Inqilab Logo

ঢাকা বুধবার, ২৫ নভেম্বর ২০২০, ১০ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ০৯ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী

অভিবাসীর আগমনে ক্যান্সারের মতো ছড়িয়ে পড়ছে আইএস ন্যাটো জেনারেল

প্রকাশের সময় : ৫ মার্চ, ২০১৬, ১২:০০ এএম

ইনকিলাব ডেস্ক : ন্যাটোর শীর্ষ কমান্ডার জেনারেল ফিলিপ ব্রিডলাভ হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেছেন, ব্যাপক হারে অভিবাসী আগমনের ফলে আইএস ক্যান্সারের মতো ছড়িয়ে পড়ছে। তারা অভিবাসীদের প্রতিরোধে গৃহীত ন্যূনতম নিরাপত্তা ব্যবস্থার সুযোগ গ্রহণ করছে এবং ইউরোপীয় দেশগুলোতে সন্ত্রাসী হামলার হুমকি দিচ্ছে। আমরা নিজেরাও সন্ত্রাসীদের হুমকির সম্মুখীন। খবর সিএনএন।
সিনেট সশস্ত্র বাহিনী কমিটিতে সাক্ষ্য দেয়ার পর মঙ্গলবার ন্যাটোর ইউরোপীয় অপারেশন্সের কমান্ডার জেনারেল ব্রিডলাভ সাংবাদিকদের বলেন যে সিরিয়্রা চলমান সংঘাতের কারণে গণহারে দেশত্যাগ এবং মধ্যপ্রাচ্যে আইএসের হুমকির কারণে গণ অভিবাসন আইএস সন্ত্রাসীদের ইউরোপে অবাধ প্রবেশের সুযোগ সৃষ্টি করেছে।
মার্কিন বিমান বাহিনীর জেনারেল বলেন, এ গণঅভিবাসন অপরাধী, সন্ত্রাসী ও বিদেশি যোদ্ধাদের ইউরোপ মহাদেশে প্রবেশের মুখোশ হিসেবে কাজ করছে।
এদিকে মধ্যপ্রাচ্য থেকে আসা উদ্বাস্তুদের চাপ সামলাতে গ্রিসের অর্থনীতি নড়বড়ে হয়ে পড়ায় ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ই ইউ) বুধবার  দেশটির জন্য ৭৬ কোটি ডলার জরুরি সাহায্যের পরিকল্পনা ঘোষণা করেছে। ইউরোপে প্রবেশের আশায় বন্যার ¯্রােতের মত অভিবাসীরা এসে আটকা পড়ছে গ্রিসে।
ই ইউ-র ক্রিস্টোস স্টাইলিয়ানাইডস এ জরুরি তহবিলের কথা ঘোষণা করে দ্রুত এ সাহায্য প্রদানের প্রতিশ্রুতি দেন। তবে ই ইউ-র সদস্য দেশগুলো এখনো এ তহবিল অনুমোদন করেনি।
মানবিক সাহায্য ও সংকট ব্যবস্থাপনা সংক্রান্ত ইউরোপীয় কমিশনার স্টাইলিনাইডস বলেন, এটা এক জরুরি সময়। পরিস্থিতির আরো অবনতি ঘটার আগেই কোনো বিলম্ব না করে আমাদের সকলকে প্রচেষ্টা জোরদার করতে হবে।
ইউরোপের প্রধান প্রবেশ দ্বার গ্রিস তার ভূখন্ডে এসে ভিড় জমানো হাজার হাজার উদ্বাস্তুর জন্য ই ইউ-র কাছে সাহায্যের আবেদন জানায়।
সাহায্য প্রস্তাবের উদ্দেশ্য হচ্ছে আগামী তিন বছরের জন্য খাদ্য, পানি ও আশ্রয়ের মত মৌলিক প্রয়োজন মিটানো। ইসলামিক স্টেট (আইএস) অভিবাসী সংকটের সুবিধা নিচ্ছে বলে ন্যাটোর শীর্ষ জেনারেল পেন্টাগন ব্রিফিংয়ে বলার পর এ উদ্যোগ নেয়া হয়।
অন্যান্য ইউরোপীয় দেশ তাদের সীমান্তে উদ্বাস্তু প্রবেশের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে। এ অবস্থায় আটকা পড়েছে বিপুল সংখ্যক উদ্বাস্তু। এ ঘটনায় জাতিসংঘ উদ্বাস্তু বিষয়ক হাই কমিশনার মঙ্গলবার ক্রমবর্ধমান মানবিক বিপর্যয়ের হুঁশিয়ারি দেন। তিনি বলেন, উদ্বাস্তুদের অব্যাহত ভিড় মানে হচ্ছে ইউরোপ আশু মানবিক বির্যয়ের মুখে পড়তে চলেছে।
জাতিসংঘের মতে, ২০১৬ সালের প্রথম দু’মাসে ১ লাখ ৩১ হাজার উদ্বাস্তু ইউরোপে প্রবেশ করেছে। এ সংখ্যা ২০১৫ সালে প্রথম ৬ মাসের সম পরিমাণ। গত বছর ১০ লাখেরও বেশি উদ্বাস্তু ইউরোপে প্রবেশ করে।
এক বিবৃতিতে বলা হয়, পরিস্থিতি বিষয়ে ঐক্যবদ্ধ উদ্যোগ গ্রহণে ব্যর্থতার অর্থ হচ্ছে ইউরোপ এখন সে সংকটের মোকাবেলা করছে যা সৃষ্টির জন্য ব্যাপক ভাবে তারাই দায়ী। গ্রিসে আটকা পড়া উদ্বাস্তুদের সংখ্যা ক্রমেই বাড়ছে।
মহাদেশের মধ্যে প্রধান বলকান অভিবাসন রুট বরাবর থাকা দেশগুলোসহ কিছু ইউরোপীয় দেশ উদ্বাস্তু ¯্রােত হ্রাসের লক্ষ্যে সীমান্তে কড়াকড়ি নিয়ন্ত্রণ আরোপ করেছে। এ উদ্যোগ গ্রিসে উদ্বাস্তুদের আটকাপড়া অবস্থা সৃষ্টি করেছে। দেশটি এমনিতেই অর্থনৈতিক সংকটে জেরবার। তারপর সেখানে তুরস্ক থেকে উদ্বাস্তুরা আসছেই।
অভিবাসীদের গ্রিস থেকে মেসিডোনিয়া প্রবেশ করতে না দেয়ায় সোমবার গ্রিস-মেসিডোনিয়া সীমান্তের আইদোমেনিতে একটি প্রধান ট্রানজিট শিবিরে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। মেসিডোনিয়া কর্তৃপক্ষ দিনে কয়েকশ’ করে উদ্বাস্তুকে প্রবেশ করতে দিচ্ছে। তবে তা শুধু ছবিসহ পরিচয় যাচাই করা ইরাকি ও সিরীয়দের। এতে আটকা পড়া উদ্বাস্তুদের একটি গ্রুপ একটি খুঁটিসহ কাঁটাতারের বেড়া ভেঙ্গে ফেলে।
জাতিসংঘ উদ্বাস্তু সংস্থা বলেছে, সোমবার রাত পর্যন্ত গ্রিসে আটকা পড়া উদ্বাস্তুদের সংখ্যা ২৪ হাজারে পৌঁছেছে। তাদের সাড়ে ৮ হাজার আটকা পড়েছে আইদোমেনিতে।
মঙ্গলবার জার্মান চ্যান্সেলর অ্যাঞ্জেলা মার্কেল বলেন, উদ্বা¯ুÍ সংকটের প্রেক্ষিতে সীমান্তে অতিরিক্ত নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা আরোপের পরিবর্তে ইউরোপের মধ্যে সীমান্ত মুক্ত ভ্রমণ শেনজেন ব্যবস্থা পুনরায় চালু করা প্রয়োজন।
ক্রোয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী টিহোমি ওরেসকোভিচের সাথে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, পরিস্থিতি যা দাঁড়িয়েছে তাতে আমরা সন্তুষ্ট নই। প্রতিদিন আমরা গ্রিস থেকে একই অবস্থা দেখতে পাচ্ছি। আমাদের শেনজেন ব্যবস্থায় ফিরে যেতে হবে।
ই ইউ-র কিছু সদস্য ১৯৮৫ সালে শেনজেন ব্যবস্থা সাময়িক ভাবে স্থগিত করে। এ ব্যবস্থায় ইউরোপের মধ্যে অবাধে ভ্রমণের সুবিধা আছে। এ মাসের পরের দিকে ব্যবস্থাটি সংশোধন করা হবে বলে আশা করা হচ্ছে।
মার্কেল বলেন, গ্রিসকে অবশ্যই তার সীমান্ত সুরক্ষার ব্যবস্থা নিতে হবে। এটা শুধু গ্রিক-মেসিডোনিয়া সীমান্তের দিকে হলে হবে না, অন্যদিক দিয়ে তারা নতুন পথ তৈরি করুক, আমরা তা চাই না।
তিনি ই ইউ দেশগুলোকে গত সেপ্টেম্বরের প্রতিশ্রুতিতে অটল থাকার আহবান জানিয়ে বলেন, দু’ বছরের মধ্যে তাদের ১ লাখ ৬০ হাজার উদ্বাস্তুকে আশ্রয় দিতে হবে। এ পর্যন্ত মাত্র কয়েকশ’ জনকে পুনর্বাসন করা হয়েছে।
এদিকে মানবাধিকার গ্রুপগুলো গত বছর প্যারিস হামলার পর উদ্বাস্তুদের বলির শিকার না করার জন্য সতর্ক করে দিয়েছে। হিউম্যান রাইটস ওয়াচ তাদের ২০১৬ সালের বিশ^ প্রতিবেদনে বলেছে, সিরিয়ার যুদ্ধ ও উগ্রপন্থী গ্রুপ আইএসের নামে বেসামরিক লোকদের উপর হামলা ব্যাপকতর হওয়ার পরিণতিতে ইউরোপে বিপুল সংখ্যায় মুসলিম উদ্বাস্তুর আগমন ক্রমবর্ধমান শংকা ও ইসলাম ভীতি সৃষ্টি করেছে।  
ব্রিডলাভ সিনেট সশস্ত্র বাহিনী কমিটিকে মঙ্গলবার বলেন যে ইউরোপে উগ্রপন্থীদের হুমকির পাশাপাশি সিরিয়া, আফগানিস্তান, ইরাক ও আফ্রিকার অস্থিতিশীল অংশগুলো থেকে নজিরবিহীন সংখ্যায় আসা উদ্বাস্তুদের বিরুদ্ধে  স্থানীয় লোকদের মধ্যে অসন্তোষ সৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। এর ফলে তারা ক্রমবর্ধমান ভাবে সহিংস হয়ে উঠতে পারে এবং অভিবাসী ও উদ্বাস্তুদের বিরুদ্ধে অল্প সংখ্যায় হামলা চালাতে পারে।   
পেন্টাগনে ব্রিডলাভ পুনরুত্থিত, আগ্রাসী রাশিয়ার দিকে অঙ্গুলি নির্দেশ করেন যে কিনা যুক্তরাষ্ট্র ও তা ইউরোপীয় মিত্রদের প্রতি দীর্ঘকালীন ও অস্তিত্বগত হুমকি। তিনি বলেন, সিরিয়ার গৃহযুদ্ধে রাশিয়ার সম্পৃক্ততা প্রেসিডেন্ট বাশার ও তার মিত্রদের শক্তিশালী করা সহ পরিস্থিতিকে পাল্টে দিয়েছে এবং আকাশ ও স্থলে পরিস্থিতিকে জটিল করেছে।
পেন্টাগণের বিভিন্ন রিপোর্টে দেখা যায়, রাশিয়া সিরিয়ার সাময়িক যুদ্ধ বিরতিকে গুরুত্বপূর্ণ এলাকা দখলে কাজে লাগাচ্ছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: অভিবাসীর আগমনে ক্যান্সারের মতো ছড়িয়ে পড়ছে আইএস ন্যাটো জেনারেল
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ