Inqilab Logo

শনিবার, ২১ মে ২০২২, ০৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ১৯ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

সাক্ষাৎকার : ধৈর্য্য ধরে এগিয়ে যেতে চাই-শিপন

প্রকাশের সময় : ৪ মার্চ, ২০১৬, ১২:০০ এএম

আশিক বন্ধু : দেশা-দ্য লিডার সিনেমা দিয়ে শিপনের সিনেমায় যাত্রা শুরু। প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান জাজ মাল্টিমিডিয়ার সিনেমা দিয়ে শুরু হওয়া শিপনের এ যাত্রা বেশ ইতিবাচক ফল বয়ে আনে। প্রথম সিনেমায়ই তার প্রতিভার স্বাক্ষর রাখেন। তারপর বিগব্রাদার ও ইউটার্ন-এ তার অভিনয় ও স্মার্টনেসে দর্শক মুগ্ধ হয়েছেন। এ প্রজন্মের সম্ভাবনাময় এ নয়কের সাথে বিনোদন প্রতিদিনের কথা হয়।
সিনেমার যাত্রাটি কেমন হলো?
-দেশা-দ্য লিডার দিয়েই আমি দশর্কের অনেক ভালোবাসা পেয়েছি। এখনো আমাকে দর্শক মনে রেখেছে। শিপন বলে দর্শক আমাকে চেনে, নাম ধরে ডাক দেয়, প্রশংসা করে, ভালোবাসা বিনিময় করে। এটা অনেক বড় সম্মানের বিষয়। আমার একটি সিনেমার নামেই দর্শক আমাকে ডাকছে। আর বিগব্রাদার আর ইউটার্ন দুটি দুই ধরনের গল্প নির্ভর সিনেমা। তবে স্বল্প সময়ের ক্যারিয়ারে যা পেয়েছি, তাতে আমি খুবই সন্তুষ্ট।
নতুন অনেকেই কাজ করছেন। প্রতিযোগিতাও বেশ। এ প্রতিযোগিতায় কতটুকু শামিল হতে পারছেন?
-প্রতিযোগিতা থাকবেই। তার মধ্যে ভালো একটি সিনেমা করেও নিজের সম্মান ও ক্যারিয়ারে সাফল্য অর্জন করা সম্ভব। আমি অপেক্ষায় আছি। অনেক অফার পেয়ে থাকি। কিন্তু গল্প, বাজেট, বা পরিকল্পানা পছন্দ হয়না বলে সেগুলো ফিরিয়ে দিচ্ছি। ধৈর্য ধরে এগিয়ে যেতে চাই। আমি মনে করি, বছরে একটি ভালো সিনেমাই ক্যারিয়ার গড়তে বড় ভূমিকা রাখে।
জাজ-এর মতো বড় প্রতিষ্ঠান দিয়ে আপনার সিনেমায় অভিষেক। এর সাফল্য বা ব্যর্থতা কতটুকু?
-দেশা দ্য লিডার দিয়ে শুরুটা হয়েছে আমার। সিনেমাটির গান জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পাচ্ছে। এটা আমার জন্য বড় প্রাপ্তি। একটি দেশপ্রেমের সিনেমায় অভিনয় করাও অনেক সৌভাগ্যের বিষয়। এটি আমার পূরণ হয়েছে। তাই এখন পর্যন্ত আমার কোন ব্যর্থতা নেই, আগামীতে আরো অনেক সময় আছে, তখন সাফল্য-ব্যর্থতার বিষয়টি বিচার করা যাবে।
সিনেমা শিল্প উন্নয়ন করতে হলে কি করতে হবে?
-বিগবাজেট ও আধুনিক ভানা নিয়ে সিনেমা নির্মাণ করতে হবে। সিনেমা হলের পরিবেশ উন্নত করতে হবে। এখনো অনেক সিনেমা হলের পরিবেশ ঠিক হয়নি। পরিবার নিয়ে পরচ্ছিন্ন পরিবেশে সিনেমা দেখতে না পারলে দর্শক হলমুখী হবে না। বাংলাদেশের মানুষ বিনোদন প্রেমী। তারা সিনেমা দেখতে চায়। এজন্য পরিবেশ ঠিক করে দিতে হবে।
অবসর সময়টুকুতে কি করা হয়?
-ছোটবেলা থেকে গান শিখতাম। এখনো হারমোনিয়াম নিয়ে বাসায় মাঝেমধ্যে গান করি। মাসে একবার হলেও এখনো বন্ধুদের সাথে ক্রিকেট খেলি।
নতুন কাজের খবর কি?
-জাকির হোসেন রাজু স্যারের প্রেমের কাংগাল সিনেমার অর্ধেক কাজ শেষ করেছি। ছটকু আহমেদ স্যারের দলিল সিনেমাতে কাজ করব। সবচেয়ে বড় কথা আমি ধৈর্য্য ধরে কাজ করতে চাই। যদি বছরে একটিও ভালো মুভিতে অভিনয় করার সুযোগ হয়, তাতেই আমি সন্তুষ্ট।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: সাক্ষাৎকার : ধৈর্য্য ধরে এগিয়ে যেতে চাই-শিপন
আরও পড়ুন