Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ১১ আশ্বিন ১৪২৪, ০৫ মুহাররম ১৪৩৮ হিজরী

এইচএসসি পরীক্ষার প্রস্তুতি-২০১৭

| প্রকাশের সময় : ১৯ মার্চ, ২০১৭, ১২:০০ এএম

মোঃ সেলিম আদ্-দীন
পরিচালক
শিকড় একাডেমি (একাডেমিক কেয়ার)
বাংলা ১ম পত্র
ক অংশ- গদ্য
১. ‘পোস্টমাস্টার’ গল্পের রতন মায়ার বন্ধনে আবদ্ধ করে ফেলেছিল পোস্টমাস্টারকে। বয়সের ও সামাজিক বৈপরিত্য সত্তে¡ও পোস্টমাস্টারের ¯েœহসুধায় পুষ্ট হয়েছিল রতন। কিন্তু বদলির আদেশের প্রেক্ষাপটে শহরের পথে যাত্রারত পোস্টমাস্টারের মনে হয়েছিল ফিরে যাই। পরক্ষণেই আবার মনে হয়েছে ফিরিয়া কী হইবে, পৃথিবীতে কে কাহার?
ক) ‘তিনি থাকতে অভাব ছিল না কোন জিনিসের’- তিনি কে?
খ) ‘ওর ¯েœহাতুর আত্মা বহুদূর থেকে আমায় আহŸান করে এনেছে’Ñ ব্যাখ্যা কর।
গ) উদ্দীপকের রতন চরিত্রের সাথে ‘আহŸান’ গল্পের কোন চরিত্রের মিল রয়েছে? আলোচনা কর।
ঘ) উদ্দীপকের পোস্টমাস্টার ও আহŸান গল্পের গোপালের উপলদ্ধির মধ্যে তুমি কোনটা সমর্থন কর? বিশ্লেষণ কর।
২. আমার একার সুখ, সুখ নহে ভাই
সকলের সুখ সখা, সুখ শুধু তাই।
সকলের সাথে বন্ধু, সকলের সাথে,
যাইব কাহারে বলো, ফেলিয়া পশ্চাতে।
একসাথে বাঁচি আর এক সাথে মরি,
এসো বন্ধু, এজীবন সুমধুর করি।
ক) ন্যায় শাস্ত্রে পÐিত ব্যক্তিকে কী বলা হয়?
খ) চোরের দÐ বিধান কর্তব্য কেন?
গ) উদ্দীপকের মূলভাব ‘বিড়াল’ রচনার সাথে কীরূপ সামঞ্জস্যপূর্ণ? ব্যাখ্যা কর।
ঘ) সকলের সাথে সুখ ভাগাভাগি করে নিলে এ জীভন সুমধুর হয়। উক্তিটি উদ্দীপক ও বিড়াল রচনার আলোকে বিশ্লেষণ কর।

৩.
ক) তপোবন কী?
খ) বৃক্ষের গান অনুভূতি দিয়ে শুনতে হয় কেন?
গ) মানুষের জীবনে সার্থকতার ক্ষেত্রে উদ্দীপকের বিষয়গুলো কীভাবে প্রভাব বিস্তার করে? ‘জীবন ও বৃক্ষ’ প্রবন্ধের আলোকে ব্যাখ্যা কর।
ঘ) উদ্দীপকের ছক এবং ‘জীবন ও বৃক্ষ’ প্রবন্ধের আলোকেব মানব জীবনের প্রশান্তি লাভের স্বরূপ বিশ্লেষণ কর।
৪. ১৯৬৯ সালের গণঅভ্যুত্থানে সশস্ত্র বাহিনীর গুলিতে শহীদ হন আসাদুজ্জামান। তাকে উদ্দেশ্য করে শামসুর রহমান রচনা করেন এক অমর কবিতা। আমাদের দুর্বলতা, ভীরুতা, কলুষতা আর লজ্জা।
সমস্ত দিয়েছে ঢেকে একখÐ বস্ত্র মানববিক,
আসাদের শার্ট আজ আমাদের প্রাণের পতাকা।’
ক) লেকচারার নুরুল হুদা কার রেইনকোট পরেছিলেন?
খ) রেইনকোটের উপর চাবুকের বাড়ি নুরুল হুদার কাছে ¯্রফেÑ উৎপাত মনে হয়েছিল কেন?
গ) ‘রেইনকোট’ গল্পের রেইনকোট এবং উদ্দীপকের আসাদের শার্টেও প্রভাবের সাদৃশ্য দেখাও।
ঘ) ‘প্রকৃত যোদ্ধার স্মৃতি, তার ব্যবহৃত জিনিসও সাধারণ মানুষকে সংগ্রামী চেতনায় উজ্জীবিত করে। উদ্দীপক ও ‘রেইনকোট’ গল্প অবলম্বনে উক্তিটির যৌক্তিকতা বিচার কর।
খ অংশÑ পদ্য
৫. বিদেশের মাটিকে বেড়ে উঠলেও সাহেদ সাহেবের স্বপ্ন দেশে রাজনীতি করা। কিন্তু তার আভিজাত্য, বংশগৌরব, সামাজিক দম্ভের কারণে তার পক্ষে সাধারণ মানুষের কাছাকাছি গিয়ে তাদের সাথে মিশে সমাজ সেবা করা সম্ভব নয়। তাই তিনি তার ছেলেকে দেশেই লেখাপড়া শিখানোর সিদ্ধান্ত নেন। যাতে তার ইচ্ছার বাস্তবায়ন তার ছেলের মাধ্যমে করতে পারেন।
ক) কোন ধরনের পণ্যে গানের পসরা ব্যর্থ হয়?
খ) যেথা পাই চিত্রময়ী বর্ণনার বাণী কুড়াইয়া আনিÑ বলতে কবি কী বোঝাতে চেয়েছেন।
গ) উদ্দীপকে ‘ঐকতান কবিতার’ কোন দিকটি ফুটে উঠেছে?
ঘ) উদ্দীপকের সাহেদ ‘ঐকতান’ কবিতার কবির উপলদ্ধি একই ধারায় উৎসারিতÑ ব্যাখ্যা করো।
৬. ১৯৯০ সালে স্বৈরাচারবিরোধী আন্দোলনে সোচ্চার হয়ে নূর হোসেন বুকে পিঠে ‘স্বৈরাচার নিপাত যাক, গণতন্ত্র শক্তি পাক’ লিখে রাজপথে নেমে যায়। স্বৈরাচারী সরকারের পেটুয়া পুলিশ বাহিনীর গুলিতে নূর হোসেন নিহত হয়। তার এই আত্মত্যাগে আন্দোলন তীব্রতর হয়ে উঠে। অবশেষে গণতন্ত্রের বিজয় অর্জিত হয়। দেশের যে কোন ক্লান্তিলগ্নে বাংলার মানুষ নূর হোসেনের আত্মত্যাগে অনুপ্রাণিত হয়।
ক) নিলক্ষা শব্দের অর্থ কি?
খ) ‘নষ্ট ক্ষেত, নষ্ট মাঠ, নদী নষ্ট, বীজ নষ্ট, বড় নষ্ট যখন সংসারÑ ব্যাখ্যা কর।
গ) উদ্দীপকের নূর হোসেন কি নূরলদীনের যথার্থ প্রতিনিধি? আলোচনা কর।
ঘ) জাতির যে কোন ক্লান্তিলগ্নে নূর হোসেন ও নূরলদীন প্রেরণার উৎস হয়ে থাকবেÑ বিশ্লেষণ কর।
৭. খুব অল্প বয়সে বিয়ে হলেও সাহিত্য চর্চা থেমে থাকেনি যুলেখার। সব সময় স্বামী অরূপের কাছ থেকে উৎসাহ ও প্রেরণা পেয়েছেন। কিন্তু তার সুখের দাম্পত্য জীবন দীর্ঘায়িত হয়নি। তবে স্বামীর মৃত্যুর পরও তিনি থেমে যাননি, একাকী জীবনযাপন করলেও যুলেখা সাহিত্য চর্চা অব্যাহত রেখেছেন এছাড়া তিনি নারী শিক্ষার জন্য নিয়েছেন নানা উদ্যোগ। সর্বক্ষেত্রেই স্বামীর স্মৃতি ছিল তার অনুপ্রেরণার স্থল।
ক) ‘কুহেলি শব্দের অর্থ কী?
খ) এসেছে তা ফাগুনে স্মরিয়া বলতে কি বোঝানো হয়েছে।
গ) উদ্দীপকে যুলেখার মাঝে কীভাবে কবি সুফিয়া কামালের প্রতিচ্ছবি ফুটে উঠেছে? তাহারেই পড়ে মনে কবিতার আলোকে ব্যাখ্যা কর।
ঘ) ‘তাহারেই পড়ে মনে ভুলিতে পারি না কোন মতে’ কবি এ মনোভাবের সঙ্গে স্বামীহারা যুলেখার মনোভাবের তুলনা কর।
গ অংশÑ সহপাঠ (উপন্যাস)
৮. যমুনায় জেগে ওঠা নতুন চর হলো ‘আশা’। গ্রামের মানুষগুলোর ধর্মের প্রতি আগ্রহ কম। অভাব-অনটন, ঝগড়া-বিবাদ, হানাহানিসহ বিভিন্ন ফ্যাসাদে তারা সর্বক্ষণ জড়িয়ে থাকে। প্রয়োজনে-অপ্রয়োজনে তারা গ্রামের মাতব্বর শাহেদ আলীর কাছে নালিশ করে। শাহেদ আলী গ্রামের লোকজনের এই নির্ভরশীলতা খুব উপভোগ করে।
ক) ‘বেএলেম’ কী?
খ) ‘মাজারটি তার শক্তির মূল’Ñ উক্তিটি দিয়ে কী বোঝানো হয়েছে?
গ) উদ্দীপকের সাথে ‘লালসালু’ উপন্যাসের বৈসাদৃশ্য নিরূপণ কর।
ঘ) উদ্দীপকটি ‘লালসালু’ উপন্যাসের-সমগ্রতাকে কতখানি ধারণ করেছে? মূল্যায়ণপূর্বক মতামত দাও।
৯. ফাহাদ সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ থেকে সদ্য ডাক্তারি পাস করে বেরিয়েছে। শিক্ষারত অবস্থায় সে ও তার বন্ধুরা মিলে ঢাকার শাহবাগে অসহায় দুস্থ ও দরিদ্র পথশিশুদের জন্য একটি ভাসমান বিদ্যালয় গড়ে তুলেছে। সেখানে সকলে বিনামূল্যে শিক্ষা লাভের সুযোগ পায়। পথশিশুদের এখানে ধর্মীয় এবং আধুনিক শিক্ষা দান করা হয়। ফাহাদের মা-বাবা ও মহল্লার মানুষেরা তাকে সাধুবাদ জানিয়ে বিভিন্ন সময় নগদ অর্থসহ বিভিন্ন শিক্ষা উপকরণ দিয়ে সাহায্য করে।
ক) মজিদের ক্ষমতার উৎস কী?
খ) মহব্বত নগর গ্রামে মসজিদে আগমনের কারণ কী?
গ) ‘উদ্দীপকের ‘ফাহাদ’ এবং ‘লালসালু উপন্যাসের আক্কাস’Ñ চরিত্রের পার্থক্য নিরূপণ কর।
ঘ) শিক্ষা প্রসার ও পৃষ্ঠপোষকতা প্রদানের বাস্তবতা মূল্যায়নপূর্বক কোন পন্থাকে তুমি গ্রহণযোগ্য মনে করÑ আলোচনা কর।
ঘ অংশÑ সহপাঠ (নাটক)
১০. ১৮৫৭ সাল ভারতবর্ষের রাজনৈতিক ‘ইতিহাসে স্মরণীয় ঘটনা’। ঐ বছর ইংরেজ শাসনের বিরুদ্ধে এ দেশীয় সৈন্যরা বিদ্রোহ ঘোষণা করে পরাজিত হয়। এ ঘটনা থেকে অনুপ্রেরণা লাভ করে বিংশ শতাব্দীর প্রথম দুই দশকে সন্ত্রাসবাদী আন্দোলন জনপ্রিয়তা লাভ করে। ক্ষুদিরাম, মাস্টারদা, সূর্যসেন, প্রীতিলতা, ওদেদ্দারসহ আরও অনেকেই ইংরেজদের বিরুদ্ধে একাধিক যুদ্ধ পরিচালনা করেন। অনেককেই ইংরেজ সরকার কারাবন্দি করে বা ফাঁসির আসামি হিসেবে মৃত্যুদÐ প্রদান করে। যদিও সন্ত্রাস পন্থায় যুদ্ধে বিদ্রোহীরা জয়লাভ করতে পারেননি কিন্তু তারা ইতিহাসের নায়ক হিসেবে আজও অমর হয়ে আছেন।
ক) ‘পলাশীর যুদ্ধ’ কত তারিখে সংঘটিত হয়েছিল?
খ) ‘ব্রিটিশ সিংহ ভয়ে লেজ গুটিয়ে নিলেন এ বড় লজ্জার কথা’Ñ উক্তিটি ব্যাখ্যা কর।
গ) উদ্দীপকের বাস্তবতার সঙ্গে তোমার পঠিত ‘সিরাজউদ্দৌলা’ নাটকের সাদৃশ্য বৈসাদৃশ্য আলোচনা কর।
ঘ) ‘আপসহীন, দৃঢ়চেতা সংগ্রামীরাই যুগে যুগে জাতীয় বীর হিসেবে ইতিহাসে অমরত্ব লাভ করেছেন।’Ñ ‘সিরাজউদ্দৌলা’ নাটকের ক্ষেত্রে উক্তিটি সমানভাবে প্রযোজ্যÑ উদ্দীপকের আলোকে মূল্যায়ন কর।
১১. ‘লালসালু’ একটি সামাজিক সমস্যামূলক উপন্যাস। উপন্যাসের প্রধান চরিত্র মজিদ শঠ, প্রতারক, ধর্ম ব্যবসায়ী এবং শোষক-ভূস্বামী। উপন্যাসের সকল ঘটনার নিয়ন্ত্রক সে। অলৌকিকতার অবতারণা করে মজিদ দুনিয়ায় সচ্ছলভাবে দু-বেলা খেয়ে বাঁচবার জন্য যে খেলা খেলতে যাচ্ছে সে খেলা সাংঘাতিক। মনে সন্দেহ ছিল, ভয়ও ছিল।
ক) ‘সিরাজউদ্দৌলা’ নাটকটি কতটি দৃশ্যে রচিত?
খ) ‘আমার আব্বা, আম্মা পুত্র¯েœহে তোমাকে পালন করেছেন’Ñ এ উক্তিটির তাৎপর্য কী?
গ) উদ্দীপকের ‘মজিদ’ চরিত্রের সাতে ‘সিরাজউদ্দৌলা’ নাটকের তুল্য চরিত্রটি ব্যাখ্যা কর।
ঘ) উদ্দীপকটি ‘সিরাজউদ্দৌলা’ নাটকের কী প্রতিপাদ্যকে ধারণ করে মতভিত্তিক মূল্যায়ন কর।

 


দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।