Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ২১ নভেম্বর ২০১৮, ০৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ১২ রবিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী

তারেক রহমান বিদেশে বসে দেশের রিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছে -এনামুল হক শামীম

| প্রকাশের সময় : ১৪ জুন, ২০১৭, ১২:০০ এএম

স্টাফ রিপোর্টার : আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক একেএম এনামুল হক শামীম বলেছেন, বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়ার পুত্র তারেক রহমান বিদেশের মাটিতে বসে দেশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছে। এ ব্যাপারে প্রবাসী বাঙালিদের সজাগ ও সতর্ক থাকতে হবে।
ষড়যন্ত্রের জবাব দিতে হবে। ইতালীর রোমে সোমবার স্থানীয় সময় সন্ধ্যায় ইফতার পূর্ব এক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন। এনামুল হক শামীম বলেন, বিএনপি ক্ষমতায় থাকা অবস্থায় খালেদা জিয়ার পুত্র তারেক রহমান সরকারের ভেতরে আরেকটি ‘সরকার’ তৈরি করেছিল। দেশের সম্পদ লুটপাট করার পাশাপাশি আওয়ামী লীগকে নেতৃত্ব শুন্য করতে জননেত্রী শেখ হাসিনাকে প্রধান টার্গেট করে ২০০৪ সালে একুশে আগস্ট গ্রেনেড হামলার পরিকল্পনা করে। কিন্তু রাখে আল্লাহ মারে কে। দেশের জনগণের মঙ্গলের জন্য সেদিন মহান আল্লাই শেখ হাসিনাকে বাচিয়ে রেখেছিলেন। কিন্তু সেদিন ২২জন আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীসহ ২৪ মানুষ মারা যায়। তারেক রহমানের মদদেই সারাদেশে জঙ্গিবাদের উত্থান হয়। সন্ত্রাসের রাজত্য কায়েম হয় সারাদেশে। তিনি সারাদেশে ‘মিস্টার টেন পাসেন্ট’ হিসেবে পরিচিত ছিলেন। তাকে চাঁদা না দিয়ে কেউ কোন কাজ করতে পারতেন না। সে সময় একটি প্রচলিত প্রবাদ ছিল ‘মায়েপুত মিল্লা-দেশটা খাইলো গিল্লা’। সেই তারেক রহমান দেশ ছেড়ে বিদেশের মাটিতে আয়েসি জীবন যাপন করছেন। এখন আওয়ামী লীগ সরকারের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র শুরু করেছে। কিন্তু ষড়যন্ত্র করে লাভ হবে না। দেশের জনগণ আওয়ামী লীগের সঙ্গে আছে, আগামীতেও থাকবে।
ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি এনামুল হক শামীম প্রবাসীদের উদ্দেশে বলেন, আওয়ামী লীগ, জননেত্রী শেখ হাসিনা মানেই উন্নয়ন। শেখ হাসিনা রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় আছে বলেই দেশে আজ উন্নয়ন হচ্ছে। না হলে দেশ পিছিয়ে যেত। বিএনপি আসলে দেশ পিছিয়ে যায়। আর আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসলে দেশ এগিয়ে যায়। গত আট বছরে আওয়ামী লীগ সরকারের আমলে যে উন্নয়ন হয়েছে, তা বিগত ২৮ বছরে কেউ করতে পারেনি। এ জিনিসটা আজকে জাতি উপলদ্ধি করতে পেরেছে। তিনি বলেন, শেখ হাসিনা মানেই বাংলাদেশ। শেখ হাসিনা মানেই উন্নয়ন। শেখ হাসিনা মানেই গণতন্ত্র। শেখ হাসিনা মানেই স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্ব নিরাপদ। বিশ্ববাসীর কাছে এগুলো তুলে ধরতে হবে। শামীম বলেন, ১/১১ জরুরী সরকার যখন জননেত্রী শেখ হাসিনাকে কারাবন্দী করেন, তখন প্রবাসী আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা নেত্রীর মুক্তির জন্য আন্দোলন করেছিল। আবার ২০১৪ সালের নির্বাচন বানচাল করার জন্য যখন বিএনপি দেশব্যাপী সন্ত্রাস করে সে সময়ও প্রবাসী নেতাকর্মীরা বিএনপি-জামায়াতের নারকীয় তান্ডব দেশ বিদেশে তুলে ধরেছে।
শামীম বলেন, দেশকে এগিয়ে নিতে শেখ হাসিনার বিকল্প নেই। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আবারও আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় আনতে প্রবাসী বাঙালিদের ভুমিকা রাখতে হবে। নির্বাচনের আগে দেশে গিয়ে নৌকার জন্য জনমত গঠন করতে হবে। একটা কথা মনে রাখতে হবে, শেখ হাসিনা ভাল থাকলে দেশ ভাল থাকবে। শেখ হাসিনা ক্ষমতায় থাকলে দেশ এগিয়ে যাবে।
ইতালি আওয়ামী লীগের সভাপতি ইদ্রিস ফরাজির সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক হাসান ইকবালের পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন, লোকমান হোসেন, জি এম কিবরিয়া, জহির সিকদার, জাহাঙ্গীর ফরাজি, কিটন শিকদার. মিন্টু প্রমুখ।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর