Inqilab Logo

ঢাকা বৃহস্পতিবার, ০১ অক্টোবর ২০২০, ১৬ আশ্বিন ১৪২৭, ১৩ সফর ১৪৪২ হিজরী

সাঁতার কোচ পার্কের সঙ্গে বিওএ’র চুক্তি

প্রকাশের সময় : ৮ মার্চ, ২০১৬, ১২:০০ এএম

স্পোর্টস রিপোর্টার : দক্ষিণ কোরিয়ার সাঁতার কোচ পার্ক তে গুনের সঙ্গে এক বছরের চুক্তি করেছে বাংলাদেশ অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশন (বিওএ)। নেপাল সাউথ এশিয়ান (এসএ) গেমস পর্যন্ত জাতীয় সাঁতার দলের দায়িত্বে পার্ককে রাখার সিদ্ধান্ত হলেও আপাতত স্বল্প মেয়াদেই তার সঙ্গে চুক্তি করেছে বিওএ। গতকাল পার্ক ও বিওএ’র মধ্যে চুক্তি স্বাক্ষর হয়। চুক্তি অনুযায়ী কোরিয়ান এই সাঁতার কোচ বিওএ’র কাছ থেকে মাসিক সাড়ে চার হাজার ডলার বেতন পাবেন। সদ্য সমাপ্ত গৌহাটি-শিলং এসএ গেমসে বাংলাদেশের কৃতী মহিলা সাঁতারু মাহফুজা খাতুন শিলাসহ অন্যরা অভূতপূর্ব সাফল্য বয়ে আনায় কোচ পার্ক তে গুনকে নিয়ে নতুন করে ভাবনা শুরু করে বিওএ। যার ধারাবাহিকতায় সাঁতার ফেডারেশন নয়, দেশের অলিম্পিক সংস্থাটিই কোরিয়ান এই কোচের মাসিক বেতনের পুরোটাই বহন করতে এগিয়ে এসেছে।
গৌহাটি-শিলং এসএ গেমসে মহিলা সাঁতারু মাহফুজা খাতুন শিলার রেকর্ডসহ দু’টি স্বর্ণ ও অন্যদের ১৫টি ব্রোঞ্জপদক জয়ই বাংলাদেশের মুখ রক্ষা করেছে। যদিও শুটিং ও ভারোত্তোলন থেকে আরো দু’টি স্বর্ণপদক এসেছে। কিন্তু ১২তম এসএ গেমসে বাংলাদেশের একমাত্র ডিসিপ্লিন সাঁতারই, যেখান থেকে দু’টি স্বর্ণসহ ১৭টি পদক এসেছে। তাই গৌহাটির ডা: জাকির হোসেন অ্যাকুয়াটিক কমপ্লেক্সে পার্ককে নিয়োগ দিতে রীতিমতো যুদ্ধ শুরু হয় ভারত ও শ্রীলংকার মধ্যে। ২০০৮ সালে বেইজিং অলিম্পিকে ৪০০ মিটার ফ্রিস্টাইলে শিষ্য কোরিয়ার তায়ে হিন পার্ককে স্বর্ণ জিতিয়েছিলেন গুরু পার্ক তে গুন। সেটা জেনেই ভারত-শ্রীলংকা পার্ককে নিয়ে টানাটানি শুরু করে। তবে বাংলাদেশের প্রতি ভালোবাসার টানে এখানেই থাকতে চান তিনি। যার সুব্যবস্থাও করছে বিওএ। এ প্রসঙ্গে সাঁতার ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক রফিজ উদ্দিন রফিজ বলেন, ‘বিওএ’র সহযোগিতায় অবশেষে আমরা মাসিক সাড়ে চার হাজার মার্কিন ডলারেই রেখে দিচ্ছি পার্ককে। আপাতত সে নিজ দেশে যাবে মাল্টিপল ভিসার জন্য। সেখান থেকে ফিরে ১ এপ্রিল শুরু করবেন কোচিং ক্যাম্প।’ তিনি আরো বলেন, ‘ভারত আট এবং শ্রীলংকা ছয় হাজার মার্কিন ডলারে নিতে চেয়েছিল পার্ককে। কিন্তু আমাদের অনুরোধে এবং বাংলাদেশের ভালোবাসার টানেই তিনি থেকে যাচ্ছেন। আপাতত এক বছরের চুক্তি হয়েছে তার সঙ্গে। পরবর্তীতে এটা বাড়ানো হবে নেপালে অনুষ্ঠিতব্য এসএ গেমস পর্যন্ত। আর পার্ক থাকলে আশা করি নেপাল এসএ গেমসে আমরা ৫ থেকে ৭টি স্বর্ণপদক উপহার দিতে পারব দেশকে।’
বাংলাদেশে থাকতে পেরে খুশি পার্ক তে গুন নিজেও। তিনি বলেন, ‘অনেক দিন ধরেই বাংলাদেশে রয়েছি। এখানকার প্রেমে পড়ে গেছি। তাই পারিশ্রমিক কম হলেও আমি শিলা-সাগরদের গুরু হয়েই থাকতে চাই।’ গৌহাটি-শিলং এসএ গেমস সাঁতারে বাংলাদেশের সাফল্যের এই কারিগরকে খুশি হয়ে গতকালই দেশে যাওয়ার জন্য এক লাখ টাকা দিয়েছেন বিওএ’র মহাসচিব সৈয়দ শাহেদ রেজা।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: সাঁতার কোচ পার্কের সঙ্গে বিওএ’র চুক্তি
আরও পড়ুন