Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৩ আশ্বিন ১৪২৬, ১৮ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী।

রাক্কায় আইএসের বিরুদ্ধে যুদ্ধে ২ মার্কিনি নিহত

| প্রকাশের সময় : ১৪ জুলাই, ২০১৭, ১২:০০ এএম

ইনকিলাব ডেস্ক : সিরিয়ার রাক্কায় ইসলামিক স্টেটের (আইএস) বিরুদ্ধে লড়াইয়ে ২ জন আমেরিকান বেসামরিক যোদ্ধা নিহত হয়েছেন। তারা কুর্দিদের পক্ষ হয়ে লড়াই করছিলেন। রাক্কা আইএসের কার্যত রাজধানী। দীর্ঘ লড়াইয়ের পর রাক্কা এখন পতনের শেষ প্রান্তে। খবর সিবিএস।
আইএসের কাছ থেকে রাক্কা পুনরুদ্ধার অভিযানে অন্যতম প্রধান শক্তি হিসেবে কাজ করছে ওয়াইপিজি নামে পরিচিত কুর্দি মিলিশিয়া গ্রুপ। গত তিন বছর ধরে এ গ্রæপটি যুক্তরাষ্ট্রের সমর্থনে আইএসের বিরুদ্ধে লড়াই করছে। বিশে^র বিভিন্ন দেশ থেকে আইএস বিরোধীরা এসে এ গ্রæপের সাথে যোগ দিয়েছে ও সামরিক প্রশিক্ষণ গ্রহণ করে জিহাদির বিরুদ্ধে লড়ছে।
মঙ্গলবার অনলাইনে দেয়া এক বিবৃতিতে ওয়াইপিজি দুই মার্কিন নাগরিকের কথা জানিয়ে বলে, রাক্কায় আইএসের বিরুদ্ধে যুদ্ধে তারা নিহত হয়েছেন। তাদের একজন হলেন রবার্ট গ্রড (২৮)। কুর্দি বাহিনী জানায়, গ্রড ৬ জুলাই রাক্কার শহরতলীতে আইএসের এক অ্যামবুশে নিহত হন। ‘অকুপাই ওয়াল স্ট্রিট’-এর সাবেক কর্মী ক্যালিফোর্নিয়ার অধিবাসী রবার্ট মাত্র দু’সপ্তাহ আগে ওয়াইপিজি-র একটি ইউটিউবে উপস্থিত হয়েছিলেন।
তিনি বলেছিলেন, পরিবার ও বন্ধুদের ছেড়ে আইএসের বিরুদ্ধে লড়াই করার জন্য তিনি নিউইয়র্ক থেকে এখানে এসেছেন। ২০১৬ সালে ওয়াইপিজিতে যোগ দেয়া তার এক বন্ধুর দ্বারা উদ্বুদ্ধ হয়ে তিনি কুর্দি বিপ্লবে যোগ দেন। গ্রডের কুর্দি নাম দেয়া হয় দেমহাত গোল্ডম্যান এবং ঐ নামেই তিনি পরিচিত ছিলেন। ওয়াইপিজি জানায়, নিহত অন্য মার্কিনীর নাম নিকোলাস ওয়ার্ডেন (২৯)। তার কুর্দি নাম ছিল রোদি দেইসি। ওয়াইপিজির এক বিবৃতিতে বলা হয়, তিনি ৫ জুলাই রাক্কার কাছে যুদ্ধে নিহত হন। ওয়ার্ডেনের বাবা নিউইয়র্কের ডিপিউতে নিজ বাড়ি থেকে থেকে মঙ্গলবার দি বাফেলো নিউজকে বলেন,তার ছেলে একজন যুদ্ধ ফেরত মার্কিন সেনা সদস্য। তিনি বলেন, সে ছিল দৃঢ়চেতা , জোরালো মনোবলের অধিকারী। সে আইএসের প্রচন্ড বিরোধী ছিল। গ্রডের মতই ওয়াইপিজির এক ইউটিউবে ওয়ার্ডেন জানান, অরল্যান্ডো, সান বার্নারডিনো, নিস ও প্যারিসে সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় তিনি আইএসের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করতে ওয়াইপিজি-র সাথে যোগ দেন।
আইএসের সাথে যুদ্ধে এর আগে আরো দু’জন আমেরিকানের নিহত হওয়ার কথা জানা যায়। এক বছর আগে ওয়াইপিজির পক্ষে যুদ্ধ করার সময় লেভি নামে ২৪ বছর বয়স্ক এক আমেরিকান নিহত হন। তার মা কলোরাডোর সুসান শার্লি জানান, সে আইএসকে ভয়ংকর একটি গ্রæপ বলে মনে করত। সে কারণেই তাদের বিরুদ্ধে লড়াই করতে ওয়াইপিজির সাথে যোগ দিয়েছিল।
২০১৫ সালে কেইথ ব্রæমফিল্ড নামের ম্যাসাচুসেটসবাসী একজন আমেরিকান যোদ্ধা কোবানিতে আইএসের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে নিহত হন। কুর্দি কমান্ডাররা তার নিহত হওয়ার কথা নিশ্চিত করেন। তারা বলেন, আইএসের বিরুদ্ধে যুদ্ধে নিহত সকল বিদেশীকে শহীদের মর্যাদা দেয়া হয়েছে।
কুর্দিদের বিবৃতিতে ৬ জুলাই গ্রডের সাথে লুক রাটার নামে এক ব্রিটিশ বেসামরিক যোদ্ধারও নিহত হওয়ার কথা জানানো হয়। সঙ্গী আরো কিছু কুর্দি যোদ্ধার সাথে তিনি নিহত হন বিবৃতিতে বলা হয়।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: আইএস


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ