Inqilab Logo

ঢাকা সোমবার, ১৮ জানুয়ারি ২০২১, ০৪ মাঘ ১৪২৭, ০৪ জামাদিউস সানী ১৪৪২ হিজরী

ডিএসইতে লেনদেন বেড়েছে ২৯ শতাংশ

| প্রকাশের সময় : ৯ এপ্রিল, ২০১৭, ১২:০০ এএম

অর্থনৈতিক রিপোর্টার : সপ্তাহের ব্যবধানে দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) লেনদেন আবারও বেড়েছে। গত সপ্তাহের পাঁচ কার্যদিবসে আগের সপ্তাহের তুলনায় লেনদেন বেড়েছে ১ হাজার ৬৮ কোটি ৩০ লাখ বা ২৮ দশমিক ৬৮ শতাংশ। আগের সপ্তাহে বাজারটিতে লেনদেন কমেছিল ১ হাজার ৯৬৭ কোটি ৯৯ লাখ টাকা বা ৩৪ দশমিক ৫৭ শতাংশ। তারও আগের সপ্তাহে ডিএসইতে লেনদেন বাড়ে ৫০৫ কোটি ২৩ লাখ টাকা বা ৯ দশমিক ৭৪ শতাংশ।
গত সপ্তাহজুড়ে ডিএসইতে লেনদেন হয় ৪ হাজার ৭৯৩ কোটি ৭৫ লাখ টাকা। আগের সপ্তাহে লেনদেন হয়েছিল ৩ হাজার ৭২৫ কোটি ৪৫ লাখ টাকা। মোট লেনদেনের পাশাপাশি শেষ সপ্তাহে ডিএসইতে দৈনিক গড় লেনদেনও বেড়েছে। সপ্তাহজুড়ে প্রতি কার্যদিবসে গড় লেনদেন হয়েছে ৯৫৮ কোটি ৭৫ লাখ টাকা, যা তার আগের সপ্তাহে ছিল ৯৩১ কোটি ৩৬ লাখ টাকা। অর্থাৎ প্রতি কার্যদিবসে গড় লেনদেন বেড়েছে ২৭ কোটি ৩৯ লাখ টাকা বা ২ দশমিক ৯৪ শতাংশ।
লেনদেনের পাশাপাশি ডিএসইসিতে বেড়েছে মূল্যসূচকও। ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স সপ্তাহজুড়ে বেড়েছে ১৬ দশমিক ৭৯ পয়েন্ট বা দশমিক ২৯ শতাংশ। অন্য দু’টির মধ্যে ডিএসই-৩০ সূচক বেড়েছে ৪৩ দশমিক ৪৪ পয়েন্ট বা ২ দশমিক শূন্য ৮ শতাংশ। আর ডিএসই শরিয়াহ সূচক বেড়েছে ৮ দশমিক ৯৯ পয়েন্ট বা দশমিক ৬৯ শতাংশ।
সপ্তাহজুড়ে ডিএসইতে লেনদেন হওয়া ৩৩২টি কোম্পানির শেয়ার ও ইউনিটের মধ্যে ১৩৫টির বা ৪১ শতাংশের দাম বেড়েছে। অপরদিকে দাম কমেছে ১৭৮টির বা ৫৩ শতাংশের। আর অপরিবর্তিত রয়েছে ১৯টির বা ৬ শতাংশের দাম। গত সপ্তাহে মোট লেনদেনের ৯৫ দশমিক ৬০ শতাংশই ছিল ‘এ’ ক্যাটাগরিভুক্ত কোম্পানির শেয়ারের দখলে।
এছাড়া বাকি ২ দশমিক ৪৩ শতাংশ ‘বি’ ক্যাটাগরিভুক্ত, ১ দশমিক ২৪ শতাংশ ‘এন’ ক্যাটাগরিভুক্ত এবং দশমিক ৭৩ শতাংশ ‘জেড’ ক্যাটাগরিভুক্ত কোম্পানির শেয়ারের।
সপ্তাহজুড়ে ডিএসইতে টাকার অঙ্কে সবচেয়ে বেশি লেনদেন হয়েছে সিটি ব্যাংকের শেয়ার। কোম্পানির ২৫৯ কোটি ২ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে, যা সপ্তাহজুড়ে হওয়া মোট লেনদেনের ৫ দশমিক ৪০ শতাংশ। দ্বিতীয় স্থানে থাকা লংকাবাংলা ফিন্যান্সের শেয়ার লেনদেন হয়েছে ১৯০ কোটি ৬৫ লাখ টাকার, যা সপ্তাহের মোট লেনদেনের ৩ দশমিক ৯৮ শতাংশ। ১৭১ কোটি ৬৮ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেনে তৃতীয় স্থানে রয়েছে বাংলাদেশ এক্সপোর্ট ইমপোর্ট কোম্পানি (বেক্সিমকো)। লেনদেনে এরপর রয়েছেÑ আইডিএলসি ফিন্যান্স, বেক্সিমকো ফার্মা, ব্র্যাক ব্যাংক, স্কয়ার ফার্মা, রতনপুর স্টিল রি-রোলিং মিলস, ইসলামী ব্যাংক এবং ওয়ান ব্যাংক। গত সপ্তাহের শেষ কার্যদিবস শেষে ডিএসইর বাজার মূলধন দাঁড়িয়েছে ৩ লাখ ৮২ হাজার ৩৫৯ কোটি টাকা, যা তার আগের সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসে ছিল ৩ লাখ ৭৯ হাজার ৮৩০ কোটি টাকা।
লুজারের শীর্ষে ইসলামী ব্যাংক: ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) টপটেন লুজার তালিকার শীর্ষে অবস্থান করছে ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেড। আলোচ্য সপ্তাহে কোম্পানিটির শেয়ারের দর কমেছে ১৫ দশমিক ০৯ শতাংশ। গড়ে প্রতিদিন কোম্পানিটির ১৮ কোটি ৪১ লাখ ৪৭ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। পুরো সপ্তাহে কোম্পানিটির মোট ৯২ কোটি ৮ লাখ ৩৮ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে।
লুজারের দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে ফারইস্ট ফাইন্যান্স অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট লিমিটেড। এই কোম্পানির প্রতিটি শেয়ারের দর কমেছে ১২ দশমিক ৪১ শতাংশ।
গড়ে প্রতিদিন কোম্পানিটির ১ কোটি ৮২ লাখ ৬ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। পুরো সপ্তাহে কোম্পানিটির মোট ৯ কোটি ১০ লাখ ৩৩ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে।
তালিকায় তৃতীয় স্থানে রয়েছে ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক লিমিটেড। এ কোম্পানির শেয়ার দর ১১ দশমিক ০৬ শতাংশ কমেছে। গড়ে প্রতিদিন কোম্পানিটির ৭ কোটি ১২ লাখ ৮৯ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। পুরো সপ্তাহে কোম্পানিটির মোট ৩৫ কোটি ৬৪ লাখ ৪৮ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে।
এছাড়া লুজারে থাকা অন্য কোম্পানিগুলোর মধ্যে ন্যাশনাল ফিড মিলে ১০ দশমিক ২৮ শতাংশ, সেন্ট্রাল ফার্মাসিউটিক্যালসে ১০ দশমিক ২৫ শতাংশ, মার্কেন্টাইল ইন্স্যুরেন্সে ১০ শতাংশ, প্রগতি ইন্স্যুরেন্সে ৯ দশমিক ৪৭ শতাংশ, এবি ব্যাংকে ৯ দশমিক ৩৬ শতাংশ, বাংলাদেশ ফাইন্যান্স অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্টে ৮ দশমিক ৫৭ শতাংশ এবং আইএফআইসি ব্যাংকে ৮ দশমিক ৫৪ শতাংশ দর কমেছে।
ডিএসই’র পিই রেশিও বেড়েছে ০ দশমিক ৮০ শতাংশ: দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সাপ্তাহিক লেনদেনে সার্বিক মূল্য আয় অনুপাত (পিই রেশিও) বেড়েছে ০ দশমিক ৮০ শতাংশ। বর্তমানে ডিএসই’র পিই রেশিও অবস্থান করছে ১৬ দশমিক ৪৫ পয়েন্টে। যা গত সপ্তাহের শুরুতে ছিল ১৬ দশমিক ৩২ পয়েন্ট। অর্থাৎ পিই বেড়েছে ০ দশমিক ১৩ পয়েন্ট বা ০ দশমিক ৮০ শতাংশ।
বর্তমানে খাতভিত্তিক হিসাবে ব্যাংকিং খাতের পিই অবস্থান করছে ১০.৩৭ পয়েন্টে, সিমেন্ট খাতে ২৯.০৯, সিরামিকস খাতে ২৫.৩৩, প্রকৌশল খাতে ২২.৮১, আর্থিক প্রতিষ্ঠানের ২৫.২৯, খাদ্য ও আনুষঙ্গিক খাতে ২২.৫১, জ্বালানি ও বিদ্যুৎ খাতে ১৩.০৬, বীমা খাতে ১৯.৭৫, তথ্য-প্রযুক্তি খাতে ২৯.৯৭, বিবিধ খাতে ২৯.০৭, ওষুধ ও রসায়ন খাতে ২০.০৬, সেবা ও আবাসন খাতে ১৩.৮৯, ট্যানারী খাতে ১৮.৭৯, টেলিযোগাযোগ খাতে ২১.২৩, বস্ত্র খাতে ১৮.৯৬ এবং ভ্রমণ ও অবকাশ খাত ২৭.৯২ পয়েন্টে রয়েছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ডিএসই

১৬ জানুয়ারি, ২০২১
১৪ জানুয়ারি, ২০২১
১২ জানুয়ারি, ২০২১
১৮ ডিসেম্বর, ২০২০

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ