Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৪ আশ্বিন ১৪২৫, ৮ মুহাররাম ১৪৪০ হিজরী‌

রূপকথার নায়ক মাহমুদউল্লাহ-সাকিব

| প্রকাশের সময় : ১০ জুন, ২০১৭, ১২:০০ এএম

নিউজিল্যান্ড : ৫০ ওভারে ২৬৫/৮ বাংলাদেশ : ৪৭.২ ওভারে ২৬৮/৫,  ফল : বাংলাদেশ ৫ উইকেটে জয়ী
ইমরান মাহমুদ : ২০০৫ সালের ১৮ জুন। ভেন্যু কার্ডিফের সোফিয়া গার্ডেন্স। প্রতিপক্ষ অস্ট্রেলিয়া। সেবার অজিদের হারিয়ে ক্রিকেট-বিশ্বকে হতবাক করে দিয়েছিল বাংলাদেশ। সেঞ্চুুরি করে ওই ম্যাচে বাংলাদেশের জয়ের নায়ক মোহাম্মদ আশরাফুল। ২০১৭ সালের ৯ জুন। ভেন্যু সেই কার্ডিফ। এবার প্রতিপক্ষ নিউজিল্যান্ড। এক যুগ পর একই মাঠে আরেকটি ‘রূপকথা’র জন্ম দেওয়ার হাতছানি ছিল টাইগারদের সামনে। এমন সুযোগ হাতছাড়া হয়নি মাশরাফি বাহিনীর। জয় দিয়ে ইতিহাসে আরেকটি রূপকথার জন্ম দিল বাংলাদেশ। এবার আর জয়ের নায়ক একজন নয়, দুজন। মাহমুদউল্লাহ এবং সাকিব আল হাসান। এই দু’জনের দৃঢ় ব্যাটিং নৈপুন্যে কিউইদের ৫ উইকেটে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির সেমিফাইনালের স্বপ্ন জিইয়ে রাখলো বাংলাদেশ। টস জিতে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ওভারে ২৬৫ করে নিউজিল্যান্ড। জবাবে মাত্র ৩১ রানে তামিম, সৌম্য, সাব্বির, মুশফিককে হারিয়েও ১৬ বল আর ৫ উইকেট হাতে রেখেই জয়ের বন্দরে তরী ভেড়ায় মাশরাফির দল। এটিকে রূপকথার জয় ছাড়া আর কি-ই-বা বলা যায়! যার নায়ক রিয়াদ-সাকিব। আজ ইংল্যান্ডের কাছে অস্ট্রেলিয়া হেরে গেলে কোন হিসেব ছাড়াই সেমিফাইনাল খেলবে বাংলাদেশ। আর যদি বৃষ্টিতে ম্যাচ পÐও হয়, সেক্ষত্রেও সম্ভাবনা উজ্জ্বল মাশরাফির দলের।
নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে দলকে জয়ের পথে এগিয়ে নেওয়ার পথে ওয়ানডেতে বাংলাদেশের সেরা জুটি গড়েছেন সাকিব আল হাসান ও মাহমুদউল্লাহ। পঞ্চম উইকেটে দুজনে গড়েছেন ২২৪ রানের জুটি। চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে এটি দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রানের জুটি। ৩৩ রানে ৪ উইকেট পড়ার পর জুটি বেঁধেছিলেন, এরপর টেনে নিয়েছেন দলকে। জুটির ১০০ এসেছে ১০৭ বলে। জুটির দুশ পূর্ণ হয়েছে ২০৪ বলে। সাকিব ১১৪ রানে আউট হলেও ১০২ রানে অপরাজিত থেকে দলকে জিতিয়ে মাঠ ছেড়েছেন রিয়াদ। এ নিয়ে আইসিসির ইভেন্টে ৩টি সেঞ্চুরির মালিক এই অলরাউন্ডার। জুটিতে যাদের রেকর্ড ভেঙেছেন সেই দুই জন আছেন ড্রেসিংরুমেই- তামিম ইকবাল ও মুশফিকুর রহিম। ২০১৫ সালে পাকিস্তানের বিপক্ষে তৃতীয় উইকেটে ১৭৮ রানের জুটি গড়েছিলেন দুই জনে। তামিম ও মুশফিক ভেঙেছিলেন হাবিবুল বাশার ও রাজিন সালেহ জুটির রেকর্ড। ২০০৬ সালে কেনিয়ার বিপক্ষে ফতুল্লায় ১৭৫ রানের জুটি গড়েছিলেন দুজন।
এই ম্যাচে নিজেদের জয়, পরের ম্যাচে অস্ট্রেলিয়ার হার- এই দুটি সমীকরণই পারে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে বাংলাদেশকে সেমির টিকি দিতে। চার পেসার নিয়ে খেলবে বাংলাদেশ- আগের দিন ম্যাচপূর্ব সংবাদ সম্মেলনেই জানিয়েছিলেন অধিনায়ক। পরিকল্পনায় এই পর্যন্ত একদম সাফল্য দেয়া যায় মাস্টারমাইন্ডদের। শুরুতেই পেসারদের আঘাত, পরে বাকিটা সারলেন মোসাদ্দেক একা হাতে। রানবন্যার ইংল্যান্ডে নিউজিল্যান্ডকে ২৬৫ রানে থামিয়েছে বাংলাদেশ। মার্টিন গাপটিল ভালো সূচনা এনে দেওয়ার পর মাঝে উইলিয়ামসন ও রস টেইলর দলকে টেনেছেন। বাঁচা-মরার ম্যাচে শেষটায় জ্বলে উঠতে পারেনি জিমি নিশাম, কোরি অ্যান্ডারসন, মিচেল স্যান্টনারদের কেউই। আক্রমণাত্মক শুরু করা নিউ জিল্যান্ডকে উড়তে দেননি বাংলাদেশের বোলাররা। কোনো উইকেট না পেলেও আঁটসাঁট বোলিং করেছেন মাশরাফি বিন মুর্তজা (০/৪৫) ও সাকিব আল হাসান (০/৫২)।
শেষটায় ঘুরে দাঁড়িয়ে নিউ জিল্যান্ডকে তিনশ রানের অনেক আগেই থামিয়েছে বাংলাদেশ। ৩৯তম ওভারে ৩ উইকেটে দুইশ রানে পৌঁছে যাওয়া কেন উইলিয়ামসনের দলের নজর সেদিকেই ছিল। শেষ ১০ ওভারের দারুণ বোলিংয়ে লক্ষ্যটা হাতের নাগালেই রেখেছে মাশরাফি বিন মুর্তজার দল। শেষ ১০ ওভারে ৪ উইকেট হারিয়ে ৬২ রান সংগ্রহ করেছে নিউজিল্যান্ড।
শুরুতে খরুচে বোলিং করা মুস্তাফিজুর রহমান পরে বাধ দিয়েছেন রানের গতিতে। তাসকিন আহমেদ ও রুবেল হোসেনের বাড়তি গতি ভুগিয়েছে নিউজিল্যান্ডের ব্যাটসম্যানদের। ৪৩ রানে ২ উইকেট নিয়েছেন তাসকিন, রুবেল ৬০ রানে একটি। সবচেয়ে বড় চমক ছিল ডেথ ওভারে মোসাদ্দেক হোসেনের দারুণ বোলিং। ৩ ওভারে ১৩ রানে ৩ উইকেট নিয়েছেন এই অফ স্পিনার। ক্যারিয়ারে প্রথমবারের মতো তিন উইকেট পেয়েছেন এই তরুণ।
প্রেসিডেন্ট প্রধানমন্ত্রী ও খালেদা জিয়ার অভিনন্দন
চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে জয়ী বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলকে অভিনন্দন জানিয়েছেন প্রেসিডেন্ট আব্দুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া।
পৃথক পৃথক অভিনন্দন বার্তায় তারা বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের প্রতিটি খেলোয়াড়, কোচিং স্টাফ ও কর্মকর্তাদের প্রতি অভিনন্দন জানিয়েছেন।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অভিনন্দন বার্তায় বলেন, ‘লড়াই করে জেতার আনন্দই আলাদা। লড়াই এর ধারা অব্যাহত রাখতে হবে। জয় আসবেই’।
গতরাতে প্রধানমন্ত্রীর উপ-প্রেস সচিব আশরাফুল আলম খোকন তার নিজের ফেসবুক পোস্টে এ তথ্য জানান।
এদিকে সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াও নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে বিদেশের মাটিতে টানা দ্বিতীয় জয়ে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলকে অভিনন্দন জানিয়েছেন।
গতরাতে বিএনপি চেয়ারপার্সনের মিডিয়া উইং কর্মকর্তা শায়রুল কবির খান এ তথ্য জানিয়েছেন।
তিনি বলেন, তারাবি নামাজ শেষে টাইগারদের খেলা টেলিভিশনে উপভোগ করেছেন খালেদা জিয়া। বাংলাদেশ দলের অসাধারণ বিজয়ে অভিনন্দন জানিয়েছেন সাবেক এই প্রধানমন্ত্রী। অতীতের মতো বাংলাদেশের এই সাফল্যের ধারা অব্যাহত থাকবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন বিএনপি প্রধান।



 

Show all comments
  • Palash Patoary ১০ জুন, ২০১৭, ২:৪৫ পিএম says : 0
    অভিনন্দন বাংলাদেশ ক্রিকেট টিমকে। specially Sakib and Mahmudullah কে ধন্যবাদ।
    Total Reply(0) Reply
  • Fazlul Haque ১০ জুন, ২০১৭, ২:৪৬ এএম says : 0
    বাংলাদেশ দলের অসাধারণ বিজয়ে অভিনন্দন
    Total Reply(0) Reply
  • Noor Ul Islam ১০ জুন, ২০১৭, ২:১৬ পিএম says : 0
    মাহমুদুল্লাহকে আন্তরিক অভিনন্দন বিশ্ব দরবারে মুসলমানদের মাথা উঁচু করার জন্যও।
    Total Reply(0) Reply
  • আমিন আহমেদ ১০ জুন, ২০১৭, ২:২৪ পিএম says : 1
    বিজয় ও আল্লাহর কাছে সেদাহ করার জন্য মাহমুদুললাহকে আন্তরিক ধন্যবাদ
    Total Reply(0) Reply
  • Hafij MD Najim ১০ জুন, ২০১৭, ২:২৪ পিএম says : 0
    good
    Total Reply(0) Reply
  • Masum Patwary ১০ জুন, ২০১৭, ২:৪৬ পিএম says : 0
    নিজের অজান্তেই দু ফোটা পানি বেরিয়ে এল।এই অবস্থান থেকে টেনে নিয়ে এত বড় জয়...!!সাকিব যে কেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার তা আর বুঝতে বাকি নেই ক্রিকেট সমালোচকদের। মাহমুদুল্লাহ সর্বদা বিপ‌দের বন্ধু। ধন্যবাদ‌দি‌য়ে এদুজন‌কে খা‌টো কর‌বো না। শুধু বল‌বো~ চ্যাম্পিয়ন ট্রফির সেমি খেলি বা না খেলি এটাই আমাদের অনেক বড় পাওয়া। ২০১৫ সালের পর থেকেই আমরা ক্রিকেট বিশ্বে আতংক নামে পরিচিক ছিলাম,,,বাট এখন আর আমরা আতংক নই.,,৫০ ওভারের খেলায় এখন আমরাই সব খেকে বড় ভয়ের নাম বাংলাদেশ । কনগ্রাচুলেশন বিডি ক্রিকেট টিম
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ