Inqilab Logo

ঢাকা মঙ্গলবার, ২০ অক্টোবর ২০২০, ৪ কার্তিক ১৪২৭, ০২ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

ভাঙ্গায় ৫ বছরের শিশুকে বলৎকার

| প্রকাশের সময় : ১০ মে, ২০১৭, ১২:০০ এএম

ফরিদপুর জেলা সংবাদদাতা ঃ ভাঙ্গা উপজলোর বড় হামরিদী গ্রামের হতদরিদ্র, দুস্থ ও পিতৃহীন ৫ বছরের এক শিশু মেয়েকে ১৪ বছরের এক টোকাই কর্তৃক বলৎকার করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। গতকাল মঙ্গলবার বলৎকারকারী টোকাই অন্তরকে আটক করা হয়েছে।
বলৎকারের শিকার মেহেনাজের (৫) মা মৌসুমী বেগম জানান, তিন বছর আগে তার স্বামী সুমন শেখ মারা গেলে খুলনা থেকে পেটের দায়ে এ এলাকায় এসে সে বসবাস করতে থাকে। বড় হামরিদী গ্রামের একটি বাড়িতে মাসিক আড়াইশ টাকায় একটি ঘর ভাড়া দিয়ে বড় মেয়ে মেহনাজ ও ছোট ছেলে মিনানকে (৪) সাথে করে মানুষের বাড়িতে কাজ করে কোন রকম দিন অতিবাহিত করছেন। অভিযুক্ত টোকাই ছেলেটিরও মা বাবার কোনো ঠিক ঠিকানা নেই। ছেলেটি তার ভাড়া বাসার পাশের একটি ফার্নিচারের দোকানে কাজ করে ও রাতে সেখানেই ঘুমায়। ইতিপূর্বে অন্তর বিভিন্ন বাড়িতে চুরি করে ধরা পড়লে লোকজন ওকে ধরে মাথা নেড়া করে দেয়।
মৌসুমী বেগম আরো জানান, সোমবার সকালে সে কাজে গেলে মেহেজান ঘরে একা থাকে। এই সুযোগে টোকাই ছেলেটি তার ঘরে ঢুকে জোর পূর্বক তার মেয়ের মুখ চেপে ধরে বলৎকার করে পালিয়ে যায়। আমি কাজ শেষে ঘরে ফিরলে মেয়েকে যন্ত্রনায় কাঁদতে দেখে প্রশ্ন করলে সে ঘটনার বিবরন দেয়। এ ঘটনা আমি ফার্নিচারের মালিকসহ এলাকার মাতুব্বরদের জানাই। এলাকাবাসীর সহায়তায় গতকাল মঙ্গলবার সকালে তাকে আটক করে ভাঙ্গা থানায় সোপর্দ করা হয়েছে। এ ব্যাপারে ভাঙ্গা সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ রবিউল ইসলাম জানান, আমি ঘটনাটি শুনেছি। নির্যাতিত শিশুটিকে এবং তার পরিবারকে যথাযথ আইনি সহায়তা প্রদান করা হবে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ