Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২১ নভেম্বর ২০১৭, ০৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৪, রবিউল আউয়াল ১৪৩৯ হিজরী
শিরোনাম

প্রেমের কারণে প্রাসাদ ছেড়েছেন রাজকন্যা

| প্রকাশের সময় : ১৯ মে, ২০১৭, ১২:০০ এএম

ইনকিলাব ডেস্ক : প্রেমের টানে রাজকীয় মর্যাদা ছাড়লেন জাপানের রাজকন্যা মাকো। রাজপরিবারের বাইরের একজনকে প্রেম করে বিয়ে করার সিদ্ধান্ত নেয়ায় নিয়ম অনুযায়ী রাজকীয় মর্যাদা ছেড়েছেন তিনি। মাকো বর্তমান সম্রাট আকিহিতোর নাতনি। ২৫ বছর বয়সী জাপানি রাজকন্যা মাকো বিয়ে করছেন তার সহপাঠী কেই কোমুরোকে। তিনি টোকিওর একটি আইনি পরামর্শক কেন্দ্রে চাকরি করেন। ভূমিকা রাখছেন দেশটির পর্যটন খাতের বিকাশে। ২০১২ সালে টোকিওর ইন্টারন্যাশনাল ক্রিশ্চিয়ান ইউনিভার্সিটিতে পড়ার সময় দুজনের পরিচয় ও বন্ধুত্বের শুরু। এরপর ধীরে ধীরে প্রেমের পথে গড়ায় তাদের বন্ধুত্ব। এখন এ সম্পর্ককে স্থায়ী রূপ দিতে চলেছেন মাকো-কোমুরো। বিয়ে করতে চান তারা। এজন্য শীঘ্রই বাগদান সেরে ফেলার পরিকল্পনা করেছেন। তারিখও চূড়ান্ত হয়েছে। কিন্তু এ সম্পর্কে বাধা হয়ে দাঁড়ায় রাজপরিবার ও রাজকীয় রীতি। জাপানের রাজতন্ত্রের নিয়ম হল, রাজপরিবারে কোনো সদস্য সাধারণ পরিবারে বিয়ে করলে তাকে রাজ মর্যাদা ছাড়তে হয়। মাকোও এ নিয়ম জানতেন। তাই তিনি প্রেমের সম্পর্কের স্বার্থে ছেড়ে দিয়েছেন রাজ মর্যাদা। ছেড়েছেন রাজপরিবার ও প্রাসাদ। আনুষ্ঠানিকভাবে জানিয়েছেন সম্রাট ও সম্রাজ্ঞীকে। এখন থেকে সম্রাটের নাতনি সাধারণ মেয়ের মর্যাদা পাবেন। তবে প্রেমের প্রাসাদ ছাড়ার ঘটনা জাপানের রাজপরিবারে এবারই প্রথম নয়। এর আগে ২০০৫ সালে মাকোর খালা প্রিন্সেস সায়াকো সাধারণ পরিবারের একজন নগর পরিকল্পনাবিদকে প্রেম করে বিয়ে করেন। সেসময় তিনিও রাজপরিবার ছেড়েছিলেন। বিবিসি,সিএনএন।

 


Show all comments
  • শাফায়েত ১৯ মে, ২০১৭, ১২:৩৯ পিএম says : 0
    এর নাম ভালোবাসা, এর নাম প্রেম।
    Total Reply(0) Reply
  • Enamul Haque ২৫ মে, ২০১৭, ৫:৩৬ পিএম says : 0
    I support her,better if she become a muslim and marry a muslim
    Total Reply(0) Reply
  • S. Anwar ২৫ মে, ২০১৭, ১১:৪৭ পিএম says : 0
    প্রেম-ভালোবাসা মূলতঃ বিপরীত লিঙ্গের আকুতিভরা আবেগেরই প্রকাশ। তাই এর বর্তমান স্বরুপ যেমনই হোকনা কেন সময়ের ব্যবধানে একসময় অধিকাংশ মিলনকৃত প্রেম-ভালোবাসা থেকে আবেগের সাথে সাথে সুখকেও বিদায় নিতে দেখা যায়। হয়তোবা এজন্যই বলা হয়--- "বিরহেই প্রেম চির-জীবি রহে"।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।