Inqilab Logo

ঢাকা রোববার, ১৭ জানুয়ারি ২০২১, ০৩ মাঘ ১৪২৭, ০২ জামাদিউস সানী ১৪৪২ হিজরী

চৌদ্দগ্রামে এক মাসে ১১ কোটি টাকার মাদকসহ আটক ৬৫

| প্রকাশের সময় : ৯ জুন, ২০১৭, ১২:০০ এএম

মোঃ আকতারুজ্জামান চৌদ্দগ্রাম,থেকে ঃ কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে যুব সমাজসহ সর্বস্তরের মানুষের উপর চলছে মাদকের ভয়াল থাবা। শুধু মে মাসেই প্রায় ১১ কোটি টাকা মূল্যের মাদক উদ্ধার করা হয়। অভিযানে মাদকের সাথে জড়িত ৬৫ জনসহ ১২টি যানবাহন আটক করে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। উপজেলা সদরসহ গ্রামাঞ্চলে মাদকের এ ভয়াবহতায় ধ্বংসের দারপ্রান্তে যুবসমাজ।
সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, উপজেলা বিভিন্ন এলাকায় গত মে মাসে হাইওয়ে, জেলা গোয়েন্দা ও থানা পুলিশ এবং বিজিবি পৃথক অভিযান চালিয়ে ৩ লাখ ২৮ হাজার ৫৬৪ পিস ইয়াবা, ২ হাজার ৬৬৬ পিস শাড়ি ও ৯০ পিছ থ্রী পিস, ৫ হাজার ৫৯৭ পিস ফেনসিডিল, ১৫০ বোতল হুইস্কি, ১৮ বোতল বিদেশী মদ, ২০০ লিটার চোলাই মদ ও ৫৩১ কেজি গাঁজা আটক করে। এসময় ৬৫ জন মাদক ব্যবসায়ী ও পাচারকারী আটক করা হয়েছে। এছাড়া পাচারকাজে জড়িত থাকার দায়ে ২টি ট্রাক, ১টি কার্ভাডভ্যান, ১টি পিকআপ, ১টি মাইক্রোবাস, ৪টি প্রাইভেট কার, ১টি সিএনজি চালিত বেবী টেক্সি ও ২টি মোটর সাইকেল আটক করা হয়। এরমধ্যে গত ৩০ মে মঙ্গলবার রাতে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের চিওড়ার ডিমাতলী এলাকায় প্রাইভেটকার (ঢাকামেট্টো-গ-১৬-০৪৫১) তল্লাশি চালিয়ে ২০ কেজি গাঁজাসহ শরীফ হোসেন নামের এক যুবককে আটক করেছে পুলিশ। সে চাঁদপুর জেলার শাহরাস্তি উপজেলার উনকিলা গ্রামের জামাল হোসেনের ছেলে। ২৭ মে আমানগন্ডা বিওপি’র বিজিবি’র সদস্যরা ১৫০ বোতল ফেনসিডিল আটক করে। গত ২৬ মে আনন্দপুর বিজিবি সদস্যরা ১ কেজি গাঁজা, ২৫ মে চৌদ্দগ্রাম বিজিবির সদস্যরা ৮ বোতল বিয়ার আটক করে। ২২ মে মাইক্রোবাস বোঝাই ২ হাজার পিস ইয়াবা ট্যাবলেট আটক করে হাইওয়ে পুলিশ। একইদিন শিবের বাজার বিজিবির সদস্যরা ৩৪৯ বোতল ফেন্সিডিল আটক করে। ২০ মে বিজিবি পৌরসভাধীন নাটাপাড়া (বালুঝুড়ি) নামক এলাকা থেকে ৩ লাখ ২০ হাজার ইয়াবা ট্যাবলেট আটক করে। ১২ মে সাতঘরিয়া বিজিবির সদস্যরা আলকরা ইউনিয়নের কাইচ্ছুটি এলাকা থেকে ৯৯ বোতল ফেনসিডিল এবং ২৪ বোতল হুইস্কি আটক করে। ৯ মে বিজিবি উজিরপুর ইউনিয়নের কাঁঠালিয়া নামক স্থান হতে ২ হাজার ৬৬৬ টি শাড়ী এবং ৯০ টি লেহেঙ্গা আটক করে। ৮ মে আলকরা ইউনিয়নের গোলাইকরা এলাকা থেকে একটি পিকআপ (ঢাকামেট্রো-ন-১৪-৩২০২) তল্লাশী চালিয়ে ৮’শ বোতল ফেনসিডিল ও ১০ কেজি গাঁজাসহ দুইজনকে আটক করেছে পুলিশ। একইদিন ২০ বোতল ফেনসিডিলসহ নোয়াখালী সুধারাম থানার একজনকে আটক করে থানার এসআই আরিফ হোসেন। ৭ মে পৃথক অভিযান চালিয়ে ৭’শ ৪২ বোতল ফেনসিডিল, ৭৫ কেজি গাঁজা ও একটি প্রাইভেটকারসহ ৭ মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে জেলা গোয়েন্দা এবং চৌদ্দগ্রাম থানা পুলিশ। তারমধ্যে কুমিল্লা গোয়েন্দা পুলিশের এসআই শহিদুল ইসলামের নেতৃত্বে পুলিশ সীমান্তবর্তী নানকরা থেকে ৫’শ বোতল ফেনসিডিল ও ৬০ কেজি গাঁজা উদ্ধার করে। এসময় ৪জন কে আটক করে। চৌদ্দগ্রাম থানার এসআই তারিফুল ইসলাম ১’শ ৪২ বোতল ফেনসিডিলসহ কালিকাপুর ইউনিয়নের একজনকে আটক করে। এ ব্যাপারে চৌদ্দগ্রাম থানার ওসি মোঃ আবুল ফয়সাল জানান, মাদকের বিরুদ্ধে পুলিশের জিরো ট্রলারেন্স। প্রতিনিয়তই কোন না কোন এলাকায় অভিযান চলছে। এছাড়া মাদকের বড় ব্যবসায়ীদের প্রোফাইল তৈরি করা হচ্ছে। তাদের বিরুদ্ধেও শিগগিরই অভিযান শুরু করা হবে। তবে মাদকমুক্ত সমাজ গঠনে জনপ্রতিনিধি ও এলাকার সচেতন জনগণকে এগিয়ে এসে পুলিশকে সহযোগিতা করার জন্য তিনি অনুরোধ জানান



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন