Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৯ অক্টোবর ২০১৭, ০৪ কার্তিক ১৪২৪, ২৮ মুহাররম ১৪৩৯ হিজরী

সৌম্যর ঋণ শোধ হবে কবে?

| প্রকাশের সময় : ১৬ জুন, ২০১৭, ১২:০০ এএম

ইমরান মাহমুদ : ০, ৩, ৩, ২৮- চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির চার ম্যাচে তার রানের টালি। সর্ব সাকুল্যে ৩৪। উদ্বোধোনী ম্যাচে ওভালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ২৮, অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সমান তিন করে এবং গতকাল ভারতের বিপক্ষে হাইভোল্টেজ সেমিফাইনালে এজবাস্টনের মত ব্যাটিং স্বর্গে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির এবারের আসরে তার আগের সকল রেকর্ডকে ছাপিয়ে আউট হয়েছেন শূণ্য রানে!
এরও অনেক আগে থেকেই ক্রিজে খাবি খাচ্ছে তার ব্যাট। আসর শুরুর আগে দুটি ভারত-পাকিস্তানের বিপক্ষে দুটি প্রস্তুতি ম্যাচেও যথারীতি ¤øান তার ব্যাট, খেলেছেন যথাক্রমে ২ ও ১৯ রানের ইনিংস। ইংল্যান্ডে আসবার পথে আয়ারল্যান্ড ‘ভ্রমনে’ গিয়ে যে ত্রী-দেশীয় সিরিজ খেলেছিল বাংলাদেশ, তার প্রথমটিতে ১৭, দ্বিতীয়টিতে ৫, আর শেষেরটাতে মেরেছেন ডাক! তাতে কী? মাঝের দুটো ম্যাচে খেলেছেন যথাক্রমে ৮৭* ও ৬১ রানের ঝলমলে দুটি ইনিংস! তাতেই মন ভরে গেছে?
২০১৪ সালে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে অভিষেক। এরপর থেকে ৩১টি ম্যাচে হাজার না পেরুনো রান (৯৫৯) যতটা না তার বিদ্ধংসী ব্যাটিংকে বোঝায় তারচাইতে ¤øান করে নামের পাশে ৩টি ডাক! গড়ে ৩৫ এর ওপরে হলেও দলের প্রয়োজনে জ্বলে উঠতে পেরেছেন খুব কম ম্যাচেই। ২০১৫ বিশ্বকাপে বোল্ট-সাউদির সুইংয়ের ফাঁক গলে ৫২ রানের চোখ ধাঁধানো ইনিংস, পাকিস্তানের বিপক্ষে দারুণ শুরু এবং দ্রæত শেষ হয়ে যাওয়া। ভারত, নিউজিল্যান্ডের বোলাররা তো ওই সময় সৌম্যর ব্যাটিং মূর্তিকে দুঃস্বপ্নেও দেখতেন। ঘরের মাটিতে পাকিস্তানকে হোয়াইটওয়াশের ম্যাচে তার অপরাজিত ১২৭, ভুলবার নয়। আমরা ভুলবো-ও না। আমরা তার এই গুটি কয়েক ইনিংস আজীবন মনের গহীনে, অন্তরের অন্তস্থলে গেঁথে রাখবো। তাই বলে একের পর এক ম্যাচে ব্যর্থতা, অ-বিবেচকের পরিচয় দিয়েও কোন অদৃশ্য কারনে দলে ঠাঁই মিলছে তার, তা বোধগম্য নয়।
তবে কী সৌম্যর ঋণ শোধ করবার আর কোন পথ নেই? আর কতদিন এমন একজন ‘ব্যাটসম্যানের’ বোঝা বয়ে নিয়ে বেড়াতে হবে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলকে? দলে যেখানে অর্ডার নিয়ে ‘মধুর সমস্যার’ দোহাই দিয়ে ইমরুল কায়েস, সফিউল ইসলামের মত অভিজ্ঞ, মেহেদী হাসান মিরাজ, মোসাদ্দেক হোসেনর মত পরীক্ষিত, সানজামুলের মত পরিশ্রমী ক্রিকেটার স্কোয়াডে থাকতেও অতটা বিলাসিতা কি বিসিবির মানায়?
যেখানে ভারতে হারিয়ে আইসিসির কোন ইভেন্টে প্রথম ফাইনালের স্বপ্ন বুনতে শুরু করেছিলেন বাংলাদেশের ১৬ কোটি ক্রিকেটপাগল মুনুষ, মাশরাফির ৩০ রানের ঝড়ো ইনিংসতো আছেই, তাসকিনসহ সকলেই খেললেন ডাবল ফিগারের ইনিংস, সেখানে একজন সৌম্যর অমন অপরিণত আউটের খেসারত আর কত দিতে হবে? এমন প্রশ্নে সরব ফেসবুক, টুইটারও। আউট হবার পর সৌম্যর হতাশ একটি ছবি দিয়ে ফেসবুকে একজন লিখেছেন ‘সৌম্যকে জাতীয় দল থেকে বাদ দেয়া হোক, কে কে একমত?’ যার উত্তরে মাত্র ২ ঘন্টার মধ্যে ‘ইয়েস’ লিখেছেন ৯ হাজার ২০৮জন (রিপোর্টটি লেখা পর্যন্ত) ক্রিকেট ভক্ত। অনেকে এককাঠি এগিয়ে এমনটিও মত দিয়েছেন, ‘ওকে (সৌম্য) আরে আগেই বাদ দেয়া উচিত ছিল।’ অপর একজন লিখেছেন, ‘আমার হাতে ক্ষমতা থাকলে তাকে এখনি বাদ দিয়ে দিতাম।’ আরেকজন তো বিসিবির এমন অদুরদর্শিতা নিয়েও প্রশ্ন তুলে লিখেছেন, ‘নাসির, জিয়ার মত অলরাউন্ডার থাকতে সৌম্যকে কেন দলে নেয়া হয়, বুঝিনা?’। খুঁজলে এর বিপক্ষে আরো অনেক মতামত পাওয়া যাবে। তবে জানি, এগুলো বাংলাদেশ ক্রিকেটকে যারা ভালোবাসে তাদের দুশ্চিন্তার বহিঃপ্রকাশ মাত্র, আবেগের বহিঃপ্রকাশও বলা চলে। সেদিকে না গিয়ে, ‘পরিসংখ্যানের পাতায়ও কী চোখ বুলানো যায় না’? এমন প্রশ্নও করেছেন কেউ কেউ।
তবে এটা বলতে দ্বিধা নেই, সৌম্য শুরুতে নিজেকে প্রমাণ করেছেন। তার ব্যাটিং আমাদের আনন্দ দিয়েছে, বিশ্বাস দিয়েছে। ফলে তিনটি ম্যাচের ব্যর্থতার পরও তাকে বাদ দেওয়া যাবে না- টিম ম্যানেজমেন্টের এই চিন্তার সাথে সহমত পোষণ করেছিলাম। তবে গতকাল ভারতের বিপক্ষে যা হলো, তাতে সৌম্যকে নিয়েই এখন চিন্তার ভাঁজ অনেকের মত আমার কপালেও। এর আগে এই ভারতের বিপক্ষেই ৫ ম্যাচে করেছেন ১৫৭। গতকালের হাইভোল্টেজ ম্যাচে অমন অ-বিবেচক, অনভিজ্ঞের মত শট খেলতে গিয়ে ২ বলে শূণ্য রানে ফেরা- সমর্থনটা সংশয়ে পড়ে গেছে। সৌম্য বড় ব্যাটসম্যান, তাতে সন্দেহ নেই। তবে আর্ন্তজাতিক ক্রিকেটে খাবি খেয়ে আত্মবিশ্বাসটা স্থায়ীভাবে তলানিতে পাঠানোর চেয়ে জরুরী তাকে বিশ্রামে পাঠিয়ে মাথাটা ঠান্ডা করার একটা সুযোগ দেওয়া। সকলেই জানি, তিনি অবশ্যই ফিরে আসবেন। তাকে ফিরতেই হবে- বাংলাদেশ ক্রিকেটের জন্য, বাংলাদেশের জন্য।

 


Show all comments
  • shoukat ali ১৬ জুন, ২০১৭, ১:৪৩ এএম says : 0
    BANGLADESH CRICKET BORD crickter der chy gorotu porno. ugochalo sedantu 1) Haturesing JATIY DOLL ar khela nah thakle se BANGLADESH kono deitu palon kure nah. zudi o se soub sozug sobeda bouk kure. 2) BANGLADESH ak matro cricket pay nation ubegotar kono dam nai. aj porzonto jatiy doll nerbacun korte parlo nah. 3)3/4 ti mach a valo khele jatiy doll a khelar sozug,zah unno kono desh a aei neyom nai. zara jatiy luge a valo khelchy tahder jatiy doll a sozug nah dewa. 4)paopn hature sing ar sorbo moy khumota , crickter tar echy abhung merbani tey JATIY doll a sozug pay. cricket bord a chatuger ar sozug bashi ,RAJNOTIC KHUMOTAR ZORE bord ar sobapoti media te zokhun ahsen mone hoy cricktket bord tar dowa chara kar o khumota nai. 5) crickter zaar neymeto beton baat pay ,tara pesadar noy kino , 1 mach a 100 run netey parle 20 mach a run nah netey parle o khelay nemeto. asoub ar sothik sedanto nerbar khumota kar o nai papon chara. shoukat ali paris ,FRANCE sanjidashohel@gmail .com
    Total Reply(0) Reply
  • mukul ১৬ জুন, ২০১৭, ১২:১২ পিএম says : 0
    we have to think about our boling and fielding department also very urgently, as I feel personally.
    Total Reply(0) Reply
  • Masud ১৬ জুন, ২০১৭, ২:১৭ এএম says : 0
    Soumyo ki kono kotay khele naki?
    Total Reply(0) Reply
  • সুমন ১৬ জুন, ২০১৭, ২:২০ এএম says : 0
    ভারতের সাথে বাংলাদেশ হারবে এটা স্বাভাবিক বেপার কারন সব দিক থেকেই তারা বাংলাদেশের থেকে ভালো টিম। কিন্তু সেই হারটা যে হতে হবে সম্মানজনক। তবে আজ তা হলো না, আর এই করুন হারের জন্য আমি BCB কেই দায়ী করব। আজকে বাংলাদেশ দলে একজনও Wicket taking বোলার দেখলাম না। যেহেতু আমাদের কোন স্পেসালিষ্ট ভালো স্পিনার আপাতত নাই তাহলে রাজ্জাক ঘরোয়া লিগে ভালো করার পরও কেন দলে নেয়া হচ্ছে না। অথবা এই জায়গায় নাসির কে খেলানো হচ্ছে না কেন??? যখন যে ভালো ফর্মে থাকবে তখন তাকেই চান্স দেয়া উচিত। কে জানে হয়ত আজকের ম্যাচে রাজ্জাক বা নাসির থাকলে অন্য কিছুও হতে পারত। আবার কন্ডিশনের বিবেচনায় প্রয়োজনে ৪ জন পেসার খেলানো যেতেই পারে তবে নাসির, রাজ্জাক ১৫ জনের স্কোয়াডে থাকার মত যোগ্য। তারপর বুজলাম সৌম্য ভালো প্লেয়ার কিন্তু সে যেহেতু ফর্মে নাই তাহলে তাকে একটু রেষ্ট দিয়ে বিজয় বা ইমরুল কে খেলাতে পারত। এই পজিশনটায় বার বার একজন কে চান্স না দিয়ে যদি, যে যখন ফর্মে থাকবে তাকে চান্স দিত, তাহলে সবার মধ্যেই ভালো করার চেষ্টা থাকত,,, শুধু একজনকে এত পরিমান চান্স দিলে ভালো প্লেয়ার বেরও হবে না আর তার নিজেরও বাদ পরার ভয় না থাকায় এরকম ০০ জিরোই উপহার দিবে। ৩ নাম্বার পজিশন নিয়ে এত সমস্যা সাব্বির ৩ নাম্বারের যোগ্যই না, ৩ নাম্বার পজিশনে মমিনুলকে সাব্বিরের মত এতগুলো চান্স দিলে, সেও এতদিনে মুশফিকের মত বাংলাদেশের ব্যাটিং ভরসার অন্যতম উদাহরন হয়ে যেত। তারপরও যদি খারাপ করত তাহলে অন্য চিন্তা করত। এই পজিশনে একজন ম্যাচ ধরার মত প্লেয়ার দরকার, দলকে বিপদে ফালানোর মত প্লেয়ার দরকার না। এই চ্যাম্পিয়ন ট্রোফিতে বাংলাদেশের হয়ে যা কিছু করার সব কিছুই সিনিয়র ক্রিকেটারই করছে, একজন জুনিয়ার ক্রিকেটারও একটা ম্যাচেও ভালো কিছুই করতে পারে নাই। বি:দ্র: এটা একান্ত আমার ব্যাক্তিগত মতামত।
    Total Reply(1) Reply
    • ALAMIN KAHN ১৭ জুন, ২০১৭, ৮:৪৩ এএম says : 0
      I agree with you brother . I would blame to BCB due to their selections . I have question here why Nasir was not been played not even one match ? I believe because of Mr. Papon he was not selected for matches. He should not bring all his person problems into cricket, maybe he forgot that 11 players are representing the our lovely country. I do really apologies for my opinion Mr. Papon should be kicked out from BCB.
  • জাহাঙ্গীর আলম ১৬ জুন, ২০১৭, ৪:৩১ এএম says : 0
    যাক,অন্তত এই একটি নিউজপেপারকে দেখলাম সৌম্যর বিষয়ে নিউজ করতে।আশ্চর্য লাগে গত দেড় বছর থেকে এই মহাপন্ডিতের কোন রান নেই!তারপরেও ওকে দলে চান্স দেওয়া হয় কোন অলৌকিক শক্তির ইশারায়।নাকি দেশের অন্যান্য সেক্টরের ন্যায় ক্রিকেটেও কোটা প্রথা চালু হলো।যদি কোটা প্রথা চালু করা হয় তাহলে কিছু বলার নাই।আর যদি অন্য কোন শক্তির কারনে হয়,তাহলে এই শক্তিটাকে প্রকাশ করা হোক।দেশের ক্রিকেট প্রেমীরা তা দেখতে চায়!!
    Total Reply(1) Reply
    • md nazrul alam ১৬ জুন, ২০১৭, ১০:২০ এএম says : 0
      খুব সুন্দর একটি কমেন্ট এটা আজ ১৬কোটি মানুষের দাবি
  • md nazrul alam ১৬ জুন, ২০১৭, ১০:২৫ এএম says : 0
    সবার ই টুশ খেলে হুশ হয় কিন্তু আমাদের টুশ খেয়ে আরো হুশ হারাচ্ছে
    Total Reply(0) Reply
  • ১৬ জুন, ২০১৭, ৫:২৮ এএম says : 1
    ............... না গেলে সমস্যা সমাধান হবেনা
    Total Reply(0) Reply
  • S. Anwar ১৬ জুন, ২০১৭, ১০:৩১ এএম says : 1
    সৌম্যের মত কুষ্মান্ডকে এখনই জাতীয় ক্রিকেট দল থেকে বের করে দেওয়া জরুরী। তার চেয়েও অনেক বেশী বেশী দক্ষ ও দুর্দান্ত খেলোয়ার হাতে থাকতেও কেন ওদের বাদ দিয়ে এমন ফালতুকে জাতীয় দলে নেয়া হলো? নিশ্চয় এখানে ক্রিকেট কর্মকর্তাদের আত্মীয় ও দলীয় করণ নীতির প্রত্যক্ষ ভূমিকা ছিলো। ক্রিকেটের জাতীয় দলে সৌম্যর মতো বাজে খেলোয়ার থাকলে দেশ ও জাতির জন্য কোন কৃতিত্ব ও গৌরবতো আসবেই না বরং এভাবেই বিশ্বাঙ্গণ থেকে লজ্জিত হয়ে মাথা হেট করে বের হয়ে আসতে হবে।
    Total Reply(0) Reply
  • কামরানুল আহসান ১৬ জুন, ২০১৭, ১২:৩৮ পিএম says : 0
    সৌম্যকে নিয়ে কথা হচ্ছে কিন্তু সাব্বিরকে নিয়ে কোন কথাই হচ্ছে না। ও কবে শেষ পঞ্চাশোর্ধ ইনিং খেলেছিল তাই ই তো মনে করতে পারছি না। ওকে খেলাচ্ছে ৩ নম্বরে, সেখানে বড় ইনিং খেলতে হয় তাতে সে বরাবরই ব্যর্থ। ফর্মে থাকলেও সে ঐ পজিশনে কখনো একটা সত্তরোর্ধ ইনিং খেলতে পারে নাই। ওর বাধাধরা রান ৪০-৬০। এরকম একজন খেলোয়াড়কে বারংবার কেন ৩ নম্বরের মত গুরুত্বপূর্ণ পজিশনে খেলানো হয় তা আমার কাছে একটা রহস্য। দেশের সেরা টেকনিকাল ব্যাটসম্যান মুশফিক কে বা মাহমুদউল্লাহ কে এই পজিশনে খেলালে দল উপকৃত হবে বলে মতামত পোষণ করছি।
    Total Reply(0) Reply
  • রিমি হোসেন ১৬ জুন, ২০১৭, ১:৩৯ পিএম says : 0
    আমাদের দূর্ভাগ্য সৌম্য ০ করেও জাতিয় দলে আর নাসিরের মতো ব্যাটিং বোলিং ফিল্ডিং তিন দিকেই দূর্দান্ত অলরাউন্ডার দলের বাইরে । আমরা জানিনা নাসিরের সাথে পাপনের কি সমস্যা কিন্তু আমাদের প্রশ্ন তাদের আভ্যন্তরিন কোনো সমস্যার কারনে (যদি থেকে থাকে) দেশ ক্ষতিগ্রস্ত হবে কেন ? নাসিরের বিষয় এলে কোচ সাংবাদিকদের প্রশ্ন করেন নাসিরকে কার যায়গায় নামাবো ? আজব প্রশ্ন , সৌম্যরা ৩, ৩, ২৮, ২, ১৯ করেও দলে যায়গা পেতে ভাবতে হয়না আর ঘরোয়া ক্রিকেটে দূর্দান্ত পারফর্ম করেও নাসিররা মুল একাদশে থাকাতো দুরের কথা স্কোয়াডেও যায়গা পায়না ? আরে
    Total Reply(1) Reply
    • mohammed abul hussain ২০ জুন, ২০১৭, ১১:৫৫ এএম says : 1
      for God sake, please release Somouya and Sabbir from the team. Technically they are not fit to bat at number 2
  • Enamul Haque ১৮ জুন, ২০১৭, ১২:৩৭ পিএম says : 0
    The clash is between Nasir and Papon ................. It is your personal matter. If you want to spread into cricket. You should resign from your post.
    Total Reply(0) Reply
  • jahurul ১৯ জুন, ২০১৭, ১২:০৮ পিএম says : 0
    ata rajnitir bepar.akon na na ko ta.
    Total Reply(0) Reply
  • ওবাইদুল ইসলাম ২২ জুন, ২০১৭, ৯:০৪ পিএম says : 0
    এই মর্মে আইন থাকা উচিৎ যে ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ডের সভাপতি ও নির্বাচক দল মাত্র তিন বছরের জন্য হবে, আর কোনো ব্যাক্তি শুধু এক বারই মাত্র পদে থাকতে পারবে।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।