, ৬:০৩ পিএম says : 0
    8,250 oita ki r bare nay
    Total Reply(0) Reply
  • ৫ আগস্ট, ২০১৭, ১১:০৭ এএম says : 3
    দপ্তরী কাম প্রহরীকে অফিশ সহ কারি করাহক করমো সময় 24ঘন্টা থেকে 8ঘন্টা করাহক
    Total Reply(0) Reply
  • সুমন ১১ ডিসেম্বর, ২০১৭, ৯:৪৬ পিএম says : 0
    amar kotha holo j amora jara garmants a jov kori tara ki chol te para
    Total Reply(0) Reply
  • Md Alamin milon taluk dar ২৯ এপ্রিল, ২০১৮, ১০:৫৯ পিএম says : 0
    2018.. teh ki baton barbe ...na oi rokom takbeh .... doptorider ...
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ