Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৫ অক্টোবর ২০১৯, ৩০ আশ্বিন ১৪২৬, ১৫ সফর ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

কামরাঙ্গীর চরে দুটি মসজিদ ভাঙ্গার সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে বিক্ষোভ ও স্মারকলিপি

| প্রকাশের সময় : ৮ জুলাই, ২০১৭, ১২:০০ এএম

স্টাফ রিপোর্টার: কামরাঙ্গাীর চর আশ্রাফাবাদ এলাকার মসজিদ-ই-আল-আকসা ও নূর জাহান জামে মসজিদ দুটি বি আই ডবিøউ টি এ কর্তৃক ভেঙ্গে ফেলার নোটিশ দেওয়া ও মাইকিং করার প্রতিবাদে এলাকাবাসী ও মুসল্লিগণ গতকাল বাদ জুমা মসজিদ এলাকায় প্রতিবাদসভা ও বিক্ষোভ সমাবেশ করেছেন । বিক্ষোভ শেষে দুটি মসজিদ কমিটির পক্ষ থেকে কামরাঙ্গীরচর থানায় স্মারক লিপি প্রদান করা হয় । উল্লেখ্য গতবছর ১৫ ডিসেম্বর বি আই ডবিøউ টি এ উল্লিখিত মসজিদ দুটি ভেঙ্গে ফেলার জন্য নোটিশ দেয় (নোটিশ নং- ১৮.৭১২.০৪৫.০০.০০.৪৫৬/২০১৪/৪২২১)। নোটিশ দেওয়ার পর গত সপ্তাহ থেকে বি আই ডবিøউ টি এ মসজিদ দুটি ভেঙ্গে দেওয়ার জন্য মাইকিং শুরু করে।
বি আই ডবিøউ টি এ এর পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে মসজিদগুলি ফোরশোর (জোয়ার) এর মধ্যে পড়েছে ।উল্লেখ্য ২০০৯ সালে হাইকোর্ট বি আই ডবিøউ টি এ কে সিএস ম্যাপ অনুযায়ী নদীর সীমানা পিলার স্থাপনের নির্দেশ দেয়। সম্প্রতি বি আ ই ডবিøউ টি এ ওই নির্দেশ না মেনে নদীর ফোরশোর (জোয়ার) অনুযায়ী সীমানা পিলার স্থাপনের সিদ্ধান্ত নেয়। সিদ্ধান্ত অনুযায়ী বি আই ডবিøউ টি এ গত সপ্তাহ থেকে আগামী ১০ তারিখ মসজিদ ভেঙে দেওয়ার মাইকিং শুরু করে। এর প্রতিবাদেই মসজিদের মুসল্লীগণ ও এলাকাবাসী গতকাল বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ সভা করে এবং স্মারক লিপি প্রদান করে।
উল্লেখ্য, সম্প্রতি চট্টগ্রামে পটিয়ার করলগ্রামে মোহনন্দ সেবাশ্রম মন্দির ও ৪০টি পরিবারের বসতভিটা বাদ দিয়ে বাইপাস সড়ক নির্মাণ করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন সড়ক পরিবহন ও সেতাু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।তিনি বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী আমাকে বাইপাস সড়কের নির্মাণের নির্দেশ দিয়েছেন।একটি মন্দির ও ৪০টি পরিবারের ভিটেমাটি নিয়ে যে সমস্যা সৃষ্টি হয়েছে তার সমাধানে তারা হিন্দু স¤প্রদায়ের নেতাদের সঙ্গে বসে এ সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।। সূত্র-যঃঃঢ়://ধৎপযরাব.রং/ধঔহনম
হিন্দুদের মন্দিরের ক্ষেত্রে যদি বাইপাস সড়ক হতে পারে তবে মসজিদের ক্ষেত্রেও কেন মসজিদ রক্ষা করে বাইপাস সীমানা হবে না
উল্লেখিত দুটি মসজিদ থেকে নদীর সীমানা পিলার অনেক ভিতরে থাকলেও ফোরশোরের (জোয়ারের সীমানা) দোহাই দিয়ে ঐ সীমানা পরিবর্তন করার লক্ষ্যে মসজিদটি ভেঙ্গে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয়। যা হাইকোর্টেও রায়ের সম্পূর্ণ বিরোধী।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন