Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৯ আশ্বিন ১৪২৫, ১৩ মুহাররাম ১৪৪০ হিজরী‌

‘আনপ্রেডিক্টেবল’ বনাম ‘আনবিটেন’

পাকিস্তান-ইংল্যান্ড প্রথম সেমিফাইনাল

| প্রকাশের সময় : ১৪ জুন, ২০১৭, ১২:০০ এএম

স্পোর্টস ডেস্ক : আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির প্রথম সেমিফাইনালে আজ মুখোমুখি হতে যাচ্ছে আসরের অন্যতম ফেভারিট স্বাগতিক ইংল্যান্ড ও ‘আনপ্রেডিক্টেবল’ খ্যাত পাকিস্তান। ভারতের বিপক্ষে হেরে শুরুটা মন্দ হলেও গ্রæপ পর্বে আসরের আরেক ফেভারিট দক্ষিণ আফ্রিকাকে উড়িয়ে দিয়েছিল পাকিস্তান। পরের ম্যাচে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে দারুণভাবে ঘুড়ে দাঁড়িয়ে তারা নিশ্চিত করে সেমিফাইনাল। তারপরও কাগজে-কলমে ফেবারিট হিসেবেই মাঠে নামবে ইংল্যান্ডই।
গত ৪২ বছরে তিন বার বিশ্বকাপ ফাইনাল খেলেও ওয়ানডের বড় কোন টুর্নামেন্টে শিরোপা জিততে পারেনি ইংল্যান্ড। নিউজিল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়ায় অনুষ্ঠিতব্য ২০১৫ বিশ্বকাপের গ্রæপ পর্ব থেকেই তারা বিদায় নেয় বাংলাদেশের কাছে হেরে। এরপর স্বল্প সময়ে অনেক দূর পাড়ি দিয়ে আসতে হয়েছে তাদের। এখন পর্যন্ত বেশ গোছালো দলও তারা। ইয়ন মর্গ্যানের নেতৃত্বে ভারসাম্যপূর্ণ দলটির মাধ্যমে নিজেদের স্বপ্ন পুরনের সম্ভাবনা দেখছে ইংল্যান্ড। তবে চিরপ্রতিদ্ব›দ্বী ভারতের কাছে টুর্নামেন্টে নিজেদের প্রথম ম্যাচে লজ্জাজনক পরাজয়ের পর দারুণভাবে ঘুড়ে দাঁড়ানো পাকিস্তানও সোফিয়া গার্ডেন্সে স্বাগতিক দলের বিপক্ষে ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখতে চায়।
গত বছর নিজ মাঠে দ্বিপাক্ষিক ওয়ানডে সিরিজে পাকিস্তানকে ৪-১ ব্যবধানে হারিয়েছিল ইংলিশরা। যার মধ্যে ট্রেন্ট ব্রিজের সেই ম্যাচে বিশ্ব রেকর্ড গড়ে ৩ উইকেটে ৪৪৪ রান করেছিল তারা মর্গ্যানের নেতৃত্বই। দলে রয়েছে বিশ্ব সেরা অলরাউন্ডারদের একজন বেন স্টোকস। যিনি ব্যাট-বল হাতে যেকোন প্রতিপক্ষকে ধ্বসিয়ে দিতে সক্ষম। বিশ্বমানের ব্যাটসম্যান জো রুটকে ঘিরে ইংল্যান্ড ব্যাটিং লাইনআপ আবর্তিত হচ্ছে।
মর্গ্যান ও জস বাটলার আছেন মিডল অর্ডারে। টপ অর্ডারে আছেন আগ্রাসী এ্যালেক্স হেলস ও জেসন রয়। অবশ্য রয় খুব ফর্মে না থাকায় শেষ চারের লড়াইয়ে তার পরিবর্ত দেখা যেতে পারে জনি বেয়ার’শকে। দুই পেসার জ্যাক বল ও লিয়াম প্লানকেট ভালভাবেই নিজেদের দায়িত্ব পালন করে আসছেন। এছাড়া ফর্র্মে থাকা মার্ক উডও স্ট্রাইক বোলার সঠিকভাবে পালন করছেন নিজ দায়িত্ব। পায়ের গোঁড়ালিতে অস্ত্রোপচারের পর এই গ্রীষ্মে দলে ফিরেছেন উড। তবে তার বোলিং প্রতিপক্ষের ব্যাটসম্যানদের জন্য বড় আতঙ্ক।
পক্ষান্তরে গ্রæপ পর্বে নিজেদের শেষ ম্যাচে অপ্রত্যাশিতভাবে শ্রীলংকাকে হারিয়ে সেমিফাইনাল নিশ্চিত করেছে আনপ্রেডিক্টেবল পাকিস্তান। শ্রীলংকার বিপক্ষে তিন উইকেটে জয় পাওয়া ম্যাচে সরফরাজ আহমেদের ঐ ইনিংসটি নিশ্চিয় উজ্জিবীত করবে পাকিস্তান। ভালো কিছু করার ইঙ্গিত অভিষেকের দুই ম্যাচেই দিয়ে রেখেছেন শ্রীলংকার বিপক্ষে ৩৬ বলে ৫০ রান করা ওপেনার ফকর জামান। মিডল অর্ডার নিয়ে কিছুটা শংকা থাকলেও সরফরাজ মনে করেন, ‘পাকিস্তানের হাতে এ সমস্যার সমাধান আছে। কেননা পরিস্থিতি বুঝে ব্যাটিং করার মত মোহাম্মদ হাফিজ এবং শোয়েব মালিক রয়েছেন। মোহাম্মদ আমির, জুনাইদ খান এবং হাসান আলীর সমন্বেয়ে পাকিস্তানের বোলিং লাইনআপও বেশ শক্তিশালী। পেস সহায়ক কিন্ডশনে পাকিস্তানী পেসারদের মানিয়ে নেয়ার বিষয়টি সম্পর্কে সচেতন ইংল্যান্ডও। সরফরাজও জানেন সেটি, ‘ইংল্যান্ড খুব ভাল একটি দল। গত দুই বছর যাবত তারা সত্যিই ভাল ক্রিকেট খেলছে। আপনি যদি বিশ্বমানের একটি দল হিসেবে খেলে থাকেন তবে অবশ্যই ইংল্যান্ডের বিপক্ষে আপনাকে অধিকতর ইতিবাচক ক্রিকে খেলতে হবে।’
টুর্নামেন্টে এ পর্যন্ত অপরাজিত একমাত্র দল হিসেবে সেমিফাইনালে উঠেছে ইংল্যান্ড। গ্রæপ পর্বে প্রথম ম্যাচে বাংলাদেশ, দ্বিতীয় ম্যাচে নিউজিল্যান্ড ও শেষ ম্যাচে অস্ট্রেলিয়াকে হারিয়ে শেষ চারে আসা ইংল্যান্ড স্বাভাবিকভাবেই অন্যতম ফেবারিট দল। তবে প্রতিপক্ষের নামের আগে থাকা ঐ একটি শব্দই নিশ্চয় দুঃচিন্তায় রাখবে স্বাগতিকদেরÑ ‘ দ্য আনপ্রেডিক্টেবল’।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর