Inqilab Logo

ঢাকা সোমবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৬ আশ্বিন ১৪২৭, ০৩ সফর ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

ওয়ালটন কারখানায় অত্যাধুনিক উৎপাদন

| প্রকাশের সময় : ২৩ মে, ২০১৭, ১২:০০ এএম

প্রক্রিয়া দেখে মুগ্ধ নেপালের সাংবাদিকরা
অর্থনৈতিক রিপোর্টার : ওয়ালটন কারখানা পরিদর্শন করেছেন নেপালের সাংবাদিক প্রতিনিধিদল। তারা বিভিন্ন পণ্যের উৎপাদনপ্রক্রিয়া দেখে মুগ্ধ। তাদের প্রত্যাশা, সাশ্রয়ী মূল্য এবং উচ্চমানের কারণে নেপালের বাজারে খুব শক্ত অবস্থান তৈরি করবে ওয়ালটন। উল্লেখ্য, ২০১৪ সাল থেকে নেপালে রপ্তানি হচ্ছে ওয়ালটন পন্য।
গতকাল গাজীপুরের চন্দ্রায় ওয়ালটন ইন্ডাস্ট্রিয়াল পার্ক পরিদর্শন করেন নেপালের সাংবাদিকরা। নেপাল ফোরাম অব ফটো জার্নালিস্ট প্রতিনিধিদলের নেতৃত্ব দেন তেজ বাহাদুর বাসনেট। এতে ছিলেন দেশটির শীর্ষস্থানীয় সংবাদপত্রে কর্মরত ১০ জন সাংবাদিক। সোমবার সকালে ওয়ালটন কারখানায় পৌঁছলে তাদেরকে শুভেচ্ছা জানান ওয়ালটন গ্রæপের সিনিয়র অপারেটিভ ডিরেক্টর উদয় হাকিম। এরপর সাংবাদিকদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় করেন ওয়ালটনের নির্বাহী পরিচালক সিরাজুল ইসলাম, আলমগীর আলম সরকার, অপারেটিভ ডিরেক্টর প্রকৌশলী গোলাম মোর্শেদ, ইউছুফ আলী, ডেপুটি অপারেটিভ ডিরেক্টর সোহেল রানা প্রমূখ।
প্রতিনিধি দলের সঙ্গে ছিলেন বাংলাদেশ ফটো জার্নালিস্ট এ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি সভাপতি একেএম মহসিন, সাধারন সম্পাদক গোলাম মোস্তফা, কার্য-নির্বাহী সদস্য কাজী রওনক হোসেন, ওয়ালটনের মিডিয়া উপদেষ্টা এনায়েত ফেরদৌস প্রমূখ।
কারখানা পরিদর্শন শেষে প্রতিনিধি দলের নেতা তেজ বাহাদুর বাসনেট বলেন, ‘নেপালে ওয়ালটন পণ্য দেখেছি। কিন্তু, এটা যে বাংলাদেশে তৈরি হয় তা জানতাম না। আজ এখানে এসে ওয়ালটন পণ্যের গুণগতমান, উৎপাদন প্রক্রিয়াসহ অনেক বিষয় সম্পর্কে বাস্তব ধারণা লাভ করেছি এবং মুগ্ধ হয়েছি।” দ্যা হিমালায়ন টাইমস এর ফটো সাংবাদিক রাম সার্ফ বলেন, আমি নেপালে ওয়ালটন পণ্য ব্যবহার করছি। মানের দিক থেকে খুবই উন্নত। দামেও সাশ্রয়ী। তবে, ওয়ালটন পণ্য যে বাংলাদেশে এতো সুবিশাল ও সর্বাধুনিক কারখানায় তৈরি হয়, তা এখানে না আসলে জানা যেতনা।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন