Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৭ এপ্রিল ২০১৭, ১৪ বৈশাখ , ১৪২৪, ২৯ রজব ১৪৩৮ হিজরী।

কাবাডির হারানো গৌরব ফেরানোর প্রত্যয়

| প্রকাশের সময় : ২১ এপ্রিল, ২০১৭, ১২:০০ এএম

স্পোর্টস রিপোর্টার : বাংলাদেশের জাতীয় খেলা কাবাডি। এক সময় আন্তর্জাতিক আসরে এই খেলায় পদক জয়ের ধারাবাহিকতায় ছিলো জাতীয় পুরুষ ও মহিলা কাবাডি দল। কিন্তু বর্তমানে বিবর্ণ দেশের কাবাডি। আন্তর্জাতিক আসর থেকে পদক জয় তো দূরের কথা, এখন নিজেদের সুনাম রক্ষা করতেই হিমসিম খেতে হচ্ছে বাংলাদেশকে। যদিও এরই মধ্যে গত বছর গৌহাটি-শিলং সাউথ এশিয়ান গেমস থেকে বাংলাদেশ মহিলা দল রৌপ্যপদক জয় করে দেশের মুখ উজ্জ্বল করেছে। আর ব্রোঞ্জপদক জিতে কোন রকমে মান বাঁচিয়েছে পুরুষ দল। তবে বিশ্বকাপ কাবাডিসহ অন্য আসরে ব্যর্থ বাংলাদেশ। এ ব্যর্থতা কাটাতেই এবার প্রতিজ্ঞাবদ্ধ কাবাডি ফেডারেশন। বাংলাদেশ পুলিশের মহাপরিদর্শক ও কাবাডি ফেডারেশনের সভাপতি একেএম শহিদুল হকের নেতৃত্বাধীন নতুন অ্যাডহক কমিটির প্রত্যয় লাল-সবুজ কাবাডির হারানো গৌরব ফেরানো। তাই তো শহিদুল হককে বলতে শোনা গেছে,‘দেশের জাতীয় খেলা কাবাডি। এক সময় এশিয়ার অন্যতম সেরা দল ছিলাম আমরা। কিন্তু সম্প্রতি সেই পারফরম্যান্স নেই আমাদের। সেই গৌরব পুনরুদ্ধার করতে প্রাণপণ চেষ্টা করবো আমরা। আর হারানো গৌরব ফিরিয়ে আনতে যা যা করণীয় তার সবই করব।’ গতকাল বাংলাদেশ অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশনের (বিওএ) ডাচবাংলা ব্যাংক অডিটোরিয়ামে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে কথাগুলো বলেন তিনি। বসুন্ধরা গ্রæপের পৃষ্ঠপোষকতায় জেলার তিনটি ও সাতটি সার্ভিসেস সহ মোট দশ দলকে নিয়ে আগামী পরশু (রোববার) শুরু হচ্ছে স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস কাবাডি প্রতিযোগিতার চূড়ান্ত পর্ব। এই প্রতিযোগিতাকে সামনে রেখেই কাল আয়োজন করা সংবাদ সম্মেলনের। এতে পুলিশের মহাপরিদর্শক ও কাবাডি ফেডারেশনের সভাপাতি একেএম শহিদুল হক ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন সাধারণ সম্পাদক ও অতিরিক্ত ডিআইজি হাবিবুর রহমান, যুগ্ম-সম্পাদক ও এআইজি (সংস্থাপন) গাজী মোজাম্মেল হক, বসুন্ধরা গ্রæপের উপদেষ্টা মেজর জেনারেল মো: মাহবুব হায়দার খান (অব.), টুর্নামেন্ট কমিটির চেয়ারম্যান আমির হোসেন পাটোয়ারী ও সদস্য সচিব আবদুল জলিল। শহিদুল হক বলেন, ‘গেল বছর আইজিপি কাপ থেকে ৩৯ জন খেলোয়াড় বাছাই করেছিলাম। কিন্তু আগের কমিটির অব্যবস্থাপনায় তা পরিচর্যা করতে পারিনি আমরা। তবে এবার খেলোয়াড় বাছাই করে তাদের প্রশিক্ষণের মাধ্যমে আন্তর্জাতিক অঙ্গণে এদেশের কাবাডির ভাবমূর্তি পুনরুদ্ধার করার চেষ্টা করব।’ কাবাডির সভাপতি যোগ করেন, ‘দেশের কাবাডিকে এগিয়ে নিতে আমরা বর্ষপঞ্জি করেছি। সেই অনুযায়ী বছরে ১১টি টুর্নামেন্ট করব।’
উপজেলা পর্যায় থেকে শুরু হয়ে জেলা-বিভাগ ঘুরে ঢাকায় অনুষ্ঠিত হচ্ছে স্বাধীনতা দিবস কাবাডির চুড়ান্ত পর্ব। এতে দলগুলো দু’গ্রæপে ভাগ হয়ে খেলবে। ‘এ’ গ্রæপে রয়েছে- বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি), বাংলাদেশ সেনাবাহিনী, ফায়ার সার্ভিস, জেলা পর্যায়ে চ্যাম্পিয়ন মৌলভীবাজার ও জেলা পর্যায়ে তৃতীয় দল খুলনা। ‘বি’ গ্রæপে আছে- বাংলাদেশ পুলিশ, নৌবাহিনী, বিমানবাহিনী, বাংলাদেশ জেল এবং জেলা পর্যায়ে রানার্সআপদল দিনাজপুর। দু’সেমিফাইনাল ও ফাইনাল অনুষ্ঠিত হবে যথাক্রমে ২৬ ও ২৭ এপ্রিল। এই পর্বের সবক’টি খেলা মিরপুরস্থ শহীদ সোহরাওয়ার্দি ইনডোর স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে।

 


দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।