Inqilab Logo

ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৯ অক্টোবর ২০২০, ১৩ কার্তিক ১৪২৭, ১১ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী

ভারতকে গুঁড়িয়ে পাকিস্তানের সামনে আফগানিস্তান

| প্রকাশের সময় : ৩১ মার্চ, ২০১৭, ১২:০০ এএম

রুমু, চট্টগ্রাম ব্যুরো : আফগানদের ক্রিকেট শক্তির গভীরতার প্রমাণ পেয়েছে ভারতের অনূর্ধ্ব-২৩ দল। ইমার্জিং টিমস এশিয়া কাপে গতকাল চট্টগ্রাম জহুর আহমদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে গ্রæপ পর্বের ম্যাচে ভারতের দলটিকে ২ উইকেটে হারিয়েছে তারা। ওই দুর্দান্ত জয় তুলে নিয়ে চমক সৃষ্টির পাশাপাশি ভারতের দলটিকে পেছনে ফেলে এই টুর্নামেন্টের সেমিফাইনালে উঠে গেছে আফগানিস্তানের এই দলটি। আফগানদের কাছে হেরে এই টুর্নামেন্টের গ্রæপ পর্ব থেকেই বিদায় নিতে হলো ভারতের দলটিকে। আফগানিস্তানের কাছে হারলেও শ্রীলংকা ও মালয়েশিয়াকে হারিয়ে চার পয়েন্ট পেয়েছিল ভারত। মালয়েশিয়া ও ভারতকে হারিয়ে আফগানদের পয়েন্টও চার হয়। রান রেটে ভারতের চেয়ে এগিয়ে থেকে এই গ্রæপ থেকে রানার্স আপ হিসেবে সেমিফাইনালে উন্নীত হয় আফগানরা। মালয়েশিয়া ও আফগানিস্তানকে হারিয়ে চার পয়েন্ট পাওয়া লংকানরা রানরেটে সবার উপরে থাকায় গ্রæপ চাম্পিয়ন হয়েই শেষ চারে পা রেখেছে।
গতকাল চট্টগ্রামের এমএ আজিজ স্টেডিয়ামে মালয়েশিয়াকে ২০৫ রানের বিশাল ব্যবধানে হারিয়ে সেমিফাইনাল নিশ্চিত করে লংকানরা। সেঞ্চুরি করা ওপেনার সাদিরার সঙ্গে হাফ সেঞ্চুরিয়ান আশালঙ্কার তৃতীয় উইকেট জুটিতে করা ১৪৭ রান লংকানদের ৫০ ওভারে ৯ উইকেটে ৩১১ রানের পাহাড় গড়তে রাখে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা। জবাবে ১০৬ রানেই গুঁটিয়ে যায় মালয়েশিয়ানরা। আগামীকাল চট্টগ্রামের জহুর আহমদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে বি-গ্রæপ রানার্স আপ স্বাগতিক বাংলাদেশ দলের বিপক্ষে প্রথম সেমিফাইনালে মাঠে নামবে এ-গ্রæপ চ্যাম্পিয়ন শ্রীলংকা। একই দিন চট্টগ্রামের এমএ আজিজ স্টেডিয়ামে বি-গ্রæপ চ্যাম্পিয়ন পাকিস্তানের সঙ্গে লড়বে এ-গ্রæপ রানার্স আপ আফগানিস্তান।
দলীয় ১৫৮ রানে নবীনের বলে উইকেট কিপার মনিরের চতুর্থ ক্যাচ হন শুভাম (৪৬)। তবে শুভাম মাত্র চার রানের জন্য ফিফটি করতে না পারলেও নিজের ফিফটি পূর্ণ করার পাশাপাশি দলকে ৫০ ওভার শেষে ৮ উইকেটে ২৪২ রানে নিয়ে যান অপরাজিত মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান হনুমা বিহারী। ৬০ বলে চারটি চার ও একটি বিশাল ছক্কায় অপরাজিত ৫৯ রান করেন হনুমা। বল হাতে নবীন চার উইকেট লাভ করেন। উইকেটের পেছনে দাঁড়িয়ে ভারতীয় পাঁচ ব্যাটসম্যানের ক্যাচ নেন আফগান উইকেট কিপার মনির আহমদ। জয়ের জন্য ২৪৩ রানের টার্গেট খুব বেশি চ্যালেঞ্জিং নয় ধুন্ধুমার ব্যাটিং করা আফগানদের জন্য। এরমধ্যে ওয়ান ও টু ডাউনে নাম ইউনেস ও সামি তৃতীয় উইকেটে ৮৪ রানের জুটি গড়ে জয়ের টার্গেট আরো সহজ করে দেন। জয়ের জন্য যখন দুই রান দরকার তখন আমির গনিকে লংঅন দিয়ে উড়িয়ে ছক্কা মেরে দলের জয় নিশ্চিত করেন আরেক অপরাজিত ব্যাটসম্যান আফতাব আলম (৬)। ব্যাট হাতে প্রথম বল মোকাবিলা করেই ওই ছক্কা হাঁকান তিনি। মাত্র ১৬ বলে দু’টি চার ও একটি ছক্কায় ২৬ রানে অপরাজিত ছিলেন আশরাফ।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ভারত


আরও
আরও পড়ুন