Inqilab Logo

ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৮ জানুয়ারি ২০২১, ১৪ মাঘ ১৪২৭, ১৪ জামাদিউস সানী ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান সীতাকুন্ডে নির্মাণাধীন পাকা বাড়ি ভেঙে সরকারি খাল উদ্ধার

| প্রকাশের সময় : ১৪ মার্চ, ২০১৭, ১২:০০ এএম

সীতাকুন্ড উপজেলা সংবাদদাতা : সীতাকুন্ডের বাড়বকুন্ড ইউনিয়নের মান্দারীটোলায় কয়েকশ’ বছরের প্রাচীন ‘কৃষ্ণ‘ খালটি দখল করে তার উপরেই নিজের পাকাবাড়ি নির্মাণ শুরু করেন ঐ এলাকার মান্নান খান। এতে আশপাশের ৮/১০টি গ্রামের পানি নিষ্কাশন বন্ধ হয়ে যাবার উপক্রম হলেও তাতে কোন ভ্রূক্ষেপ ছিলো না তার। শুধু তাই নয়, সরকারি এই খাল ভরাট বন্ধের জন্য স্থানীয় ইউপি মেম্বার বারবার অনুরোধ করলেও তার কথায় কর্ণপাত না করে দখলবাজি অব্যহত রাখেন তিনি। এতে এলাকার মানুষের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হলেও মান্নানের অর্থবিত্ত আর পেশী শক্তির দাপটের ভয়ে প্রতিবাদ করার সাহস পাননি তারা। কিন্তু কথায় আছে সবকিছুরই একটা শেষ থাকে। মান্নানের এই অপকর্মের কথা ঠিকই পৌঁছে যায় সাম্প্রতিক সময়ে সীতাকুন্ডবাসীর ত্রাতার ভূমিকায় অবতীর্ণ হওয়া নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. রুহুল আমিনের কানে। ঘটনার সত্যতা যাচাইয়ে গতকাল সোমবার সকালে তিনি ভূমি অফিসের নাজির মো. জামাল উদ্দিনকে মান্দারীটোলা গ্রামে পাঠান। নাজির জামাল উদ্দিন সেখানে গিয়ে দেখেন খাল দখল করে জোরেশোরে বাড়ি নির্মাণের কাজ চলছে। তিনি অফিসে এসে ঘটনার বিষয়ে সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. রুহুল আমিনকে সব কিছু জানালে আর দেরি করেননি তিনি। বেলা ১২টার দিকে নাজির জামাল উদ্দিন, সীতাকুন্ড থানার এস আই মো. ফারুকসহ সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে সেখানে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন। অভিযানকালে ম্যাজিস্ট্রেট দেখে নির্মাণ শ্রমিক ও মালিক মান্নান খান পালিয়ে যায়। ফলে কাউকে আটক করতে না পারলেও তিনি খালের উপরের অবৈধ স্থাপনাগুলি ভেঙে ফেলেন। এছাড়া সেখানে থাকা রড, সিমেন্টসহ বিভিন্ন সামগ্রী জব্ধ করে পুলিশের জিম্মায় দেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: উদ্ধার

২৭ জানুয়ারি, ২০২১
২৪ জানুয়ারি, ২০২১

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ