Inqilab Logo

রোববার, ১৪ আগস্ট ২০২২, ৩০ শ্রাবণ ১৪২৯, ১৫ মুহাররম ১৪৪৪
শিরোনাম

চন্দনাইশে সীমানা বিরোধে দু’পক্ষে থমথমে অবস্থা

| প্রকাশের সময় : ১২ মার্চ, ২০১৭, ১২:০০ এএম

চন্দনাইশ উপজেলা সংবাদদাতা : চট্টগ্রামের চন্দনাইশ উপজেলাধীন কাঞ্চনাবাদ ইউনিয়নস্থ সরকারি আশ্রায়ন আবাসন প্রকল্পের সীমানা ও জায়গা দখল নিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে বিরোধ নিষ্পত্তি না হওয়ায় থমথমে অবস্থায় দুই পক্ষের মধ্যে ছাপা ক্ষোভ বিরাজ করছে। এই ব্যাপারে আবাসন প্রকল্পে বর্তমান সভাপতি, মো. ফরিদুল আলম চৌধুরী গতকাল শনিবার এ প্রতিবেদককে জানান, আবাসন প্রকল্পে বসবাসকারী ৪০টি পরিবার ও বহিরাগত কয়েকটি পরিবারের সাথে দীর্ঘদিন ধরে সীমানা নিয়ে নানাভাবে বিরোধ চলে আসছে। আবাসন অধিবাসীদের সাথে বহিরাগতদের মধ্যে সীমানা বিরোধ নিষ্পত্তি না হওয়ায় দু’পক্ষের টান টান উত্তেজনা চলছে। তিনি আরো জানান, আবাসন প্রকল্পের অভ্যন্তরে অবৈধ দখলদারীদের উচ্ছেদের জন্য প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তরে আবাসনবাসী অভিযোগ দাখিল করেছেন। এতে কোনো ফল না হওয়ায় গত ২৪ ফেব্রুয়ারি উক্ত আবাসন প্রকল্পে কয়েকজন লোকের সাথে বহিরাগত অবৈধ দখলদারীদের সাথে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষের আশংকা দেখা গেলে চন্দনাইশ থানা পুলিশ খবর পেয়ে দ্রæত গিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করেন। এ সময় স্থানীয় চেয়ারম্যান মুজিবুর রহমান ও মেম্বার মো. ওসমানসহ দু’পক্ষকে নিয়ে ঘটনার বিষয় জিজ্ঞাসাবাদ করেন।
এ ব্যাপারে ঐ দিন থানায় মোহাম্মদ শাহজাহান বাদী হয়ে একটি অভিযোগ দায়ের করলে দায়িত্বপ্রাপ্ত থানার পুলিশ এস. আই মোহাম্মদ আল আমিন সরোয়ার দু’পক্ষকে আগামী সপ্তাহে তাদের কাগজপত্র নিয়ে বৈঠকে বসার জন্য নির্দেশ দেন। এ ব্যাপারে আবাসন প্রকল্পে বসবাসকারী প্রকল্পের প্রাক্তন সভাপতি ওসমান গণি ও প্রকল্পের সভাপতি, মোহাম্মদ মনছুর, মোহাম্মদ নাছির এ প্রতিবেদককে জানান সরকারি আবাসন প্রকল্পের ৪০টি পরিবারে বসবাস করে আসছে। প্রকল্পের চতুরদিকে প্রতিবারই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সীমানা নির্ধারণ করে খুঁটি স্থাপন করেন। কিন্তু ইউ.এন.ও একের পর এক বদলী হয়ে যাওয়ার পর আবাসন প্রকল্পের সংলগ্নে বহিরাগত বসবাসকারী বিবাদীগণ খুঁটি তুলে পেলে আবাসনের সীমানার ভেতর জায়গা ও গাছপালা দখলের জন্য পাঁয়তারা চালিয়ে আসছে এবং খুঁটিনাটি যেকোনো বিষয়ে নিয়ে প্রায়ই ঝগড়া, বিরোধ সৃষ্টি হয়। অপরদিকে বহিরাগত অধিবাসী বিবাদী যথাক্রমে মোহাং বাহাদুর, ছাদেক, আবদুল হান্নান জানান তারা প্রকল্পের সংলগ্নে সরকারী রেলওয়ে জায়গা লিজ নিয়ে দীর্ঘ ৪০ বছর ধরে বসবাস করে আসছে। প্রকল্পের ভেতরে তাদের লিজের রেলওয়ে জায়গা থাকায় সেখানে তারা কিছু করতে গেলে আবাসন প্রকল্পের পরিবারের সাথে নানা দ্বন্দ্ব ও বিরোধ সৃষ্টি হয়। এ নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে অশান্তি বিরাজ করে আসছে। কথায় কথায় দু’পক্ষের মধ্যে অশান্তি সৃষ্টি হয়। এ ব্যাপারে স্থানীয় চেয়ারম্যান মুজিবুর রহমান ও মেম্বার ওসমান গনি জানান দু’পক্ষের বিরোধ নিষ্পত্তির জন্য তারা দ্রুত ব্যবস্থা নেবেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: অবস্থা


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ