Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ০৭ আশ্বিন ১৪২৪, ০১ মুহাররম ১৪৩৮ হিজরী
শিরোনাম

দৈনন্দিন জীবনে ইসলাম

| প্রকাশের সময় : ১৯ মার্চ, ২০১৭, ১২:০০ এএম

প্র:- ইমাম যদি মুক্তাদীর আগেই প্রথম বৈঠক, শেষ বৈঠক বা রুক‚-সিজদাহর তাসবীহ শেষ করে পরবর্তী নির্দেশ দিয়ে ফেলেন, তাহলে মুক্তাদী কী করবে?
উ:- সে তাসবীহ ও দোয়ার যেখানে পৌঁছেছে, সেখানে থেমে গিয়ে ইমামের অনুসরণ করবে। এমনিভাবে বিত্রের নামাযেও দোয়ায়ে কুনূত ছেড়ে দিয়ে ইমামের সাথে রুক‚তে চলে যেতে হবে। (আলমগীরী)
প্র:- মুক্তাদী কত প্রকার হতে পারে?
উ:- চার প্রকার: ১. মুদরিক ২. লাহেক ৩. মাসবূক ৪. মাসবূক লাহেক।
মুদরিকÑ যে সম্পূর্ণ নামায ইমামের সাথে আদায় করে।
লাহেকÑ তাকবীরে তাহরীমার পর যার আংশিক বা পূর্ণ কোন রাকাত কারণবশতঃ ছুটে গিয়েছে। মাসবূকÑ যে ব্যক্তি জামাআতে শরীক হওয়ার আগেই ইমাম সকল বা কয়েক রাকাত আদায় করে ফেলেছে। মাসবূকে লাহেকÑ যে এক রাকাত শেষ  হওয়ার পর জামাআতে শরীক হয়েছে এবং পরবর্তী কোন রাকাত বিশেষ কোন কারণে ছেড়ে দিয়েছে।
প্র:- মাসবূক তার অবশিষ্ট নামায কিভাবে আদায় করবে?
উ:- ইমাম উভয় সালাম ফিরানোর পর মাসবূক দাঁড়িয়ে সূরা কিরাতসহ তার ছুটে যাওয়া রাকাতগুলো আদায় করবে এবং যথারীতি সালাম ফিরিয়ে নামায সমাপ্ত করবে।
-মুফতী ওয়ালীয়ুর রহমান খান

 


দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।