Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ০৪ আগস্ট ২০২০, ২০ শ্রাবণ ১৪২৭, ১৩ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

এগারো হাজার কোটি ডলার অস্ত্রখাতে

যুক্তরাষ্ট্র-সউদি আরব ৩৮ হাজার কোটি ডলারের চুক্তি সই

| প্রকাশের সময় : ২২ মে, ২০১৭, ১২:০০ এএম

ইনকিলাব ডেস্ক : যুক্তরাষ্ট্র এবং সউদি আরবের মধ্যে ৩৮ হাজার কোটি ডলারের চুক্তি সম্পন্ন হয়েছে। সউদি সংবাদমাধ্যম আরব নিউজ এই চুক্তির খবর নিশ্চিত করেছে। খবরে বলঅ হয়, সই হওয়া চুক্তির মধ্যে অস্ত্রখাতে বরাদ্দ রয়েছে ১১০০০ কোটি ডলার। গত শনিবার প্রথম বিদেশ সফরে সউদি আরবের রাজধানী রিয়াদে পৌঁছান ট্রাম্প। সফরের প্রথম দিনেই প্রতিরক্ষা, ব্যবসা এবং প্রযুক্তি বিষয়ক বেশ কয়েকটি চুক্তি হয় সউদি আরব এবং যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে। সউদি বাদশাহ সালমান এবং ট্রাম্পের মধ্যে বৈঠকের পর এসব চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। দু’টি দেশ বিভিন্ন ক্ষেত্রে এক সঙ্গে কাজের অঙ্গীকার হিসেবে জয়েন্ট স্ট্র্যাটেজিক ভিশন ডিক্লারেশন স্বাক্ষর করে। সউদি পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবদেল আল-জুবায়ের ট্রাম্পের এ সফরকে আরব বিশ্বের জন্য এক নতুন সূচনা বলে উল্লেখ করে চুক্তি সম্পন্নের খবর দেন। মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী রেক্স টিলারসনের সঙ্গে এক যৌথ সংবাদ সম্মেলনে তিনি জানান, দেশ দু’টি সরকারি ও বেসরকারি ক্ষেত্রে বাণিজ্য, বিনিয়োগ এবং অবকাঠামো নির্মাণের ক্ষেত্রে বেশ কয়েকটি চুক্তি স্বাক্ষর করেছে। আগামী ১০ বছর ধরে এসব চুক্তি বাস্তবায়ন হবে। যার মূল্যমান ৩৮ হাজার কোটি ডলারেরও বেশি। সংবাদ সম্মেলনে টিলারসন জানান, ২০টি বৃহৎ মার্কিন কোম্পানিকে সউদি আরবে সরাসরি বিনিয়োগের অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। এর ফলে মার্কিনিদের জন্য হাজার হাজার কর্মসংস্থান সৃষ্টি হবে। সউদি আরবে মার্কিন পণ্য ও প্রযুক্তির ব্যবহার বাড়বে। এর ফলে সউদি আরব উপকৃত হবে। টিলারসন আরও বলেন, প্রতিরক্ষা সরঞ্জাম এবং অন্যান্য সহযোগিতা সউদি আরব এবং পুরো উপসাগরীয় অঞ্চলকে নিরাপত্তা দেবে। বিশেষ করে ইরানের হুমকির মুখে সউদি আরবের প্রতিরক্ষা জোরদার করা খুবই জরুরি। এদিকে, গত শনিবার মার্কিন প্রেসিডেন্টের দফতর হোয়াইট হাউস জানিয়েছে, সউদি আরবের সঙ্গে স্বাক্ষরিত অস্ত্রচুক্তির মূল্যমান প্রায় ১১ হাজার কোটি ডলার। এটিকে যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে সবচেয়ে বড় একক অস্ত্রচুক্তি বলে অভিহিত করেছে হোয়াইট হাউস। অপর এক চুক্তি অনুযায়ী মার্কিন অস্ত্র নির্মাতা প্রতিষ্ঠান লকহিড মার্টিন থেকে ৬০০ কোটি ডলারের বিনিময়ে ১৫০টি অত্যাধুনিক বø্যাকহক হেলিকপ্টার কিনবে সউদি আরব। লকহিড মার্টিনের চেয়ারম্যান, প্রেসিডেন্ট ও সিইও ম্যারিলিন এ. হিউসন বলেছেন, এ ঐতিহাসিক চুক্তি অংশীদার হতে পারায় আমরা গর্বিত। এ চুক্তি দু’টি দেশের সম্পর্ককে আরও সুদৃঢ় করবে। এছাড়া জ্বালানি খাতে তেল ও গ্যাস উত্তোলনের ক্ষেত্রে দুই হাজার ২০০ কোটি ডলারের চুক্তি হয়েছে। সউদি রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠান আরামকোর মালিকানাধীন কোম্পানি মোটিভা এন্টারপ্রাইজেস জানিয়েছে তারা যুক্তরাষ্ট্রে এক হাজার ২০০ কোটি ডলার বিনিয়োগ করবে। সেই সঙ্গে ২০২৩ সালের মধ্যে আরও এক হাজার ৮০০ কোটি ডলার বিনিয়োগ করবে কোম্পানিটি। এ বিনিয়োগের ফলে প্রায় আড়াই হাজার কর্মসংস্থান সৃষ্টি হবে। যা ২০৩০ সালের মধ্যে ১২ হাজারে দাঁড়াবে। সউদি সফর শেষে ইসরাইল, ফিলিস্তিন, ব্রাসেলস, ভ্যাটিকান এবং সিসিলি সফর করবেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। এ সফরে ট্রাম্পের সঙ্গে ফার্স্ট লেডি মেলানিয়া ট্রাম্প ছাড়াও রয়েছেন তার মেয়ে ইভানকা ট্রাম্প, জামাতা জ্যারেড কুশনার এবং বাণিজ্যমন্ত্রী উইলবার রস ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী রেক্স টিলারসন। আরব নিউজ, রয়টার্স, এএফপি, সিএনএন।



 

Show all comments
  • mannan ২২ মে, ২০১৭, ৩:৪৭ এএম says : 0
    tader kano ato osro dorker
    Total Reply(0) Reply
  • md. mahbubul haque ২২ মে, ২০১৭, ৬:৫৩ পিএম says : 0
    এগারো হাজার কোটি ডলারের অস্ত্র চুক্তি! এই এগারো হাজার ডলার আমাদের দেশের মতোন উন্নয়নশীল দেশগুলোর নদী ভাঙ্গন রোধে, কৃষি, সেচ, চিকিৎসা, শিক্ষা ও যোগাযোগ খাতে সাহায্য করলেই ভালো হতো। এগারো হাজার কোটি ডলারের অস্ত্র যখন সরবরাহ করা হবে, আর এসব সরবরাহকৃত মোট অস্ত্রের কিছু অস্ত্র যখন পরীক্ষা করা হবে তখন মাত্র এক মিনিটেই কোটি ডলার মূল্যের অস্ত্র শেষ!
    Total Reply(0) Reply
  • parvez ২২ মে, ২০১৭, ১:০৭ পিএম says : 1
    মোবাইল যেমন out-model হয়ে যায়, অস্ত্রও তেমন। আমেরিকা অস্ত্র বানিয়েছিল,এখন ওগুলো বাতিল মাল। ধ্বংস করলে পয়সাটা নষ্ট হয়। অতএব, এমন কোন গোলামকে দিতে হবে যারা ওগুলোকে মনিবের প্রসাদ মনে করবে। সৌদি বাদশার চেয়ে বড় আমেরিকার আর কোন গোলাম আছে কি ? এটা আমরা সবাই বুঝি, কিন্তু কেউ বলি না।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: যুক্তরাষ্ট্র-সউদি আরব
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ