Inqilab Logo

ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৬ নভেম্বর ২০২০, ১১ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১০ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

ভালো দাম পাওয়ায় পাট চাষে আগ্রহ বাড়ছে কৃষকের

| প্রকাশের সময় : ২৩ জুন, ২০১৭, ১২:০০ এএম

মোঃ লিহাজ উদ্দীন মানিক, বোদা (পঞ্চগড়) থেকে : পঞ্চগড়ের বোদায় সোনালী অর্থকরী ফসল পাট চাষে আগ্রহ দিনদিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। উৎপাদন খরচ কম বিক্রয় মূল্য ভালো পাওয়ায় ধান ও অন্যান্য কৃষি পণ্যের পাশাপাশি স্বল্প পরিমাণ হলেও স্থানীয় কৃষকরা পাট চাষ করছেন। আবহাওয়া অনুক‚লে থাকায় চলতি মৌসুমে মাঠে ঘাটে এখন পাট গাছের সবুজের সমারোহ। এ অঞ্চলের কৃষকরা আশা করছেন পাটের ভালো বাজার দর পেলে আগামীতে পাট চাষের ব্যাপকতা আরো বৃদ্ধি পাবে। উপজেলা কৃষি স¤প্রসারণ অফিস সূত্রে জানা গেছে, চলতি মৌসুমে পাট চাষের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে ১৫০০ হেক্টর। উপজেলার ১০টি ইউনিয়নে মোস্তা পাট, দেশি পাট ও তোষা জাতের পাট মিলে সর্বমোট ১৮০০ হেক্টর জমিতে পাট চাষ হয়েছে। বিগত বছরে পাটের ভালো ফলন ও দাম আশানুরূপ পাওয়ায় এলাকার চাষিরা অন্যান্য ফসলের পাশাপাশি পাট চাষের দিকে আগ্রহী হয়ে উঠছে। গত কয়েক বছরগুলোতে চাষিদের উৎপাদিত অন্যান্য কৃষিজাত ফসলে লোকসান হওয়ার কারণে এলাকার চাষিরা পাটের আবাদ মনোযোগ দিয়ে করছেন। ফলন ও দাম ভালো পেলে চাষিদের আগ্রহ আরও বৃদ্ধি পাবে এমনটায় আশা করছেন স্থানীয় কৃষি বিভাগ। ভরা মৌসুমে প্রাকৃতিক কোন দুর্যোগ দেখা না দিলে অন্যান্য ফসলের যেমন ক্ষতি হয় পাটের তেমন ক্ষতি হয় না। প্রতি বিঘা জমিতে প্রায় ১২ মন পর্যন্ত পাট উৎপাদন হয়। উপজেলা বেংহারী বনগ্রাম ইউনিয়নের ছেতনাইপাড়া গ্রামের পাট চাষি ওসমান গণী জানান, সে আগে বোরো ধানের চাষ করত। তিনি এখন কিন্তু ধানের জমি কিছুটা কমিয়ে পাট চাষের দিকে ধীরে ধীরে মনোযোগ দিচ্ছি। এ বছর সে দেড় বিঘা জমিতে পাট চাষ করেছে। এখন পর্যন্ত রোগবালাই মুক্ত থাকায় আশা করছে ভালো ফলন হবার। এ ব্যাপারে উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষিবিদ আল মামুন অর রশিদ জানান, বিগত বছর গুলোতে পাটের বাজার মন্দ থাকাই এই ফসলের প্রতি চাষিদের আগ্রহ কমে গিয়েছিল। বর্তমান সরকার খাদ্যদ্রব্য সহ বিভিন্ন পণ্যে পরিবেশ বান্ধব পাটের মোড়ক বহুবিদ ব্যবহার করায় বর্তমানে পাটের উৎপাদন ও বাজার দর ঘুরে দাঁড়াতে শুরু করায় প্রান্তিক পর্যায়ে চাষিদের পাট চাষের আগ্রহ বৃদ্ধির লক্ষ্যে চলতি খরিপ মৌসুমে চাষিদের রোগ প্রতিরোধ সর্ম্পকে কৃষকদের গঠন মূলক পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে। এই ফসলে এমনিতেই তেমন কোন রোগ-বালাই আক্রান্ত হয় না। বর্তমানে দাম ভালো পাওয়ায় কৃষকরা দিনদিন পাট চাষের দিকে আগ্রহী হয়ে উঠছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ