Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার, ২০ অক্টোবর ২০১৯, ০৪ কার্তিক ১৪২৬, ২০ সফর ১৪৪১ হিজরী

সাটুরিয়ায় পোশাক কারখানায় শ্রমিক অসন্তোষ

| প্রকাশের সময় : ৭ এপ্রিল, ২০১৭, ১২:০০ এএম

সাটুরিয়া (মানিকগঞ্জ) উপজেলা সংবাদদাতা : মানিকগঞ্জের সাটুরিয়া উপজেলার নয়াডিঙ্গীর তারাশিমা অ্যাপারেলস নামে একটি পোশাক কারখানায় শ্রমিক অসন্তোষ দেখা দিয়েছে। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে শ্রমিক পুলিশের মাঝে কয়েকবার ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। এ অবস্থায় কারখানাটি বন্ধ ঘোষণা করেছে কর্তৃপক্ষ। জানা গেছে, গত বুধবার সন্ধ্যায় মানিকগঞ্জের গোলড়া এলাকায় তারাশিমা অ্যাপারেলস পোশাক কারখানার কর্মী বোঝাই একটি বাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খাদে পড়ে ৪০ শ্রমিক আহত হয়। আর আজ বৃহস্প্রতিবার সকালে সাটুরিয়ার নয়াডিঙ্গী বাসস্ট্যান্ড সংলগ্ন এলাকায় পোশাক কারখানার শ্রমিক পরিবহনের বাসের সঙ্গে ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে ৩৫ পোশাক শ্রমিক আহত হয়। এ দুটি দুর্ঘটনায় আহত শ্রমিকদের কয়েকজন মারা গেছে। ও তাদের লাশ কারখানায় লুকিয়ে রাখা হয়েছে দাবি করে। বৃহস্প্রতিবার সকালে শ্রমিকরা কাজে যোগ না দিয়ে কারখানায় এসে বিক্ষোভ শুরু করে। পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করলে শ্রমিক-পুলিশ ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া হয় বেশ কয়েক বার। নাম প্রকাশ না করার শর্তে তারাশিমা অ্যাপারেলস কারখানার কয়েকজন শ্রমিক জানায়, কারখানায় শ্রমিক পরিবহনের বাসগুলোর অবস্থা খুবই খারাপ। এ ছাড়াও বাসগুলোর বেশিরভাগ চালক অপ্রাপ্ত বয়স্ক ও তাদের ডাইভিং লাইসেন্স নেই। যার কারনে প্রতিনিয়ত দুর্ঘটনা ঘটে ও শ্রমিকরা আহত হচ্ছে। এ বিষয়ে কথা বলতে কারখার কোন কর্মকর্তা রাজি হয়নি। সাটুরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো: আমিনুর ইসলাম জানায়, সকালে শ্রমিকরা কাজে যোগ না দিয়ে বিক্ষোভ শুরু করে। এ অবস্থায় কারখানাটি বন্ধ ঘোষণা করেছে কর্তৃপক্ষ। মানিকগঞ্জ পুলিশ সুপার মাহফুজুর রহমান জানায়, কারখানার কর্মকর্তাদের গাফিলতির কারনে এ অপ্রীতিকর অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: শ্রমিক

২৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন