Inqilab Logo

বৃহস্পতিবার, ১১ আগস্ট ২০২২, ২৭ শ্রাবণ ১৪২৯, ১২ মুহাররম ১৪৪৪
শিরোনাম

পরশুরামের ৩ ইউপির ভোট স্থগিত, তদন্ত কমিটি গঠন

প্রকাশের সময় : ১০ মার্চ, ২০১৬, ১২:০০ এএম

ছাগলনাইয়া (ফেনী) উপজেলা সংবাদদাতা
এবার ফেনীর পরশুরাম উপজেলার সব কয়টি ইউনিয়নে নির্বাচন স্থগিত করেছে ইসি। গত মঙ্গলবার নির্বাচন কমিশনার রকিব উদ্দিনের সভাপতিত্বে একটি বিশেষ সভায় এ তিন ইউপির নির্বাচন স্থগিতের সিদ্ধান্ত হয়। একই সঙ্গে ৩ ইউপিতে প্রার্থীরা মনোনয়নপত্র দাখিল করতে কেন যায়নি সে বিষয়ে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। ইসির সচিবালয়ের সিনিয়র সহকারী সচিব শাহেদ-উন-নবী চৌধুরীর নেতৃত্বে দুই সদস্য বিশিষ্ট এ কমিটি গঠন করা হয়। সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি সংসদ নির্বাচনেও পরশুরামে ভোট অনুষ্ঠিত হয়নি। গত বছরের ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত পরশুরামের পৌরসভা নির্বাচনেও মেয়র কাউন্ডিলর ও সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে বিনা ভোটে আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থীরা নির্বাচিত হন। একই ধারাবাহিকতায় ইউপি নির্বাচনে বিনা ভোটে নির্বাচিত করার কৌশল গ্রহণ করে স্থানীয় প্রভাবশালী ব্যক্তিরা। ৩১ মার্চ দ্বিতীয় ধাপে অনুষ্ঠেয় পরশুরাম উপজেলার তিনটি ইউপিতে ভোটের আগেই আ.লীগ মনোনীত তিনজন চেয়ারম্যানসহ ২৬ জন প্রার্থী নির্বাচিত হওয়ার পথে রয়েছে। পরশুরামের চিথলিয়া, বক্সমাহমুদ ও মির্জানগর ইউপিতে গত ২ মার্চ মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষদিনে বাধার কারণে অনেক প্রার্থী মনোনয়ন জমা দিতে পারেননি বলে কমিশনে অভিযোগ করেন। এরই পরিপ্রেক্ষিতে গত ৩ মার্চ পর্যন্ত মনোনয়ন দাখিলের সময়সীমা বৃদ্ধি করা হয়। এরপরেও আ.লীগ ছাড়া অন্যকোন পক্ষের প্রার্থী মনোনয়ন দাখিল করেনি। তিনটি ইউপিতে আ.লীগের ৩ জন চেয়ারম্যান, ২৭টি সাধারণ সদস্যর মধ্যে ১৫ জন সদস্য, ৯টি সংরক্ষিত সদস্যের ৮ জন নারী সদস্য বিনাভোটে নির্বাচিত হতে চলেছেন। মোট ৩৯টি পদের মধ্যে ২৬টিতে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হচ্ছেন প্রার্থীরা। এ বিষয়ে নির্বাচন কমিশনার মোহাম্মদ আবু হাফিজ সাংবাদিকদের জানান, পরশুরামে ইউপি নির্বাচন কমিশনের কাছে অস্বাভাবিক মনে হয়েছে। এ কারণে ভোট স্থগিত করে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিশন সব জায়গায় অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন করতে চায়। সুষ্ঠু নির্বাচনের স্বার্থে কমিশন আগামীতে আরো কঠোর সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হবে। এর আগে ফেনীর ফুলগাজী উপজেলার চেয়ারম্যান আবদুল আলিম ইউপি নির্বাচনে প্রভাব বিস্তারের কারণে ওই উপজেলার ৫টি ইউপির ভোটের তফসিল বাতিল করে কমিশন। গত ২ মার্চ ফুলগাজী উপজেলা ফুলগাজী আমজাদহাট, দরবারপুর, জিএমহাট, মুন্সিরহাট, আনন্দপুর ইউপি ভোটের তফসিল বাতিল করে উপজেলা চেয়ারম্যানকে বরখাস্তের সুপারিশ করে ইসি। একই সঙ্গে উপজেলা চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে আইনুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য পুলিশ সুপারকে চিঠি দেয়া হয়। এরই পরিপ্রেক্ষিতে ফুলগাজী চেয়ারম্যানসহ ১৪ জনের বিরুদ্ধে ফুলগাজী থানা পুলিশ মামলা করে। গত ৬ মার্চ স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের এক আদেশে ফুলগাজী উপজেলা চেয়ারম্যানকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: পরশুরামের ৩ ইউপির ভোট স্থগিত
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ