Inqilab Logo

ঢাকা শুক্রবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২০, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১৮ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী

ধামরাইয়ে ৪ বছরেও চিকিৎসাসেবা চালু হয়নি ট্রমা সেন্টারে

| প্রকাশের সময় : ৩ এপ্রিল, ২০১৭, ১২:০০ এএম

আনিস উর রহমান স্বপন, ধামরাই (ঢাকা) থেকে : ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের পাশে ঢাকার ধামরাইয়ে উদ্বোধনের অপেক্ষায় রয়েছে ট্রমা সেন্টার (অর্থোপেডিক্স হাসপাতাল)। ২০শয্যাবিশিষ্ট ৩ তলা এই হাসপাতালের নির্মাণ কাজ কয়েক বছর আগে প্রায় শেষ হলেও বুঝে পায়নি কর্তৃপক্ষ। হাসপাতালটি চালু হলে মহাসড়কসহ অন্যান্য দুর্ঘটনায় আহত রুগীরা তাৎক্ষণিক চিকিৎসাসেবা পাবে। এতে আশপাশের কয়েকটি উপজেলার মানুষ অল্পখরচে পাবেন আধুনিক চিকিৎসাসেবা। তখন আর উন্নত চিকিৎসার জন্য টাকা ব্যয় করে দূরে কোথাও যেতে হবে না। বংশী নদীর তীরে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের পাশে ৫০ শয্যাবিশিষ্ট ধামরাই উপজেলা সরকারি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের পাশেই আওয়ামী সমর্থিত বর্তমান সরকারের সময়েই ২০শয্যাবিশিষ্ট হাসপাতালের এই ভবনটি নির্মাণ করা হয়েছে। নির্মাণ কাজ শতভাগ শেষ হওয়ার পথে। লিফটের সুবিধা ছাড়াই ভবনটি এমনভাবে নির্মাণ করা হয়েছে যে, একেবারেই নিচ থেকে ট্রলি দিয়ে উপরে উঠা যাবে। জনবল না থাকায় চিকিৎসাসেবা চলছে না বিধায় ভবনটি যেন এতিমের মতো দাঁড়িয়ে আছে। এ যেন দেখার কেউ নেই। নিজস্ব জেনারেটর, আধুনিক চিকিৎসা সরঞ্জাম, অ্যাম্বুলেন্স, অপারেশন থিয়েটার ও বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের সমন্বয়ে পূর্ণাঙ্গ এই হাসপাতাল চালু হলে অল্পখরচে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কে দুর্ঘটনা ও ধামরাইয়ের আশপাশের মানুষ হাড় ভাঙার চিকিৎসা এবং অপারেশনের সুযোগ পাবে বলে জানা গেছে। স্থানীয়রা জানিয়েছেন, স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী জাহিদ মালেক স্বপন এমপির পাশের উপজেলা হলেও ৪ বছর পূর্বে হাসপাতালের ভবনের নির্মাণ কাজ সম্পন্ন হলেও চিকিৎসাসেবা চালু হচ্ছে না। এ ক্ষেত্রে স্থানীয় লোকজন বলেন, আমরা আধুনিক নির্মিত ভবন দেখেই যাচ্ছি। তবে কবে নাগাদ সাধারণ মানুষ চিকিৎসাসেবা পাবে তা কেউ বলতে পারছে না। ব্যাপারে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্মকর্তা ডা. মোয়াজ্জেম হোসেন খান বলেন, কতদিন পর চালু হবে আমি অবগত নই। তবে হাসপাতালটি চালু করার ব্যাপারে উপর মহল অবগত আছেন।



 

Show all comments
  • Nur- Muhammad ৩ এপ্রিল, ২০১৭, ১:৪৫ পিএম says : 0
    ভবনটি দেখতে নয়নবিরাম ই লাগে। বাহির হেকে দেখতে সন্দর ই মনে হয়। আবশ্যই জনগণের কষ্টার্জিত অনেক টাকা খরচ হয়েছে। উদ্দিশ্য, চিকৎসা ও সেবা দেওয়া। কিন্তু আমলাতান্তিক ও কালো হাতের ইশারায় এখন ও চালু হচ্ছে না। এখানে যে সাধারন হাসপাতালটি আছে, সেখানে অধিকাংশ চিকিৎসক ভালো ব্যবহার ও চিকিৎসা দিয়ে থাকে। কিন্তু কিছু লোক ঘুর ঘুর করে। সাধারন কোন রোগী গেলে ও তারা রোগীকে নিৎসাহিত করে। এই দালালবাজরা বলে, এনাম বা অন্য কোন বেসরকারী হাসপাতালে নিয়া যান, এখানের চিকিৎসা ভালো না। তাই মনে হয় দালাল বা তৃতিয় পক্ষের কোন প্রবাহে এই ট্রমা সেন্টারটি চালু হচ্ছে না। অতিসত্বর ট্রমা সেন্টারটি চালু করুন।জনসেবায় অবদান রাখুন। ধন্যবাদ। ধন্যবাদ সবায়কে।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন