Inqilab Logo

ঢাকা সোমবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৬ আশ্বিন ১৪২৭, ০৩ সফর ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

ঈদের নতুন পোশাক অসহায় হতদরিদ্রদের চোখেমুখে খুশির ঝিলিক

| প্রকাশের সময় : ২৫ জুন, ২০১৭, ১২:০০ এএম

সাদিক মামুন, কুমিল্লা থেকে : ঈদের দিনে কেবল নতুন পোশাকেই নয়, ঘরে ভালো সুস্বাদু খাবারও রান্না হবে এমন প্রত্যাশা কার না থাকে? কিন্তু ইট পাথরের এ নগরীর পথে পথে বস্তির হতদরিদ্র অসহায় পরিবারের ছেলে-মেয়ে ও ছিন্নমূল শিশুদের রোজ দেখা মেলে তাদের কাছে ঈদের নতুন পোশাক যেখানে স্বপ্ন সেখানে ঘরে ভালো খাবার তো আরেক দু:স্বপ্ন। সমাজের মানবিক চিন্তাসম্পন্ন মানুষগুলো এগিয়ে আসলে স্বপ্ন-দু:স্বপ্নের ধোাঁয়াশা থেকে হতদরিদ্র সুবিধাবঞ্চিতদের ঈদের অনাবিল আনন্দের দ্বারপ্রান্তে নিয়ে যেতে পারে। আর ঈদের আগে নতুন পোশাক উপহার দিয়ে সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের চোখেমুখে খুশির ঝিলিক ফোটালো কুমিল্লার অন্বেষণ নামের একটি সংগঠন।

বছর ঘুরে রোজা আসে, ঈদ আসে কিন্তু কুমিল্লার হতদরিদ্র হাজারো পরিবারে আনন্দের বার্তা নিয়ে আসে না ঈদ! বস্তির ছোট্র ঘরের ফাঁক দিয়ে ঈদের সোনালী সকালের সূর্যের আলো অসহায় মানুষগুলোর ওপর পড়লেও উৎসবহীন অন্ধকারেই কাটে আনন্দমুখর দিনটি। তবে সমাজের স্বচ্ছল, মানবিক চিন্তা সম্পন্ন মানুষগুলো যদি তাদের নিজ নিজ অবস্থান থেকে অসহায় ছিন্নমূল শিশু-কিশোরদের পাশে এসে দাঁড়ায় তাহলে, ওদের ঈদ হয়ে উঠতে পারে আনন্দময়। সমাজের সচ্ছল মানুষের কাছ থেকে অসচ্ছল ওইসব শিশু-কিশোররা পরিপূর্ণ ঈদ উপহার পেলেই প্রমাণিত হবে- ঈদ উৎসব কেবল আনুষ্ঠানিকতা নয়, ঈদ ধনী আর দরিদ্রের ব্যবধান দূর করার ইঙ্গিত দেয়। কুমিল্লা নগরীতে হাজারো হতদরিদ্র নারী-পুরুষ, শিশু-কিশোর একটু ভালোভাবে ঈদ উদযাপন করার আশায় সাহায্যের জন্য নগরীর পথে-ঘাটে লোকজনের, দোকান-পাটে ব্যবসায়িদের আর বাসা-বাড়িতে লোকজনের হাত-পা জড়িয়ে ধরছেন। কুমিল্লা নগরীর সংরাইশ, টিক্কাচর, শাসনগাছা, কাটাবিল, ধর্মপুর, শাসনগাছা এলাকার বস্তিবাসীদের মধ্যে অসংখ্য হতদরিদ্র নারী, কর্মঅক্ষম পুরুষ তাদের শিশু সন্তানদের নিয়ে এবারের রোজায় আর্থিক সাহায্যের আশায় পথে নেমেছেন। আবার হতদরিদ্র সংসারের শিশুরাও দলবেঁধে সাহায্যের জন্য লোকজনের কাছে হাত বাড়াচ্ছে। নিষ্ঠুর বাস্তবতায় বেড়ে ওঠা সন্তানদের মুখে দু’বেলা দু’মুঠো ভাত তুলে দিতে পারলেও বছরের দু’টি ঈদের কোনটিতেই ওদের মুখে ভালো খাবার আর গায়ে নতুন জামা পরাতে পারেন না তাদের মা বাবা। অথচ ওদের শিশু মনে নতুন পোশাক, ঘরে উন্নত খাবার রান্না হবে এমন ধারণায় ঈদের আনন্দ বড় হয়ে দেখা দিয়েছে। আর চারদিন পর ঈদ। এরমধ্যে কী ওদের জুটবে ঈদের নতুন পোশাক আর উন্নত খাবারের সামান্য ব্যবস্থা?
সুবিধাবঞ্চিত শিশু-কিশোরদের ঈদ আনন্দের জায়গায় নিয়ে আসার চিন্তা চেতনার প্রতিফলন এবারো ঘটালো অন্বেষণ নামের একটি সংগঠন। ২০১৩ সালে বাঙালি জাতির গৌরবের দিন ১৬ ডিসেম্বর ‘তারণ্যের জাগরনে-মানবতার সন্ধানে’ শ্লোগানকে সামনে রেখে কুমিল্লা নগরীতে আত্মপ্রকাশ ঘটে সামাজিক সেচ্ছাসেবি এ সংগঠনের। সমাজের অসহায় সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের মাঝে সংগঠনটি যেমন শিক্ষার আলো ছড়িয়ে দিচ্ছে তেমনি অন্যান্যবারের মতো এবারো ওদের মাঝে ঈদের আনন্দ বইয়ে দিতে হাতে তোলে দেয়া হয়েছে নতুন পোশাক আর ঈদ সামগ্রী। বুধবার বিকেলে কুমিল্লা টাউনহলের মুক্তিযোদ্ধা কর্ণারে কুমিল্লা শহরের আনাচে কানাচে কিংবা বস্তির ঝুপড়িতে বেড়ে উঠা প্রায় ৮০জন ছিন্নমূল অসহায় শিশু-কিশোরদের মাঝে নতুন পোশাক ও ঈদ সামগ্রী বিতরন করেছে অন্বেষণ পরিবার।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন