Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ২৪ জুন ২০১৭, ১০ আষাঢ়, ১৪২৪, ২৮ রমজান ১৪৩৮ হিজরী

পাকিস্তানকে কোহলির অভিনন্দন

| প্রকাশের সময় : ২০ জুন, ২০১৭, ১২:০০ এএম

 স্পোর্টস ডেস্ক : চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি ফাইনালে পাকিস্তানের কাছে বিপর্যস্ত হওয়ার পর বিরাট কোহালি স্বীকার করে নিচ্ছেন, এদিন তাঁরা সব বিভাগেই পরাস্ত হয়েছেন প্রতিপক্ষের কাছে। ম্যাচের পর এক টিভি সাক্ষাতকারে ভারত অধিনায়ক বলেন, ‘আমরা আজ সব বিভাগেই হেরে গেছি পাকিস্তানের কাছে। এই জন্যই কোনও টিমকে হালকা ভাবে নেওয়ার প্রশ্ন থাকে না।’

প্রথম ম্যাচে ভারতের কাছে হারের পরে পাকিস্তানের এই পুনরুত্থানের পিছনে রয়েছে তাঁদের দুই তরুণ ক্রিকেটার। ওপেনার ফখর জমান এবং পেসার হাসান আলী তাদের মধ্যে অন্যতম। ফাইনালে ম্যাচের সেরা হলেন ফখর আর টুর্নামেন্টে সর্বোচ্চ উইকেটশিকারি হওয়ার পাশাপাশি হাসান হলেন চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির সেরা ক্রিকেটারও। কোহলি তাই স্বীকার করলেন কোহালি, ‘পাকিস্তানকে অভিনন্দন জানাচ্ছি। ওদের জন্য চমকপ্রদ একটা টুর্নামেন্ট গেল। যেভাবে ওরা ঘুরে দাঁড়াল, তাতে বোঝা যাচ্ছে ওদের ক্রিকেটে কত প্রতিভা আছে।’ তিনি আরও যোগ করে বলেন,’আসলে তারা আবারও প্রমাণ করল যে তার যে কোন দলকে অবাক করে দিতে পারে। নিজেদের দিনে তারা যে কাউকে হারাতে পারে। তারা তাদের যোগ্যতা দিয়ে আমাদের হারিয়েছে , আমাদের কোন সুযোগই দেয় নি।’
নিজেদের পারফরম্যান্স নিয়ে বিরাট বলেন, ‘আমরা আর কয়েকটা উইকেট তোলার মত বল করতে পারলে ভাল হতো। আমরা চেষ্টা করেছিলাম, কিন্তু হল না। বল হাতেও ওরা দারুণ আগ্রাসী ছিল।’ তিনি বলেন,’পাকিস্তান দল ও তাদের সব ফ্যানদের কে জানাই শুভেচ্ছা। আসলে তারা তাদের মেধা দিয়ে ম্যাচ নিজেদের করে নিয়েছে।’ এরপরও নিজেদের পারফরম্যান্সে খুশি কোহলি। তবে ফাইনালে ভাল করতে না পারায় হতাশ তিনি গোপন করেননি, তার মতে,’ফাইনাল হারা আসলেই হতাশাজনক তবে আমাকে হাসতে হবে কারণ আমরা টুর্নামেন্ট জুড়েই ভালো খেলেছি খেলেছি। আমি এর জন্য গর্বিত।’
স্বাভাবিক ভাবেই প্রশ্ন ওঠে, বুমরার নো বল নিয়ে আপনি কী বলবেন? যে বলে ফখর ৩ রানে আউট হয়ে জীবন পান। বিরাট বলেন, ‘মাঝে মাঝে ছোট ছোট ভুল বিরাট হয়ে যায়। তবে এটা মনে রাখবেন, আমরা একটা ক্রিকেট ম্যাচ হেরেছি। আমাদের এগিয়ে যেতে হবে।’
পাকিস্তানের অধিনায়ক সরফরাজ আমেদ বলেন, ‘গ্রæপে ভারতের কাছে হেরে যাওয়ার পরে আমি ছেলেদের বলেছিলাম, টুর্নামেন্ট কিন্তু শেষ হয়ে যায়নি। আমাদের প্রতিটা ম্যাচ এ বার নকআউট ধরে খেলতে হবে। তার পর থেকে আমরা সব ম্যাচে ভাল খেলেছি। ফাইনালেও দারুণ খেলে চ্যাম্পিয়ন হলাম।’
ফখরকে নিয়ে তাঁর অধিনায়ক বলছেন, ‘ফখর দুর্দান্ত প্লেয়ার। এটা ওর প্রথম আইসিসি টুর্নামেন্ট ছিল। আর সেখানেই ও এত ভাল খেলে দিল। পাকিস্তান ক্রিকেটের সম্পদ হয়ে উঠবে ও।’ বোলারদের কথাও বলেছেন তিনি, ‘আমির, জুনায়েদ, হাসান, হাফিজ সবাই খুব ভাল বল করে গেল। আমাদের তরুণ টিম। এই জয়ের পিছনে সবার কৃতিত্ব আছে।’

 

 


দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।