Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৯ মার্চ ২০১৯, ০৫ চৈত্র ১৪২৫, ১১ রজব ১৪৪০ হিজরী।

হঠাৎ শুরু হওয়া তীব্র ঘাড় বা কোমর ব্যথা

প্রকাশের সময় : ৯ মার্চ, ২০১৬, ১২:০০ এএম

কেস স্টাডি-১ : আমিনুল সাহেব। বয়স চল্লিশ ছুঁই ছুঁই। অফিসে যাবেন বলে সকাল সকাল ঘুম থেকে উঠেছেন। গোসল করতে গিয়ে হঠাৎ তীব্র ঘাড় ব্যথায় আক্রান্ত হলেন। বেশ কয়েকদিন যাবৎই সামান্য ঘাড় ব্যথা অনুভব করছিলেন। সকালে উঠে ঘাড়ে ঠা-া পানি ঢালতেই ঘাড়ের পেশিতে টান ধরে ব্যথা সৃষ্টি হয়েছে। এসব ক্ষেত্রে বেশিরভাগ সময়েই আমরা ব্যথানাশক ওষুধের ওপর নির্ভর  করে থাকি। কিন্তু শুধু ব্যথানাশক দিয়ে চিকিৎসা করলে তীব্র স্বল্পমেয়াদি ব্যথা দীর্ঘমেয়াদি ব্যথায় রূপান্তরিত হতে পারে। কিন্তু ঠিক কোন পেশিতে টান লেগেছে তা নির্ণয় করে হাসপাতালে ভর্তি থেকে ম্যানিপুলেটিভ ফিজিওথেরাপি প্রয়োগ করলে স্বল্প সময়েই ব্যথা নিয়ন্ত্রণ করা যায়। ম্যানিপুলেটিভ থেরাপি ব্যর্থ হলে তিন থেকে চার সপ্তাহ ফিজিওথেরাপি চিকিৎসা নিতে হবে।
কেস স্টাডি-২ : পলাশ পাল, তাড়াহুড়া করে সামনে ঝুকে পায়ের মোজা পরতে গিয়ে কোমরে খিচুনি দিয়ে তীব্র ব্যথা শুরু হয়েছে। তিনি কোমর সোজাই করতে পারছেন না। ইতিহাস নিয়ে জানা গেল তিনি দিনে কমপক্ষে ১২/১৩ ঘণ্টা চেয়ারে বসে কাজ করেন। দীর্ঘ সময় চেয়ারে বসে কাজ করার ফলে এবং শারীরিক পরিশ্রম না করায় উনার কোমরের পেশিগুলো দুর্বল হয়ে পড়েছে। তাই ৩০ বছর বয়সেই তিনি কোমর ব্যথায় আক্রান্ত হয়েছেন। এম আর আই করে দেখা গেল পলাশ সাহেবের খঁসনবৎ ৪-৫ াবৎঃবনৎধব এর মধ্যবর্তী  ডিস্ক পেছনের দিকে সরে গিয়ে নার্ভের গোড়ায় চাপ প্রয়োগ করেছে।  এক্ষেত্রে রোগীর জন্য ৩০ দিনের পূর্ণ বিশ্রামসহ ম্যানিপুলেটিভ  ও ইলেকট্রোথেরাপির সমন্বিত চিকিৎসা প্রয়োজন।
ষ ডা. মোহাম্মদ আলী
পরিচালক ও চিফ কনসালট্যান্ট
হাসনা হেনা পেইন এন্ড ফিজিওথেরাপি রিসার্চ সেন্টার
ইউনিট-১: বাড়ি-১, শায়েস্তাখান রোড,
সেক্টর-৪, উত্তরা, ঢাকা। ইউনিট-২: বাড়ি-২১, রোড-১০/এ,  সেক্টর-১১, উত্তরা, ঢাকা।
মোবাইল: ০১৮৭২৫৫৫৪৪৪, ০১৭৩২৭৬২৩৩৩



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন