Inqilab Logo

রোববার, ২৯ মে ২০২২, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২৭ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

নির্ধারিত সময়ের মধ্যে ব্রিজ ও রাস্তার কাজ শেষ না করলে কঠোর ব্যবস্থা-মেয়র আ জ ম নাছির

| প্রকাশের সময় : ১৪ মার্চ, ২০১৭, ১২:০০ এএম

চট্টগ্রাম ব্যুরো : চট্টগ্রাম সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন জনগণের ভোগান্তির বিষয়টি সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে নির্মাণকাজ নির্ধারিত সময়ের মধ্যে শেষ করার তাগাদা দিয়ে বলেছেন, অন্যথায় সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিতে কর্পোরেশন বাধ্য হবে। গতকাল (সোমবার) জাইকার অর্থায়নে ব্রিজ ও রাস্তার চলমান উন্নয়ন কাজের বিষয়ে ঠিকাদারদের সাথে অনুষ্ঠিত বৈঠকে মেয়র একথা বলেন। এ সময় স্থানীয় সরকার প্রকৌশল বিভাগের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী মীর ইলিয়াছ মোরশেদ, জাইকার উন্নয়ন কাজের প্রজেক্ট ডাইরেক্টর মো: শাহজাহান মোল্লা, কর্পোরেশনের প্রধান প্রকৌশলী, তত্ত্ববধায়ক প্রকৌশলী, নির্বাহী প্রকৌশলী, সংশ্লিষ্ট উন্নয়ন কাজের সাথে জড়িত প্রকৌশলী ও ঠিকাদারাভ উপস্থিত ছিলেন।
চায়না রাষ্ট্রদূতের সৌজন্য সাক্ষাৎ
সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীনের সাথে গতকাল তার দফতরে বাংলাদেশে নিযুক্ত চায়নার রাষ্ট্রদূত মা মিংকিয়াং সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন। এ সময় মেয়র নাছির চীনের রাষ্ট্রদূতকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান এবং কর্পোরেশনের মনোগ্রাম খচিত ক্রেস্ট উপহার দেন। বৈঠকে মেয়র আ জ ম নাছির বাংলাদেশের সাথে চীনের বন্ধুত্বপূর্ণ সুসম্পর্কের ওপর গুরুত্বারোপ করে বলেন, বাংলাদেশের উন্নয়নের অংশীদার চীন। মেয়র কর্ণফুলী নদীর তলদেশে টানেল নির্মাণে চায়নার সহযোগিতার জন্য রাষ্ট্রদূতের মাধ্যমে চীন সরকারকে ধন্যবাদ জানান। সিটি মেয়র চায়না কুনমিং সিটির সাথে চট্টগ্রাম সিটির টু ইন সিটির সম্পর্কের বিষয়টি তুলে ধরে বলেন, ইতঃপূর্বে কুনমিং সিটির মেয়র চট্টগ্রাম সফর করেছিলেন। মেয়র বলেন, নগরীতে পানিবদ্ধতার সমস্যা, বর্জ্য ব্যবস্থাপনা সংক্রান্ত সমস্যা, এলইডি সংযোজন, বিউটিফিকেশন, এলইডি বিলবোর্ড ব্যবস্থাপনা, পর্যটন শিল্প, গার্মেন্টস শিল্প, পাওয়ার প্ল্যান্টসহ নানা খাতে বিনিয়োগের সুযোগ রয়েছে। মেয়র চট্টগ্রামের সার্বিক উন্নয়নে চীনের সহযোগিতা চান।
চীনা রাষ্ট্রদূত মা মিংকিয়াং বলেন, চট্টগ্রামে এসে আমি অভিভূত। নান্দনিক ও প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের চট্টগ্রামে পাওয়ার প্ল্যান্ট, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা, গার্মেন্টসসহ নানা ক্ষেত্রে চীন বিনিয়োগে আগ্রহী। তিনি বর্জ্য ব্যবস্থাপনা, এলইডি লাইটিং, পাওয়ার প্ল্যান্টসহ বিবিধ খাতে বিনিয়োগে সিটি মেয়রের সহযোগিতা কামনা করেন। রাষ্ট্রদূত বলেন, বাংলাদেশ বিশেষ করে চট্টগ্রামের সাথে চায়নার বহুকাল থেকে সম্পর্ক সুনিবিড়। রাষ্ট্রদূত চট্টগ্রামের সার্বিক উন্নয়নে মেয়রের ভূমিকার ভূয়সী প্রশংসা করেন। বৈঠকে কর্পোরেশনের ভারপ্রাপ্ত প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ আবুল হোসেনসহ সংশ্লিষ্টরা উপস্থিত ছিলেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: নির্ধারিত


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ