Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার , ১৯ নভেম্বর ২০১৯, ০৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ২১ রবিউল আউয়াল ১৪৪১ হিজরী

বার্সার প্রতিশোধ, মেসির মাইলফলক

প্রকাশের সময় : ১ মার্চ, ২০১৬, ১২:০০ এএম

স্পোর্টস ডেস্ক  : যাত্রার শুরুটা হয়েছিল প্রায় পাঁচ মাস আগে সানচেস পিজুয়ানে সেভিয়ার বিপক্ষে হেরে। এবার ঘরের মাঠে সেই হারের প্রতিশোধ নিয়ে সব প্রতিযোগিতা মিলে রিয়াল মাদ্রিদের (১৯৮৮-৮৯) সমান টানা ৩৪ ম্যাচ অপরাজিত থাকার রেকর্ড গড়ল বার্সেলোনা। দ্বিতীয় পছন্দের প্রতিপক্ষকে পেয়ে এদিন টানা ৮ মৌসুম ত্রিশোর্ধ গোল করার মাইলফলক স্পর্শ করেন লিওনেল মেসি। ২-১ জয়ের অন্য গোলটি জেরার্ড পিকের নামে। তবে ম্যাচ শেষে সবচেয়ে বড় হিসাবটা হল শিরোপা দৌড়ে পয়েন্ট তালিকার দ্বিতীয় দল অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদের (৫৮) চেয়ে ৮ ও তৃতীয় নম্বরে থাকা চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী রিয়াল মাদ্রিদের (৫৪) চেয়ে ১২ পয়েন্টে এগিয়ে গেল বার্সেলোনা (৬৬)।
ম্যাচের শুরুর গল্পটা অবশ্য কাতালান ভক্তদের জন্য ছিল সুখকর ছিল না। প্রথম হতাশায় পুড়তে হয় ত্রোয়োদশ মিনিটেই দুই-দু’বার পোষ্টের বাধায় গোল বঞ্চিত হয়ে। মেসির কর্নার কিক কোনমতে হাত দিয়ে ঠেকিয়ে দেন সেভিয়া গোলরক্ষক সার্জিও রিকো যা বারে লেগে প্রতিহত হয়ে ফিরে আসে। ফিরতি বলে লুইস সুয়ারেজের শট আবারো ক্রসবার কাঁপিয়ে প্রতিহত হয়। এই হতাশা কাটিয়ে উঠতেই সবচেয়ে বড় ধাক্কাটা এসে লাগে স্বাগতিক শিবিরে। যে সেভিয়ার কাছে হেরে বার্সার জয়রথের যাত্রা শুরু হয়েছিল সেই সেভিয়াই রথের লাগাম টেনে ধরেছিল ২০তম মিনিটেই। এসময় ন্যু ক্যাম্পের প্রায় ৭৯ সহ¯্রাধিক কাতালান ভক্তদের স্তব্ধ করে দেন ম্যাসিন পেরেজ। কিন্তু ৮ মিনিট বাদেই প্রিয় প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে জ্বলে ওঠেন ফুটবল জাদুকর। ডি বক্সের ২৩ মিটার দুর থেকে ফ্রি-কিকের মাধ্যমে ৫ জন খেলোয়াড় দেওয়ালের মাথার ওপর দিয়ে বল ভাসিয়ে দেয় মেসি বাঁ পা। গোলরক্ষক সার্জিও রিকো দেখলেনÑ বল যে পথ দিয়ে জালে যাচ্ছে সেখানে প্রতিরোধ দেওয়া তার পক্ষে চুড়ান্ত অসম্ভব। মন্ত্র মুগ্ধের মত শুধু দেখলেন চেয়ে। মৌসুমে লিগ সর্বোচ্চ ষষ্ঠ ফ্রি-কিক গোল এটি আর্জেন্টাইন জাদুকরের। আর জয় সুচক গোলটি আসে বিরতির পরেই। মেসির বাড়ানো বলে শট নিলেন সুয়ারেজ, পিকে সেটাকে ঘুরিয়ে দিলেন জাল বরাবর। তাতেই লা লিগায় টানা ৯ জয় নিশ্চিত হয় বার্সার। পরে ব্যবধান বাড়ানোর সুযোগ এসেছিল নেইমার-সুয়ারেজের সামনেও। নেইমার কাটা পড়েন গোলরক্ষকের অপ্রত্যাশিত বাধায়, আর সুয়ারেজ বলের নিয়ন্ত্রণ নিতে না পারায়।
গত ৭ ম্যাচে ৫ জয় নিয়ে কাতালান ডেরায় পা রেখেিেছল সেভিয়া। পয়েন্ট তালিকায়ও উঠে আসে ৫ নম্বরে। তার প্রভাব থাকল চ্যাম্পিয়নদের বিপক্ষেও। এমন প্রতিপক্ষের বিপক্ষে জয়টা যে সহজ ছিল না সেটা স্বীকারও করলেন বার্সা ডিফেন্ডার পিকেÑ ‘ম্যাচে এভাবে ঘুরে দাঁড়ানোটা সহজ ছিল না এবং আমরা সেটা দুর্দান্তভাবেই করেছি।’ আর কোচ লুইস এনরিকে তো আরো এক ধাপ বাড়িয়ে সেভিয়াকে দিলেন প্রশংসাপত্র। ম্যাচ শেষে তিনি বলেনÑ ‘তারাই একমাত্র দল যারা আমাদের সাথে সবচেয়ে বেশি লড়তে পেরেছে। ন্যু ক্যাম্পে মৌসুমের সেরা প্রতিপক্ষ দল তাঁরা।’
মৌসুমে আরো একরার দেখা হচ্ছে দু’দলের। আগামী ২১ মে মাদ্রিদে অনুষ্ঠেয় কোপা দেল রে’র ফাইনালে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: বার্সার প্রতিশোধ
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ