Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ২৪ জুন ২০১৭, ১০ আষাঢ়, ১৪২৪, ২৮ রমজান ১৪৩৮ হিজরী

যুদ্ধের আভাস দিলেন ম্যাট্টিস

উ.কোরিয়ার হুমকি মোকাবিলায় হাউস আর্মড সার্ভিসেস কমিটিতে দেয়া লিখিত বিবৃতি

| প্রকাশের সময় : ১৪ জুন, ২০১৭, ১২:০০ এএম

ইনকিলাব ডেস্ক : মার্কিন প্রতিরক্ষামন্ত্রী জেমস ম্যাট্টিস বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় নিরাপত্তার জন্য উত্তর কোরিয়াকে সবচেয়ে বড় হুমকি বলে মনে করেন। উত্তর কোরিয়াকে মোকাবিলায় দ্রæত পদক্ষেপ নেওয়া দরকার এবং প্রয়োজনে যুদ্ধের আভাসও তিনি দিয়েছেন। গত সোমবার হাউস আর্মড সার্ভিসেস কমিটিতে দেয়া এক লিখিত বিবৃতিতে তিনি এসব কথা বলেন। ম্যাট্টিস বলেন, উত্তর কোরিয়ার পারমাণবিক অস্ত্র কর্মসূচী স্পষ্টভাবে সবার জন্যই এক বিশাল হুমকি। আর ক্ষমতাসীনদের উসকানিমূলক কর্মকাÐ আন্তর্জাতিক আইনে অবৈধ। জাতিসংঘের সমালোচনা ও নিষেধাজ্ঞা সত্তে¡ও সেখানকার ক্ষমতাসীনরা এ প্রক্রিয়া থেকে সরে আসেনি। মার্কিন প্রতিরক্ষামন্ত্রী আরও বলেন, ১৯৫৩ সালের পর থেকে আমরা যুদ্ধের মতো কিছু দেখতে পাইনি। যে কোনও মাত্রার বল প্রয়োগই করতে হোক কেন, তা আমাদের করতে হবে। এটা হবে খুবই তাৎপর্যপূর্ণ যুদ্ধ। ১৯৫৩ সালে কোরিয়া যুদ্ধ শেষে দেখা যায়, এতে কয়েক লাখ কোরীয় নিহত হন। সে সময় থেকে ৩৬ হাজার মার্কিন সেনা দক্ষিণ কোরিয়ায় স্থায়ীভাবে অবস্থান করছে। গত সপ্তাহে দক্ষিণ কোরিয়ার জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা চুং ইউন-ইয়ং জানিয়েছেন, সিউল উত্তর কোরিয়ার হাত থেকে রক্ষার জন্য মার্কিন ক্ষেপণাস্ত্র বিধ্বংসী ব্যবস্থান মোতায়েন করতে বদ্ধপরিকর। ম্যাট্টিস সতর্ক করে দিয়ে বলেছেন, উত্তর কোরিয়া বর্তমানে আন্তর্জাতিক শান্তি ও নিরাপত্তার জন্য সবচেয়ে মারাত্মক হুমকি সৃষ্টি করেছে। তিনি পিয়ংইয়ং’র অস্ত্র কর্মসূচিকে সারাবিশ্বের জন বিপদ বলেও অভিহিত করেছেন। মার্কিন প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় বা পেন্টাগনের বাজেট নিয়ে কংগ্রেসে শুনানির আগে এক লিখিত সাক্ষ্যে এ সতর্কবাণী উচ্চারণ করেন ম্যাট্টিস। তিনি বলেন, উত্তর কোরিয়া তার পরমাণু অস্ত্র কর্মসূচির গতি ও পাল্লা বৃদ্ধি করছে। জাতিসংঘের নিন্দা ও নিষেধাজ্ঞা সত্তে¡ও উত্তর কোরিয়া তার ক্ষেপণাস্ত্র ও পরমাণু অস্ত্র কর্মসূচি বন্ধ করছে না। কংগ্রেসের কাছ থেকে পেন্টাগনের জন্য অতিরিক্ত বাজেট আদায়ের জন্য আন্তর্জাতিক অঙ্গনে আমেরিকার জন্য কথিত কিছু বিপদের আভাস দেন ম্যাট্টিস। তিনি সতর্ক করে দিয়ে বলেন, চীন ও রাশিয়া সামরিক দিক দিয়ে ব্যাপক শক্তি অর্জন করায় আন্তর্জাতিক অঙ্গনে সামরিক শক্তির ভারসাম্য হুমকির মুখে পড়েছে। রয়টার্স।

 


Show all comments
  • Nilu Ahmed ১৪ জুন, ২০১৭, ১২:৫৩ পিএম says : 0
    যুদ্ধ খরা বন্না কলহ এসব বেবসাযী দের জন্য ভাল পরিবেশ।ট্রাম্প সাহেব একজন ভালো বেবসাযী। বিশ্ব রাজনীতিতে তাঁর অভিজ্ঞতা কাজে লাগবে একটি আন্তর জাতিক ছৌট্ট কমিউনিটি।যারা দুনিয়ার সমস্ত সমস্যার মূলে।
    Total Reply(0) Reply
  • আশিক ১৪ জুন, ২০১৭, ২:০৬ এএম says : 0
    কবে যে আবার যুদ্ধ লেগে যায়?
    Total Reply(0) Reply
  • Md Sha Hossain ১৪ জুন, ২০১৭, ১২:৫৫ পিএম says : 0
    মার্কিনীরা পৃথিবীর সব চাইতে ভীতু নাগরিক। যুদ্ধের ভয় দেখিয়ে পৃতিবীতে প্রভাব বিস্তার করে অস্ত্র বেঁচে খায়। যুদ্ধ হলে মার্কিনীদের প্রভাব ধংস হবে ইনসা আল্লাহ্
    Total Reply(0) Reply
  • Md Nizam ১৪ জুন, ২০১৭, ১২:৫৬ পিএম says : 0
    তেদের আর কোনো কাজ নাই অনাহারি মানুষকে খাবার এর ব্যবস্তা করতে পারছ না?
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর