Inqilab Logo

ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২২ অক্টোবর ২০২০, ৬ কার্তিক ১৪২৭, ০৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী

পাবনায় বেড়েছে সবজির দাম ছোলা, চিনি ও মুরগির দাম স্বাভাবিক

| প্রকাশের সময় : ১৩ জুন, ২০১৭, ১২:০০ এএম

পাবনা জেলা সংবাদদাতা : পাবনার বাজারে সবজির দাম কমেনি। বরং আরো এক দফা বেড়েছে। মাছ-গোশতের বাজারও চড়া । তবে মুরগীর দাম আগের পর্যায়েই আছে। তরকারির বড় ব্যবসায়ী নান্নু জানালেন, এবার সবজির দাম কমার কোন লক্ষণ দেখা যাচ্ছে না। রোজার কারণে বেড়েছে কিনা জিজ্ঞেস করলে জানালেন, ‘রোজার জন্য বৃদ্ধি পেয়েছে।’ রোজার পরও দাম কমে বলে মনে হয় না। বর্ষা শুরু হবে। সবজির দাম আরো বাড়বে । আলু কেজি (সাদা) ২২ টাকা কেজি, লাল আলু ২৪ টাকা। হাইব্রিড অত্যন্ত লম্বা ঝিঙা এক কেজি ৫০ টাকা, লেবু একহালি বড় ২০ টাকা, ছোট সাইজের লেবু ১৫ টাকা হালি, কাঁচা মরিচ এক কেজি ৪০ টাকা, বেগুন লাফা গোল) ৫০ টাকা, বরবটি এক আঁটি (হাফ কেজি) ৩০ টাকা, চাল কুমড়া ১টি ৩০ টাকা, লাউ ২৫ থেকে ৩০ টাকা। খাশীর গোশত প্রতি কেজি ৬শত টাকা, গরু ৪শত থেকে ৪শত পঞ্চাশ টাকা। মুরগীর দাম আগের পর্যায়ে আছে। এক কেজি বয়লার ১৩০ টাকা, সোনালী এক কেজি ২২০টাকা, দেশী মুরগী ৩শত ২০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। চাউল কিনে ঠকছেন ক্রেতারা । মিনিকেট বস্তা খুলে প্রতি কেজি ৫৮ টাকা। এই চাউলে ভাত রান্নার পর তা আউশ ভাতের মত মোটা হয়ে যাচ্ছে। জেলার বিভিন্ন মিলে প্রসেস করা চাউল। মোটা চাউল ছেঁটে চিকন করার পর তা ইউরিয়া সার দিয়ে পরিষ্কার করে সাদা করা হচ্ছে। তবে কোম্পানীর প্যাকেট করা (৫ কেজি) চাউল স্কয়ার, প্রাণ, এ আর চাউল, দোয়েল (ঈশ্বরদী) চাউলে এমনটি হচ্ছে না। চিনির দাম বাজারে স্বাভাবিক রয়েছে। প্রতি কেজি চিনি ৭০ কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে । চিনির দাম না বাড়ার কারণ হিসেবে টিসিবি’র বাজার অপারেশনে পণ্য বিক্রির কারণে বাজার দর বাড়তে পারেনি। ছোলার দামও তেমন বাড়েনি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ