Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার, ২০ আগস্ট ২০১৭, ৫ ভাদ্র, ১৪২৪, ২৬ যিলকদ ১৪৩৮ হিজরী
শিরোনাম

সিরিয়ায় মার্কিন হামলার প্রতি আনুষ্ঠানিক সমর্থন ঘোষণা

বাদশাহ সালমানের সভাপতিত্বে সউদী মন্ত্রী পরিষদের বৈঠক

| প্রকাশের সময় : ১৩ এপ্রিল, ২০১৭, ১২:০০ এএম

ইনকিলাব ডেস্ক : সিরিয়ার সামরিক ঘাঁটি লক্ষ্য করে পরিচালিত যুক্তরাষ্ট্রের ক্ষেপণাস্ত্র হামালার প্রতি পূর্ণাঙ্গ সমর্থন ঘোষণা করেছে সউদি আরবের মন্ত্রী পরিষদ। সিরীয় জনগণের ওপর সরকারি বাহিনী রাসায়নিক হামলা চালিয়ে যে জঘন্য অপরাধ করেছে তার প্রতিশোধ হিসেবে এই ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালানো হয়। গত সোমবার রাওদাত খুরাইম-এ অনুষ্ঠিত মন্ত্রী পরিষদের সাপ্তাহিক সভায় সভাপতিত্ব করেন বাদশাহ সালমান। সউদি আরবের তথ্য ও সংস্কৃতি মন্ত্রী আদেল আল-তারাইফি এ তথ্য প্রকাশ করতে গিয়ে বলেছেন, সিরিয়ার বাশার সরকার দেশটির উত্তরাঞ্চলীয় ইদলিব প্রদেশের খান শেইখোন শহরে যে ভয়ঙ্কর রাসায়নিক হামলা চালিয়েছে, সউদি মন্ত্রী পরিষদ তার কঠোর নিন্দা করেছে। ওই হামলায় ব্যাপক সংখ্যক নিরপরাধ লোকের প্রাণহানি হয়েছে, যাদের মধ্যে নারী ও শিশুও রয়েছে। সউদি মন্ত্রী পরিষদ বাশার সরকারের এই বর্বর হামলাকে একটি ভয়াবহ মানবিক বিপর্যয় হিসেবে অভিহিত করেছে এবং একই সঙ্গে মন্ত্রি পরিষদের সভায় এই জঘন্য মানবিক অপরাধের প্রতিশোধস্বরূপ বাশার সরকারের ঘাঁটি লক্ষ্য করে যুক্তরাষ্ট্র যে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালায় তার প্রতি পূর্ণ সমর্থন প্রকাশ করা হয়। মন্ত্রী পরিষদের বৈঠকের পর প্রকাশিত বিবৃতিতে সউদি তথ্য ও সংস্কৃতি মন্ত্রী বলেন, মন্ত্রী পরিষদের সভায় সিরিয়ার ঐক্য এবং অখÐতার প্রতি জোরালো সমর্থন জানানো হয়। সিরিয়ায় এ ধরনের মানবিক বিপর্যয় এড়ানোর জন্য মন্ত্রী পরিষদের বৈঠকে জেনেভা কনফারেন্সের ঘোষণা এবং জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের ২২৫৪ নম্বর প্রস্তাব অনুযায়ী সিরিয়া সংকটের শান্তিপূর্ণ মীমাংসার দাবি জানানো হয়। এই বৈঠকে মিসরের তান্তা ও আলেকজান্দ্রিয়া শহরে এবং রাশিয়ার সেন্ট পিটার্সবার্গ ও সুইডেনের স্টকহোমে পরিচালিত সন্ত্রাসী হামলাগুলোরও নিন্দা জানানো হয়। সউদি গেজেট।

 


Show all comments
  • মাহফুজুল কারিম ১৪ এপ্রিল, ২০১৭, ১:০০ পিএম says : 2
    সৌদি আরবের সরকার ............... । ইসরাইল নামক অবৈধ রাষ্ট্র যখন ফিলিস্তিনিদের হত্যা করে, তখন তারা সামান্য প্রতিবাদ করে না । অথচ একটা মুসলিম দেশে গৃহযুদ্ধ বেধেছে সেখানে সমঝোতা না করে তারা আমেরিকার হামলাকে সমর্থন জানায় । দুনিয়ার সব সম্পদ নিয়ে বিলাসী জীবন যাপন করছে, কিন্তু পশ্চাদপদ মুসলিম জাতির শিক্ষা, স্বাস্থ্য সহ সামগ্রিক উন্নয়নে তারা চূড়ান্তভাবে ব্যর্থ । তারা নিজেরাও জ্ঞান বিজ্ঞানে অনেক পিছিয়ে । বাংলাদেশ থেকে সৌদিতে যাওয়া শ্রমিকদেরও তারা অনেক অত্যাচার নির্যাতন করে । অথচ তারা এমন ভাব দেখায় যে তারাই মুসলিম বিশ্বের নেতা । কিন্তু তাদের কি সে যোগ্যতা আছে?
    Total Reply(2) Reply
    • ২৯ এপ্রিল, ২০১৭, ১২:৫৫ পিএম says : 0
      নাই
    • Gazi Farok ২৯ এপ্রিল, ২০১৭, ৭:২৩ পিএম says : 0
      Off course, Saudi Kingship should abolish for the better life of Islamic world. Because they supported Trump who banned the Muslim entry in the U.S.A (land of immigrants from beginning of its history).
  • আব্দুল্লাহ মামুন ২০ এপ্রিল, ২০১৭, ১১:০৪ এএম says : 2
    সৌদি আরব
    Total Reply(0) Reply
  • Md. Habib Hasan ১ মে, ২০১৭, ৬:৩৯ এএম says : 0
    What Bashar have done it questionable - whether he have done or not, but this doew not give USA the right to attack in Syria. And being a Muslim Country you should not have supported the action of USA. This will make them and they will do more and more illegal attacks on Muslim Countries.
    Total Reply(0) Reply
  • M.B. Rahman ৬ মে, ২০১৭, ১০:২১ পিএম says : 0
    Keeping in mind Trump's antimuslim role Saudi Kingdom should not supported US attack in the fellow Muslim Arab state.
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ