Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৭ আশ্বিন ১৪২৬, ২২ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী

পল্লীকবি জসীমউদ্দীন ও প্রিন্সিপাল ইব্রাহীম খাঁ স্মরণে তমদ্দুন মজলিসের সাহিত্য সভা

প্রকাশের সময় : ৭ মার্চ, ২০১৬, ১২:০০ এএম

স্টাফ রিপোর্টার : ঐতিহ্যবাহী সাংস্কৃতিক সংস্থা তমদ্দুন মজলিসের উদ্যোগে পল্লীকবি জসীমউদ্দীন ও প্রিন্সিপাল ইব্রাহীম খাঁ স্মরণে নিয়মিত মাসিক সাহিত্য সভায় বক্তাগণ বলেন, কবি জসীমউদ্দীন ছিলেন বাংলা সাহিত্যের এক উজ্জ্বল নক্ষত্র। রবীন্দ্র-নজরুলের বলয় থেকে বের হয়ে নিজস্ব বলয় সৃষ্টি করে তিনি বাংলা ঐতিহ্য সংস্কৃতি নিয়ে বৈচিত্র্যময় লেখনীর মাধ্যমে আত্মপ্রকাশ করেন। তিনি গ্রাম বাংলার চালচিত্র কাব্যিক ভাষায় ফুটিয়ে তোলেন এবং পল্লীকবি খ্যাতিতে ভূষিত হন।
অন্যদিকে বাঙালী সমাজে প্রথম মুসলিম প্রিন্সিপাল হলেন ইব্রাহীম খাঁ। তিনি বাংলা সাহিত্যে গৌরবের প্রতীক। তিনি তার লেখনীর মাধ্যমে স্বমহিমায় বাঙালী মানুষের মনে ঠাঁই করে নিয়েছেন নিজের অবস্থান। বক্তারা আরো বলেন, বাংলা সাহিত্যে এত বড় গুণী মানুষ থাকা সত্ত্বেও সঠিকভাবে এসব গুণীজনদের আমরা কদর করতে পারছি না। যা সত্যিই দুঃখজনক। তাই সরকারি, বেসরকারি এবং বিভিন্ন সাংস্কৃতিক প্রতিষ্ঠানের উদ্যোগে এসব মনীষীদের নিয়ে স্মরণ সভা করে নতুন প্রজন্মের কাছে পরিচয় তুলে ধরা উচিত।
গতকাল রোববার মগবাজার নজরুল একাডেমি মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত এ সাহিত্য সভায় বিশিষ্ট কবি ম. মিজানুর রহমানের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট গবেষক ও সাবেক কূটনীতিক ড. মুহাম্মাদ সিদ্দিক এবং বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন শাহ আবদুল হালিম। আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন এম এ হান্নান, কবি মানসুর মুজাম্মিল, আদেলউদ্দীন আল মাহমুদ, এমদাদুল হক চৌধুরী, কবি রেজা সারোয়ার প্রমুখ। এছাড়াও দেশবরেণ্য নবীন, প্রবীণ কবি, লেখক, সাহিত্যিক, সাংবাদিক, শিল্পী উপস্থিত থেকে প্রবন্ধ, কবিতা, ছোটগল্প, সঙ্গীত পরিবেশন করেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন