Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার, ১৮ আগস্ট ২০১৯, ০৩ ভাদ্র ১৪২৬, ১৬ যিলহজ ১৪৪০ হিজরী।

সেমিফাইনালে শেখ জামাল

| প্রকাশের সময় : ২৫ মে, ২০১৭, ১২:০০ এএম

স্পোর্টস রিপোর্টার : ঘরোয়া ফুটবলের মৌসুম সুচক টুর্নামেন্ট ওয়ালটন ফেডারেশন কাপের প্রথম কোয়ার্টার ফাইনালে ঐতিহ্যবাহী ঢাকা মোহামেডানকে হারিয়ে প্রথম দল হিসেবে সেমিফাইনালে নাম লেখালো শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব। গতকাল সন্ধ্যায় বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে শেখ জামাল ১-০ গোলে হারায় মোহামেডানকে। বিজয়ী দলের হয়ে একমাত্র জয়সুচক গোলটি করেন গাম্বিয়ান মিডফিল্ডার সলমন কিং।
প্রচন্ড তাপদহে জনজীবন যেখানে দুর্বিসহ সেখানে ফুটবলারদের স্বস্তি দিতে বিকালের পরিবর্তে সন্ধ্যায় কোয়ার্টার ফাইনাল ম্যাচের আয়োজন করে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন। এতে কিছুটা হলেও স্বস্তি পেয়েছেন খেলোয়াড়রা। কাল ম্যাচের শুরু থেকে গোল পেতে মরিয়া হয়েই লড়ে শেক জামাল। তবে মোহামেডান রক্ষণভাগের খেলোয়াড়দের দৃঢ়তায় কাঙ্খিত গোলের দেখা পেতে জামালকে এক ঘন্টারও বেশী সময় অপেক্ষায় থাকতে হয়। আক্রমণ-পাল্টা আক্রমণে খেলা শুরু হলেও অপেক্ষাকৃত বেশী সুযোগ পেয়েছে শেখ জামালই। ধারাবাহিক আক্রমণের মুখে ম্যাচের
প্রথমার্ধে তাদের নাইজেরিয়ান স্ট্রাইকার রাফায়েল উদুবিন দু’টি নিশ্চিত গোলের সুযোগ নষ্ট করায় হতাশ দেখা যায় জামাল শিবিরকে। ২৪ মিনিটে রক্ষণভাগ থেকে আসা ক্রসের বল ক্ষীপ্রতার সঙ্গে নিয়ন্ত্রণে নিয়ে রাফায়েল ডান প্রান্তদিয়ে মোহামেডানের ডি-বক্সে ঢুকে শট নিলেও তা গোলে পরিণত হয়নি। সাদাকালো গোলরক্ষক মামুন খানকে একা পেয়েও রাফায়েল বল জালে পাঠাতে ব্যর্থ হন। তার শট মামুন ফিস্ট করে ফিরিয়ে দেন। ২৯ মিনিটে ফের গাম্বিয়ান স্ট্রাইকার মমদু বাউর বানিয়ে দেয়া বল ফাকায় পেয়ে যান রাফায়েল। এবারও চলন্ত বলে তার নেওয়া শটটি ফিরিয়ে দেন মোহামেডানের গোলরক্ষক মামুন।
ম্যাচের ৪০ মিনিটে লিংকনের ক্রসের বল ডি-বক্সে পেয়ে যান মোহামেডানের নাইজেরিয়ান স্ট্রাইকার কিংসলে চিগোজি। কিন্তু সময় মত তিনি শট নিতে পারেননি। কিছুটা বিলম্বে শট নিতে তা আটকে দেয় শেখ জামালের ডিফেন্ডাররা। ৪৩ মিনিটে পাল্টা আক্রমন থেকে বাঁমপ্রান্ত দিয়ে বল নিয়ে শেখ জামালের গাম্বিয়ান স্ট্রাইকার মমদু মোহামেডান ডি-বক্সে ঢুকে শট নিলে তা সাইডবার ঘেঁষে বাইরে চলে যায়। গোলশূণ্য অবস্থায় দু’দল বিরতিতে গেলেও দ্বিতীয়ার্ধে যথারীতি আক্রমণেই থাকে শেখ জামাল। ম্যাচের ৫৯ মিনিটে জামালের মিডফিল্ডার মানিকের নেয়া ক্রসে ডি বক্সের ভেতর রাফায়েল হেড নেয়ার মুহুর্তে বল লুফে নেন গোলরক্ষক মামুন। অবশেষে গোলের দেখা পায় বিজয়ীরা। ম্যাচের ৭৭ মিনিটে রাফায়েল উদুবিনের কাট ব্যাক থেকে বল পেয়ে চমৎকার শটে গোল আদায় করে নেন শেখ জামালের গাম্বিয়ান বদলী মিডফিল্ডার সলমন কিং (১-০)। শেষ পর্যন্ত আর ম্যাচে ফিরতে পারেনি মোহামেডান। একমাত্র গোলের হার নিয়েই মাঠ ছাড়তে হয় তাদের। আজ একই ভেন্যুতে সন্ধ্যা ৬টায় দ্বিতীয় কোয়ার্টার ফাইনালে চট্টগ্রাম আবাহনীর মুখোমুখি হবে শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্র।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: সেমিফাইনাল

২৪ এপ্রিল, ২০১৬
১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬

আরও
আরও পড়ুন