Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ০৯ ফাল্গুন ১৪২৬, ২৭ জামাদিউস সানি ১৪৪১ হিজরী

বাণিজ্য বাড়ানোর মিশন নিয়ে সউদি সফরে থেরেসা মে

ব্রেক্সিটের পর বিদেশি বিনিয়োগ নিশ্চিত করার উদ্যোগ

| প্রকাশের সময় : ৬ এপ্রিল, ২০১৭, ১২:০০ এএম

ইনকিলাব ডেস্ক : ব্রেক্সিটের পর বিনিয়োগ নিশ্চিত রাখতে এবং বাণিজ্য স¤প্রসারণের তাগিদে যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে সউদি আরব সফর করছেন। গত মঙ্গলবার সউদি আরবের রাজধানী রিয়াদ পৌঁছান থেরেসা মে। তার সফরে অর্থনৈতিক ইস্যুকে অগ্রাধিকার দেয়া হচ্ছে। উল্লেখ্য, আরব বিশ্বে যুক্তরাজ্যের সবচেয়ে বড় বাণিজ্য অংশীদার সউদি আরব। গত মাসে ব্রেক্সিটের আনুষ্ঠানিক প্রক্রিয়া শুরু করেন থেরেসা মে। লিবসন চুক্তির ৫০ অনুচ্ছেদ অনুযায়ী ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) থেকে যুক্তরাজ্যের বেরিয়ে যাওয়ার বিষয়ে লিখিতভাবে জানিয়েছেন তিনি। দীর্ঘ ৪৪ বছর পর এচুক্তি থেকে বেরিয়ে যাচ্ছে দেশটি। সউদি শেয়ারবাজারের প্রধান সারা আল-সুহাইমি এবং সউদি সাম্রাজ্যের সিংহাসনের প্রথম উত্তরাধিকারী ও দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন নায়েফের সঙ্গে বৈঠক করেছেন থেরেসা মে। এরপরই বাদশা সালমানের সঙ্গে বৈঠকের কথা রয়েছে তার।
ব্রিটিশ অর্থনীতির অগ্রগতির জন্য তিনি সউদি আরবের সম্ভাবনাময়ী বিনিয়োগ প্রত্যাশা করেন বলে জানিয়েছেন থেরেসা মে। ইইউ থেকে বেরিয়ে যাওয়ার প্রক্রিয়া শুরু হওয়ায় নতুন বাণিজ্য চুক্তির দিকে দৃষ্টি দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। এ ক্ষেত্রে তারা দীর্ঘদিনের বন্ধু দেশ তেলসমৃদ্ধ সউদি আরবকে অগ্রাধিকার তালিকায় রেখেছে। উল্লেখ্য, মধ্যপ্রাচ্যে যুক্তরাজ্যের সবচেয়ে বড় ব্যবসায়ী অংশীদার সউদি আরব। ২০১৫ সালে সউদি আরবে যুক্তরাজ্যের পণ্য ও সেবার রপ্তানি ছিল ৮ বিলিয়ন ডলারের বেশি। এদিকে, সউদি আরবও বিদেশি বিনিয়োগের দিকে ঝুঁকেছে। তাদের ‘ভিশন ২০৩০’ বাস্তবায়নে গুরুত্ব দিয়েছে তারা। এ সময়ের মধ্যে তেলভিত্তিক অর্থনৈতিক নির্ভরতা কমিয়ে উৎপাদনমুখী অর্থনীতি দঁাঁড় করাতে চায় সউদি আরব। আলজাজিরা অনলাইন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ব্রেক্সিটের


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ