Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ০৭ জুলাই ২০২০, ২৩ আষাঢ় ১৪২৭, ১৫ যিলক্বদ ১৪৪১ হিজরী

যেকোনো মুহূর্তে ধসে পড়তে পারে দগ্ধ টাওয়ারটি

অগ্নিকান্ডের ঘটনা ভয়াবহ : সাদিক

| প্রকাশের সময় : ১৫ জুন, ২০১৭, ১২:০০ এএম

ইনকিলাব ডেস্ক : পশ্চিম লন্ডনের লাটিমার রোডে ২৭ তলা গ্রেনফেল টাওয়ারে ভয়াবহ অগ্নিকাÐের ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্ত ভবনটি যেকোনো মুহূর্তে ধসে পড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। ভবনটিতে বহু মানুষ আটকা পড়েছেন বলে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন। লন্ডনের মেয়র সাদিক খান এই ঘটনাকে ভয়াবহ হিসেবে ঘোষণা করে বলেছেন, এ ধরনের ঘটনা যেমন মর্মস্পর্শী তেমনি হৃদয়বিদারক। গতকাল বুধবার বিবিসি অনলাইনের প্রতিবেদনে জানানো হয়, গত মঙ্গলবার স্থানীয় সময় রাত ১টা ১৬ মিনিটে গ্রেনফেল টাওয়ারে আগুন লাগে। ফায়ার সার্ভিসের দুই শতাধিক কর্মী আগুন নেভাতে কাজ করছেন। ১৯৭০ সালে নির্মিত আবাসিক এই ভবন নটিংহিলের কাছে অবস্থিত। ভবনে ১২০টি আবাসিক ফ্ল্যাট রয়েছে। লন্ডন পুলিশ বলছে, এই ঘটনায় অনেক মানুষ আহত হয়েছেন। ভবনে আটকে পড়া বাসিন্দাদের সরিয়ে নেয়া হচ্ছে। বার্তা সংস্থা এএফপির প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, সকাল পর্যন্ত ফায়ার সার্ভিস ৩০ জন আহত ব্যক্তিকে হাসপাতালে পাঠানোর তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করেছে। ভবনটির একাদশ তলা দিয়ে বাসিন্দাদের বের করে আনার চেষ্টা করছেন উদ্ধারকর্মীরা। ঘটনাস্থলের কাছ দিয়ে যাওয়া পাতালপথ বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। প্রত্যক্ষদর্শী ব্যক্তিরা বলছেন, পুরো ভবনে দাউ দাউ করে আগুন জ্বলছে। এতে আতঙ্কিত হয়ে আটকে পড়া অনেকেই ছাদ থেকে পড়ে গেছেন। কেউবা ইচ্ছে করেই লাফ দিয়েছেন। অনেকে ওই ভবনে আটকা। লন্ডন অ্যাম্বুলেন্স সার্ভিসের সহকারী পরিচালক (অপারেশন) স্টুয়ার্ট ক্রিস্টন বলেন, এ পর্যন্ত আহত ৩০ জনকে অ্যাম্বুলেন্সে করে লন্ডনের পাঁচটি হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ঘটনাস্থলে ২০টির মতো অ্যাম্বুলেন্স রয়েছে। লন্ডন ফায়ার সার্ভিস এক টুইট বার্তায় বলেছে, ভবনটির দ্বিতীয় তলা থেকে আগুনের সূত্রপাত। তারপর তা ২৭ তলা পর্যন্ত ছড়িয়ে গেছে। আগুন নেভাতে এখন পর্যন্ত ৪০টি ফায়ার ইঞ্জিন পাঠানো হয়েছে। ঘটনাস্থলে থাকা সাংবাদিক অ্যান্ডি মুর জানিয়েছেন, ভবনটির চারপাশ দিয়েই আগুন জ্বলছে। যেকোনো সময় ভবনটি ধসে পড়তে পারে। চারদিকে ছাই উড়ছে। বিস্ফোরণের শব্দ হচ্ছে। বিবিসি, রয়টার্স।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: অ্যাম্বুলেন্স


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ