Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ২১ নভেম্বর ২০১৮, ০৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ১২ রবিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী

এদেশে ইসলামের পতাকা উড্ডীন রাখতে ওলী-আউলিয়াদের অবদান অপরিসীম-এ এম এম বাহাউদ্দীন

আদর্শ ও আকিদার ক্ষেত্রে ছারছীনা দরবার কারো সাথে আপোষ করেনি : ছারছীনা পীর সাহেব কেবলা

| প্রকাশের সময় : ১২ মার্চ, ২০১৭, ১২:০০ এএম

বরিশাল ব্যুরো : জমিয়াতুল মোদার্রেছীন সভাপতি ও দৈনিক ইনকিলাব-এর সম্পাদক এ এম এম বাহাউদ্দীন বলেছেন, ১৬ কোটি মুসলমানের এদেশে ইসলামের পতাকা উড্ডীন রাখতে ওলী-আউলীয়াদের অবদান অপরিসীম। আর ছারছীনা দরবারও বিগত দেড়শ’ বছর যাবত মানুষকে আল্লাহর পথে দাওয়াত দিয়ে যাচ্ছে।
গতকাল ছারছীনার বার্ষিক মাহফিলে বক্তৃতায় তিনি বলেন, বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম মুসলিম দেশ হওয়া সত্তে¡ও বাংলাদেশে ইসলামী শিক্ষার প্রসারে তেমন কোন অগ্রণী ভূমিকা ছিল না। জমিয়াতুল মোদার্রেছীন এ লক্ষে কাজ করে যাচ্ছে। ছারছীনার মরহুম পীর ছাহেব ছিলেন এ সংগঠনের প্রধান পৃষ্ঠপোষক। আলহাজ হজরত মাওলানা মান্নান (রঃ) ছাহেব তার সারাটি জীবন মাদ্রাসা শিক্ষার উন্নয়ন ও শিক্ষকদের জন্য কাজ করে গেছেন। তার অসমাপ্ত কাজ এখনও অব্যাহত রয়েছে  বলেও জানান জমিয়াত সভাপতি। তিনি বলেন, ইতোমধ্যে বহু কাক্সিক্ষত আরবী বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠিত হয়েছে।
এজন্য তিনি প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, মাদ্রাসা ও ইসলামী শিক্ষার মান উন্ননয়নে সরকারের সাথে আমরাও কাজ করছি। আমাদের আরো অনেক দূর যেতে হবে। তিনি বলেন, একমাত্র ইসলামী শিক্ষাই পারে সব ধরনের হানাহানি ও হিংসা-বিদ্বেষ ও  সব ধরনের অনৈতিকতা থেকে দেশের ছাত্র সমাজকে রক্ষা করতে। আলহাজ এ এম এম বাহাউদ্দীন বলেন, আমাদের মনে রাখতে হবে, প্রকৃত ইসলামী শিক্ষাই একজন খাঁটি মুসলমান তৈরী করতে পারে। ইসলামে কোন ধরনের হিংসা, হানাহানি ও বিবাদ এবং জঙ্গিবাদের স্থান নেই। ইসলাম যেভাবে ন্যায় ও অন্যায়ের পার্থক্য নির্দেশ করে প্রতিটি মানুষকে ন্যায়ের পথে চলার তাগিদ দিয়েছে, আমাদের মাদ্রাসাগুলোও আল্লাহ ও রাসুল (সা.)-এর নির্দেশিত পথে চলার শিক্ষা দিচ্ছে। তিনি বলেন, ছারছীনা দরবার শরিফও ইসলামের একটি প্লাটফর্ম। দেড়শ’ বছরের পুরনো এ দরবার ও তার মাদ্রাসা দ্বীনি শিক্ষা দিয়ে দেশে ইসলামের আলো ছড়িয়ে দিচ্ছে। কেউ  ইচ্ছে করলেই এ প্রতিষ্ঠানে আঘাত করতে পারবে না। তিনি আবারো এ উপ-মহাদেশে ইসলামের আলো ছড়িয়ে দিতে ওলী-আউলীয়াদের অবদানের কথা স্মরণ করেন।
আদর্শ ও আকিদার ক্ষেত্রে ছারছীনা দরবার কারো সাথে আপোষ করেনি : ছারছীনা পীর সাহেব কেবলা
আদর্শ ও আকিদার ক্ষেত্রে ছারছীনা দরবার কারো সাথে আপোষ করেনি এবং ভবিষ্যতেও করবেনা বলেছেন আমিরে হিযবুল্লাহ ছারছীনা শরীফের পীর সাহেব কেবলা। ছারছীনা শরীফের বাণী আল্লামা নেছার উদ্দিন (রহ.) তার পীরের হুকুমে যখন এদেশে দীনের দাওয়াত নিয়ে তার মিশন শুরু করেন তখন এদেশের মানুষের ধর্মীয় অবস্থা ছিল খুবই করুন। এ অবস্থা থেকে উত্তরণের জন্য তিনি ১২৭ বছর পূর্বে এ মাহফিল প্রতিষ্ঠা করেন। মাহফিলের শুরু থেকে এ পর্যন্ত অগণিত দিশেহারা মানুকে হেদায়েতের দিশা দেওয়া হচ্ছে। দাদা হুজুর মাহফিল ও খানকার পাশাপাশি প্রতিষ্ঠান করেছেন অনেক মাদরাসা। তার প্রচেষ্ঠায় এদেশের দীনি পরিবেশ ফিরে এসেছিল। তার সে উদ্দেশকে বাস্তবায়নের জন্য আমাদের প্রচেষ্ঠা চালাতে হবে। এ মাহফিল থেকে আমাদেরকে তার আদর্শ শিক্ষা নিতে হবে। মনে রাখতে হবে এ দরবার নিয়ে বদ আকিদার লোকজন দিনদিন বিভিন্ন ষড়যন্ত্র করে আসছে। তাদেরকে আদর্শ ও আকিদার মাধ্যমে জবাব দেওয়া হবে।



 

Show all comments
  • সাব্বির ১২ মার্চ, ২০১৭, ৩:১০ এএম says : 0
    সকলে ঐক্যবদ্ধ হয়ে এক দলে পরিণত হলে বাংলাদেশ অনেক আগেই ইসলামী রাষ্ট্রে পরিণত হতো।
    Total Reply(0) Reply
  • মামুন খান ১২ মার্চ, ২০১৭, ৩:১৩ এএম says : 1
    মহান আল্লাহ রাব্বুল আলআমিনের কাছে এই প্রার্থনা করি যে, ছারছীনা দরবারের এই সিলসিলাহ কিয়ামত পর্যন্ত জারি থাকুক।
    Total Reply(0) Reply
  • মেরাজ ১২ মার্চ, ২০১৭, ৩:১৫ এএম says : 0
    আমিরে হিযবুল্লাহ ছারছীনা শরীফের পীর সাহেব কেবলাকে আল্লাহ দীর্ঘ হায়াত দান করুক।
    Total Reply(0) Reply
  • আমিন ১২ মার্চ, ২০১৭, ৩:১৭ এএম says : 0
    আলহাজ হজরত মাওলানা মান্নান (রঃ) ছাহেব তার সারাটি জীবন মাদ্রাসা শিক্ষার উন্নয়ন ও শিক্ষকদের জন্য কাজ করে গেছেন। আল্লাহ তাকে জান্নাতে উচ্চ স্থান দান করুক।
    Total Reply(0) Reply
  • জান্নাতুল ফেরদাউস ১২ মার্চ, ২০১৭, ৩:২০ এএম says : 0
    আরবী বিশ্ববিদ্যালয় যেন সর্বদা ইসলামের জন্য কাজ করে। তাহলে যারা এর জন্য কাজ করেছে তাদের স্বপ্ন সত্যি হবে।
    Total Reply(0) Reply
  • মেহেদী হাসান ১২ মার্চ, ২০১৭, ৩:২২ এএম says : 0
    একমাত্র ইসলামী শিক্ষাই পারে সব ধরনের হানাহানি ও হিংসা-বিদ্বেষ ও সব ধরনের অনৈতিকতা থেকে দেশের ছাত্র সমাজকে রক্ষা করতে। তাই সমাজ থেকে সব ধরনের হানাহানি ও হিংসা-বিদ্বেষ ও সব ধরনের অনৈতিকতা দূর করতে হলে ইসলামী শিক্ষা ও ইসলামী মূল্যবোধের কোন বিকল্প নেই।
    Total Reply(0) Reply
  • আসমা ১২ মার্চ, ২০১৭, ৩:২৩ এএম says : 0
    আদর্শ ও আকিদার ক্ষেত্রে ছারছীনা দরবার কারো সাথে আপোষ করেনি । আর এই জন্যই এখনও মানুষ এই দরবারকে শ্রদ্ধা করে।
    Total Reply(0) Reply
  • Sultan ১২ মার্চ, ২০১৭, ৩:২৮ এএম says : 0
    Madrasah education is the best education of the world. It was based on religion. The subjects of their teaching were the Quran, the hadith, the duties and responsibilities of a true Muslim. Then all the Madrasah functioned well as their aims and objectives were confined to the religion and the religious teaching. So those people whom are study here they can lead the country properly.
    Total Reply(0) Reply
  • Enamul Islam ১২ মার্চ, ২০১৭, ৩:৩০ এএম says : 0
    Islam is the truth and best religion in the world. Many non Muslim countries trying to stigmatized Islam in many ways. But in fact being a peaceful religion Islam becoming popular in the world. Islam teaches for peace, friendship & cooperation but discourage violence.
    Total Reply(0) Reply
  • Zahir ১২ মার্চ, ২০১৭, ৩:৩১ এএম says : 0
    Many many thanks to A M M Bahauddin, Honorable Editor of The Daily Inqilab for you wise advises.
    Total Reply(0) Reply
  • ফারজানা শারমিন ১২ মার্চ, ২০১৭, ৩:৩২ এএম says : 0
    জাতির এই ক্রান্তিলগ্নে মাওলানা এম এ মান্নান (রহ:) সাহেবের মত মানুষের খুব প্রয়োজন ছিলো। দোয়া করি আল্লাহ যেন তাকে জান্নাত দান করেন।
    Total Reply(0) Reply
  • kawsir ১২ মার্চ, ২০১৭, ১২:২০ পিএম says : 0
    এক দল অন্য দলের বিরুদ্ধে, এক দরবার অন্য দরবারের বিরুদ্ধে কথা না বলে, ছোট-খাটো বিষয়ে মতভেদ না করে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে একসাথে চলতে হবে।
    Total Reply(0) Reply
  • Md. Sabuj ১২ মার্চ, ২০১৭, ১১:০৮ এএম says : 0
    ছারছীনা শরীফের বাণী আল্লামা নেছার উদ্দিন (রহ.) তার পীরের হুকুমে যখন এদেশে দীনের দাওয়াত নিয়ে তার মিশন শুরু করেন তখন এদেশের মানুষের ধর্মীয় অবস্থা ছিল খুবই করুন। এ অবস্থা থেকে উত্তরণের জন্য তিনি ১২৭ বছর পূর্বে এ মাহফিল প্রতিষ্ঠা করেন - মহান আল্লাহ রাব্বুল আলআমিনের কাছে এই প্রার্থনা করি যে, ছারছীনা দরবারের এই সিলসিলাহ কিয়ামত পর্যন্ত জারি থাকুক।
    Total Reply(0) Reply
  • আলমগীর ১২ মার্চ, ২০১৭, ১২:২২ পিএম says : 0
    বাংলাদেশে আওয়ামী লীগ, বিএনপির ছায়াতলে ইসলামী দলগুলোকে যেতে হবে না, নিজেরা ঐক্যবদ্ধ থাকলে বড়দলগুলো ইসলামী দলের ছায়াতলে আসতে বাধ্য হবে।
    Total Reply(0) Reply
  • রুবায়েত ১২ মার্চ, ২০১৭, ১২:২৩ পিএম says : 0
    হে আল্লাহ তুমি বাংলাদেশকে ইসলামী রাষ্ট্র হিসেবে কবুল করো।
    Total Reply(0) Reply
  • খোরশেদ আলম ১২ মার্চ, ২০১৭, ১২:৩০ পিএম says : 0
    বাংলাদেশে মাদ্রাসা শিক্ষা ও ইসলামের জন্য কাজ করায় বাংলাদেশ জমিয়াতুল মোদার্রেছীনকে হাজারো সালাম।
    Total Reply(0) Reply
  • ফারজানা শারমিন ১২ মার্চ, ২০১৭, ১২:৩১ পিএম says : 0
    আল্লাহ আপনাকে দীর্ঘ নেক হায়াত দান করুক এবং দেশ ও ইসলামের জন্য কাজ করা তৌফিক দান করুক।
    Total Reply(0) Reply
  • মামুন তালুকদার ১২ মার্চ, ২০১৭, ১২:৩২ পিএম says : 0
    এদেশে ইসলাম ও মাদরাসা শিক্ষার বিরুদ্ধে সকল ষড়যন্ত্র মোকাবেলা আমরা আপনার পাশে আছি।
    Total Reply(0) Reply
  • নাসির উদ্দিন ১২ মার্চ, ২০১৭, ১২:৩৩ পিএম says : 0
    ইসলামী আরবি বিশ্ববিদ্যালয়কে মাদরাসা শিক্ষায় শিক্ষিত আলেম-ওলামাদের দিয়েই পরিচালিত করতে হবে।
    Total Reply(0) Reply
  • মাওলানা নুরুল আমিন ১২ মার্চ, ২০১৭, ১২:৩৪ পিএম says : 0
    মাদরাসা শিক্ষা ও ইসলামের জন্য আপনার ও আপনার পিতার অবদান এদেশের ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা কোন দিন ভুলবে না। আপনারা আপনাদের কাজ চালিয়ে যান। আমরা সর্বদাই আপনার এই কাজের সাথে অতীতে ছিলাম, এখনও আছি এবং ভবিষ্যতেও থাকবো।
    Total Reply(0) Reply
  • মনিরুল ইসলাম ১২ মার্চ, ২০১৭, ১২:৩৫ পিএম says : 0
    আমাদের ইমানকে আরো মজবুত করতে হবে এবং নিজেদেরকে ইসলামের খেদমতে নিয়োজিত করতে হবে।
    Total Reply(0) Reply
  • Md. Habib Hasan ১২ মার্চ, ২০১৭, ৭:৪৯ পিএম says : 0
    ওলী-আউলিয়ারা, আলেম, ওলামা, মাশায়েখরাই এই সমাজের স্তম্ভ। আমাদের দেশ যতটুকু শান্তি ও সমৃদ্ধিতে আছে সেক্ষেত্রে সবচেয়ে বড় অবদান তাদের।
    Total Reply(0) Reply
  • কামাল ১২ মার্চ, ২০১৭, ৬:২১ পিএম says : 0
    সমাজ গঠনেও এদেশের আলেম ওলামা মাশায়েখরা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে চলেছেন ।
    Total Reply(0) Reply
  • ইমরান হোসাইন ১২ মার্চ, ২০১৭, ৬:১১ পিএম says : 0
    জ্বি জনাব, একদম ঠিক কথা বলেছেন।
    Total Reply(0) Reply
  • আরিফুর রহমান ১২ মার্চ, ২০১৭, ৬:১১ পিএম says : 0
    ইসলাম ও মাদ্রাসা শিক্ষার ঝান্ডা নিয়ে আপনারা এগিয়ে চলুন। এদের ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা ইসলাম ও মাদ্রাসা শিক্ষার সাথে সব সময়ই থাকবে।
    Total Reply(0) Reply
  • ওবায়েদুল্লাহ ১২ মার্চ, ২০১৭, ৬:১৩ পিএম says : 0
    বাংলাদেশসহ সারা বিশ্বে ইসলামী ও ইসলামী শিক্ষার ওপর অনেক দিক দিয়ে ষড়যন্ত্র চলছে, মিথ্যাচার চলছে। তাই আমাদের সকলকে সতর্ক থাকতে হবে।
    Total Reply(0) Reply
  • ইয়াসমিন ১২ মার্চ, ২০১৭, ৬:১৪ পিএম says : 0
    মহানবী (সা.)-এর রেখে যাওয়া মুসলিম ভ্রাতৃত্ববোধের আদর্শে উজ্জীবিত হয়ে মজলুম মুসলমানদের অস্তিত্ব ও অধিকার রক্ষায় সোচ্চার হতে হবে।
    Total Reply(0) Reply
  • আল আমিন ১২ মার্চ, ২০১৭, ৭:৫০ পিএম says : 0
    বলিষ্ঠ বক্তব্য প্রদানকারী দৈনিক ইনকিলাব সম্পাদক এ এম এম বাহাউদ্দীন সাহেবের ইসলাম ও দেশের পক্ষে এই শক্ত অবস্থানের জন্য তাকে অসংখ্য মোবারকবাদ জানাই।
    Total Reply(0) Reply
  • Hasibur Rahman ১২ মার্চ, ২০১৭, ৭:৫১ পিএম says : 0
    Allah amader sokol prochesta ke kobul koruk & Islam er khedmot korar toufiq dan koruk. Amin
    Total Reply(0) Reply
  • বিপ্লব ১২ মার্চ, ২০১৭, ৭:৫৪ পিএম says : 0
    আমাদের সকলের উচিত ইসলামের পতাকা তলে ঐক্যবদ্ধ হয়ে পরিপূর্ণ ইসলামের মধ্যে প্রবেশ করা। আর আল্লাহ আমাদেরকে যে কাজের জন্য পৃথিবীতে প্রেরণ করছেন সেই কাজগুলো পরিপূর্ণভাবে করা।
    Total Reply(0) Reply
  • AMIN ১২ মার্চ, ২০১৭, ৮:৫৬ পিএম says : 0
    SOV TIK KINTO GONGIKE NA BOLON
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর