Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৬ আশ্বিন ১৪২৫, ১০ মুহাররাম ১৪৪০ হিজরী‌

শূকরের মাংস, মদ ও গাঁজা খেয়ে ধর্মনিরপেক্ষতার কথা যারা বলেন, তারা পারভারটেড -প্রধানমন্ত্রী

| প্রকাশের সময় : ৬ জুন, ২০১৭, ১২:০০ এএম

স্টাফ রিপোর্টার : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ধর্মনিরপেক্ষতা মানে ধর্মকে অস্বীকার করা নয়। শূকরের মাংস, মদ ও গাঁজা খেয়ে ধর্মনিরপেক্ষতার কথা যারা বলেন, তারা পারভারটেড।’ ‘আমি বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী। হেফাজত কিংবা অন্য যেকোনো রাজনৈতিক দলের সঙ্গে আদর্শে ভিন্নতা ও মতবিরোধ থাকলেও সুষ্ঠু পরিবেশ বজায় রেখে দেশের সামগ্রিক উন্নয়নের স্বার্থে প্রধানমন্ত্রী (দেশের অভিভাবক) হিসেবে যা ভালো মনে করেছি তাই করেছি।
গত রোববার রাজধানীতে জাতীয় প্রেসক্লাবে বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন (বিএফইউজে) ও ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন (ডিইউজে) আয়োজিত ইফতার অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে যোগদান শেষে প্রেসক্লাবের ভিআইপি মিলনায়তনে দুই সংগঠনের নেতা ও সিনিয়র সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে প্রধানমন্ত্রী আলোচিত দুটি ইস্যুতে হেফাজত বিষয়ে নিজের অবস্থান ব্যাখ্যা করেন।
তিনি বলেন, কওমি মাদরাসায় লাখ লাখ শিক্ষার্থী পড়াশুনা করছে। এতদিন তাদের শিক্ষাকে স্বীকৃতি দেয়া হয়নি। প্রধানমন্ত্রী হিসেবে এত বিপুলসংখ্যক শিক্ষার্থীর কথা চিন্তা না করে আমি থাকতে পারি না। তাই তাদের কাছে ডেকে কথা বলেছি, ছয়টি শিক্ষাবোর্ড গঠন করে দিয়েছি। দেশকে শতভাগ শিক্ষিত করতে হলে তাদের বাদ দেয়া সম্ভব না।
প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন,যারা হেফাজতের সঙ্গে সরকার হাত মিলিয়েছে, চেতনা গেল গেল বলে গলা ফাটাচ্ছেন; ৫ মে রাতে যখন হেফাজত শাপলা চত্বর দখল করেছিল তখন তারা কোথায় ছিলেন? তারা কী চেতনাবোধ থেকে সেদিন রাস্তায় নেমে এসেছিলেন। সেদিন আমি নিজস্ব চিন্তা-ভাবনা থেকে যা যা করণীয় তা করে হেফাজতমুক্ত করেছিলাম। সবার মধ্যে আতঙ্ক ছিল কী হবে কী হবে? পরদিন অনেক মন্ত্রিসভার সদস্য ভয়ে সচিবালয়মুখীও হননি।
তিনি বলেন, ওই পরিস্থিতি থেকে উত্তরণ ও বর্তমানে দেশের মানুষের উন্নয়ন বিশেষ করে গ্রামের মানুষের ভাগ্যন্নোয়নের স্বার্থে তিনি হেফাজত ইসলামের নেতাদের সঙ্গে কথা বলে ভুল ভাঙিয়ে ওদের শিক্ষার সুযোগ সুবিধা করে দেয়া হযেছে।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, সরকারের প্রতি ভুল ধারণা নিয়ে ওরা উগ্র পন্থা বেছে নিলে সেটা কি দেশের জন্য ভালো হতো? তারা এখন জঙ্গি দমনে সরকারের পাশে থাকার প্রতিশ্রæতি দিয়েছেন। তারা জঙ্গিদের বিরুদ্ধে বক্তৃতা-বিবৃতি দিচ্ছেন। এ উদ্যোগকে যারা সহজভাবে নিতে পারেন না তারা কী চান।
সুপ্রিম কোর্ট প্রাঙ্গণ থেকে ভাস্কর্য অপসারণ প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘জাতীয় ঈদগাহ সংলগ্ন সুপ্রিম কোর্টের যে স্থানটিতে গ্রিক গড অব থেমিসের আদলের ভাস্কর্যটি স্থাপন করা হয়েছিল সেই ভাস্কর্যের গায়ে শাড়ি পড়ানো হলো কেন? ভাস্কর্য স্থাপনের আগে বাইরে থেকে সুপ্রিম কোর্টের প্রবেশপথে দেশের মানচিত্র দেখা যেতো। ওইটি স্থাপনের পর সেটি ঢেকে যায়। তাছাড়া জাতীয় ঈদগাহের সামনে নামাজের সময় এটি দেখা গেলে দৃষ্টিকটু লাগতো। তাই ওটি সরানো হয়েছে।
প্রধানমন্ত্রী সুলতানা কামাল ও শাহরিয়ার কবীরের প্রতি ইঙ্গিত করে বলেন, ভাস্কর্য সরানোর ফলে অনেকে ধর্মনিরপেক্ষতার দোহাই দিয়ে ধর্ম গেল গেল বলে চিৎকার করছেন। আন্দোলন করছেন। কেউ কেউ ভাস্কর্য সরালে মসজিদও সরাতে হবে এমন কথাও বলছেন।
তিনি ইমরান এইচ সরকারের সমালোচনা করে বলেন, যাদের তিনি জিরো থেকে হিরো বানিয়েছিলেন তারা এখন আন্দোলন করছেন। তারা কী ভুলে গেছেন শাহবাগে তাদের যখন হেফাজতিরা তাড়া করেছিল তখন তাদের ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা বাঁচিয়েছিল।
প্রধানমন্ত্রী জানান, তিনি অনেক অপমান সহ্য করেছেন। এখন যারা এর বিরোধীতা করছেন আর যারা পক্ষে অবস্থান নিয়েছেন তিনি দু’পক্ষের কারও পক্ষে থাকবেন না। তারা আগে মারামারি ও মল্লযুদ্ধ করে শক্তির পরীক্ষা করুক। তিনি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকেও এ ব্যাপারে দু’পক্ষ মুখোমুখি হলে কিছু করতে মানা করেছেন। দু’পক্ষের শক্তির পরীক্ষায় যারা আহত হবেন তাদের চিকিৎসা দেবেন।
বাস্তবতা বিবেচনা না করে অনেক মন্ত্রী তার বিরুদ্ধে বক্তব্য-বিবৃতি দিয়েছেন উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী এ সময় তার পাশে বসে থাকা তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু ছাড়াও রাশেদ খান মেনন ও আসাদুজ্জামান নূরের নাম উল্লেখ করে বলেন, আমার বিরুদ্ধে কথা বলার আগে তারা পদত্যাগ করতে পারতেন। প্রধানমন্ত্রীর এধরনের সাহসী ও সময়োপযোগী বক্ত্যব দেশের আলেম ওলামা ও র্ধমপ্রান মুসলিম সমাজের মধ্যে ব্যাপক ইতিবাচক সাড়া জাগিয়েছে। গতকাল রাজধানীর বিভিন্ন অফিস আদালত, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, দোকান পাঠ,বিপনী বিতান, বাসে, ট্রেনে, মসজিদ মাদ্রাসাসহ সর্বত্রই প্রধানমন্ত্রীর এবক্তব্য আলোচনার ঝড় তোলেছে। মাহে রমজান মাসে প্রধানমন্ত্রর এবক্তব্য ব্যাপক প্রশংসা ও গ্রহণযোগ্যতা পেয়েছে। শুধূ একজন দক্ষ বুদ্ধমিতি অভিজ্ঞতা সম্পুর্ণ রাজনীতিবিদ বা সফল সরকার প্রধান হিসাবেই নয় একজন ধর্মপ্রাণ ঈমানদার মুসলিম হিসাবেও তিনি এখন সর্বস্তরে প্রশংসিত হয়েছেন।
একটি বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়ের  ইংরেজী বিভাগের সহকারী প্রফেসর এ এফ এম শামীম বলেন, প্রধানমন্ত্রীর এ বক্ত্যব এদেশের ধর্মপ্রাণ ১৬ কোটি মানুষের হৃদয়ের কথা। দেশে শান্তি ও জঙ্গিবাদ দমনে তিনি যেমন সফল হয়েছেন, কঠোর হস্তে জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে রুখে দাড়িঁয়েছেন, তেমনি সুপ্রিম কোর্ট প্রঙ্গণ থেকে ভাস্কর্য বা মুর্তি অপসারন করে এবং নাস্তিকদের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়ে এদেরে মানুষের মন জয় করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।



 

Show all comments
  • harun ur rashid ৬ জুন, ২০১৭, ১২:৫৯ পিএম says : 3
    HEROES DIE ONE TIME BUT COWARD DIES MANY TIMES. OUR PREMIER IS MORE BRAVE LIKE HER FATHER, Bangandu, Sk. Mujib
    Total Reply(0) Reply
  • harun ur rashid ৬ জুন, ২০১৭, ১২:৫০ পিএম says : 3
    Long live our beloved Premier. She posses leadership quality like Indira Ghandi and Araham Lincon. We want to see life time premier to her. MAY ALLAH PROTECT HER FROM ENEMIES.
    Total Reply(0) Reply
  • Jashim Uddin Khaun ৬ জুন, ২০১৭, ১:৫৩ পিএম says : 0
    Prime Minister Sheikh Hasina told about the real face of .............. I Must give thanks to the Mrs. Prime Minister Sheikh Hassina as I am a anti Awamileager. Once again Thanks to the Prime Minister.
    Total Reply(0) Reply
  • আনোযার পাভেজ ৬ জুন, ২০১৭, ১:৫৯ পিএম says : 0
    আল্লাহ তুমি জান মানুষের মনের খবর। আল্লাহ তুমিই বাংলাদেশের 18 কোটি মানুষের ভাগ্য বিধাতা তোমার উপরই 100% ভরসা
    Total Reply(0) Reply
  • abu faiz bulbul ৬ জুন, ২০১৭, ১২:৪৪ এএম says : 1
    Thanks shiekh hasina for correct decision.
    Total Reply(0) Reply
  • mohammad abdul aziz ৬ জুন, ২০১৭, ১:১১ এএম says : 0
    thanks prime minister
    Total Reply(0) Reply
  • Selina ৬ জুন, ২০১৭, ২:২৮ পিএম says : 0
    Excellency PM. not. partial. but implement. total. Madina charter
    Total Reply(1) Reply
    • shamsu ১২ জুন, ২০১৭, ৪:৪৮ পিএম says : 0
      respect and love is important message of Islam, our great religion is here to stay. Sheik Hasina is walking on right path.may Allah help everyone to understand true Islam.
  • jahir ৬ জুন, ২০১৭, ৫:৩৪ এএম says : 0
    akdom thik kotha bolesen
    Total Reply(0) Reply
  • Aftab ahmed ৬ জুন, ২০১৭, ৬:৫৬ এএম says : 0
    Apnake donnobad eak sahosi mulim hisabe amr moner kota boler jonno. Allah aponer sohae hun.
    Total Reply(0) Reply
  • kabir ৬ জুন, ২০১৭, ৮:১৫ এএম says : 0
    Great! really great speech.
    Total Reply(0) Reply
  • jashim uddin ৬ জুন, ২০১৭, ৯:২০ এএম says : 0
    all Bangladeshi moslim very happy. your decision.no need to discus about them
    Total Reply(0) Reply
  • al ৬ জুন, ২০১৭, ৯:৪৬ এএম says : 0
    সাবাস! প্রধান মন্ত্রি,এগিয়ে যাও।
    Total Reply(0) Reply
  • M Hossain ৬ জুন, ২০১৭, ৯:৫১ এএম says : 0
    sorkar jodi seltar na de asob namderi nastikder thik korar jonno hefajoter 2 din o lagbe na , thanks PM
    Total Reply(0) Reply
  • nizamul hoq chowdhury ৬ জুন, ২০১৭, ৯:৫৪ এএম says : 0
    Great our Prime Minister Sheikh Hasina. How much PM is talent, she proved on her speech in vip lounge. She felt the nurve of 16 crore people. We are muslim but we have humanity. Proposal- pls. think about Sonadia Deep Sea Port. Never listen the proposal of India. With regards.
    Total Reply(0) Reply
  • shahjahan ৬ জুন, ২০১৭, ১০:৪৯ এএম says : 2
    Education is Madrasah the best education of the world. It was based on religion. The subjects of their teaching were the Quran, the hadith, the duties and responsibilities of a true Muslim. Then all the Madrasah functioned well as their aims and objectives were confined to the religion and the religious teaching. So those people whom are study here they can lead the country properly.
    Total Reply(0) Reply
  • Muhammad Meizanur Rahman ৬ জুন, ২০১৭, ১১:১৪ এএম says : 0
    Thanks prime minister "ভাস্কর্য স্থাপনের আগে বাইরে থেকে সুপ্রিম কোর্টের প্রবেশপথে দেশের মানচিত্র দেখা যেতো। ওইটি স্থাপনের পর সেটি ঢেকে যায়।"
    Total Reply(0) Reply
  • syed mobnu ৬ জুন, ২০১৭, ১১:৩৩ এএম says : 0
    ধন্যবাদ মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনাকে। বাপ কা বেটি, ভয় নেই আল্লাহ আছেন।
    Total Reply(0) Reply
  • মোঃ ফুরকান ৬ জুন, ২০১৭, ২:৩৬ পিএম says : 0
    ধন্যবাদ, মাননীয় প্রধান মন্ত্রীকে ৷ তিনি সঠিক সময়ে সঠিক কাজটিই করেছেন ৷
    Total Reply(0) Reply
  • Aman ৬ জুন, ২০১৭, ৬:১০ পিএম says : 0
    Obsolutely great decision Allah may give us peach peach
    Total Reply(0) Reply
  • কমল ৬ জুন, ২০১৭, ৬:৫৯ পিএম says : 0
    ধন্যবাদ, মাননীয় প্রধান মন্ত্রীকে ৷ তিনি সঠিক সময়ে সঠিক কাজটিই করেছেন ৷
    Total Reply(0) Reply
  • Mamunur Rashid ৭ জুন, ২০১৭, ১২:২৯ এএম says : 1
    সাবাস প্রধান মন্তী ।
    Total Reply(0) Reply
  • moshahef ali ৭ জুন, ২০১৭, ১:০৯ এএম says : 0
    Thanks prime minister.
    Total Reply(0) Reply
  • মেজবা ৭ জুন, ২০১৭, ৩:৫০ এএম says : 0
    ধর্মকে অস্বীকার করা মানে প্রগতিশীলতা নয়। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, অসাধারণ একটা কথা বলেছেন। মনে থাকবে ✌
    Total Reply(0) Reply
  • R K sheikh ৭ জুন, ২০১৭, ১০:৩৫ এএম says : 0
    Salute you PM.
    Total Reply(0) Reply
  • Gazi Salahuddin ৭ জুন, ২০১৭, ১১:২২ এএম says : 0
    Bravo our PM! We desire this kind of statesmanship in every national issue, only then Bangladesh can rise as an emerging Tiger.
    Total Reply(0) Reply
  • Mohammed S Islam ৭ জুন, ২০১৭, ৮:০৪ পিএম says : 0
    Appropriate Leader ship but toooooo late.I am 64.From boyhood I had been bearing a question in my mind,"Why none from Govt. not caring and controlling the madrasas???????? It started. Thanks The Govt.
    Total Reply(0) Reply
  • md.afzal khan ৮ জুন, ২০১৭, ৪:৩৮ পিএম says : 0
    If you remain by hefazat , you will become the next prime minister of Bangladesh.Thanks
    Total Reply(0) Reply
  • sarwar28021972 ১০ জুন, ২০১৭, ৫:০২ এএম says : 0
    Thanks a lot to the honorable prime minister. May Allah bless you and your family. amin. Jajakallah.
    Total Reply(0) Reply
  • parvez ১০ জুন, ২০১৭, ১০:২৫ এএম says : 0
    dear PM! Salute to you . Bravo ! & Congratulations ! ১৬ কোটি জনতার পক্ষ থেকে একটি আবেদনঃ ওরকম কয়েকটা ' ...পারভারটেড।’ - কে ধরে আচ্ছা করে সাইজ করে দিন।
    Total Reply(0) Reply
  • amrankaderi ১০ জুন, ২০১৭, ১:২২ এএম says : 0
    মাননীয় প্রধান মন্ত্রী একদম ঠিক মন্তব্য করেছেন। কিন্তু আরো উত্তম হতো তাঁর পাশে থাকা কিছু অসাধু ধর্মদ্রোহীদের চিহ্নিত করে শাস্তির আওতায় এনে অপসারন করা। তাহলে মুসলিম বিশ্ববাসীর অন্তরে স্বস্থি আসতো। এখন বঙ্গবন্ধুর যোগ্য উত্তরসূরী হিসেবে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী মহোদয়ের কাছে মুসলিম জনতার পক্ষ থেকে দাবী, চট্টগ্রামের বোয়ালখালী উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আফিয়া আখতার গত 24/05/2017 ইং তারিখে মুসল্লিদের সাথে আলোচনা কালে প্রিয় নবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) ও তাঁর পিতা-মাতাকে নিয়ে কটুক্তি করে মুসলিমদের অন্তরে যে আঘাত হেনেছে এতে যে কোন সময় মুসলিম মিল্লাত ফুঁসে উঠতে পারে। তাই দ্রুততার সাথে এ কুলাঙ্গার ই্উএনও’র উপযুক্ত শাস্তি ও অপসারন দাবী করছি। অন্যতায় ...............................
    Total Reply(0) Reply
  • মনির হাজারী ১১ জুন, ২০১৭, ১২:২১ এএম says : 0
    অভিনন্দন । মাননীয় প্রধান মন্এী। অাপনার সুচিন্তিত পরিচালনায় এদেশের সতের কোটি মানুষের ভাগ্যের উন্নয়ন হবে। ইনশাআল্লাহ। আল্লাহ আপনাকে দীর্ঘজীবি করুন । আমিন।
    Total Reply(0) Reply
  • ১২ জুন, ২০১৭, ৩:৩৭ এএম says : 0
    Prodanmontrir arkom boktitar jonn sadubad janay ,
    Total Reply(0) Reply
  • মুজাহিদ ১১ জুন, ২০১৭, ১০:৩২ পিএম says : 0
    মাননীয় প্রধানমন্ত্রি আপনাকে অশেষ ধন্যবাদ এরকম সাহসী বক্তব্য দেয়ার জন্য। তবে আমরা নিশ্চিত নই আপনার মুখের কথার সাথে , বরং তখনই নিশ্চিত হব, যখন সুলতানা,শাহরিয়ার, ইনু মেনন ও ইমরানদের যখন শাস্তির আওতায় আনা হবে,,,,,!!
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ